আগামী ৫ বছরে কক্সবাজার অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ অঞ্চলে পরিণত হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

আগামী ৫ বছরে কক্সবাজার অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ অঞ্চলে পরিণত হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

26 May 2014, 4:55:36

Lotas kamal.4

 

 

 

 

 

 

কক্সবাজার: পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, আগামী ৫ বছরে কক্সবাজার অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশের অন্যতম সমৃদ্ধশালী অঞ্চলে পরিণত হবে। তিনি বলেন, মহেশখালী মাতারবাড়ীতে বিদ্যুৎ প্ল্যান্ট ও গভীর সমুদ্র বন্দর, কুতুবদিয়ায় অর্থনৈতিক জোন স্থাপনের মাধ্যমে কক্সবাজারকে অর্থনৈতিকভাবে একটি সমৃদ্ধশালী অঞ্চলে পরিণত করা হবে। মন্ত্রী আজ সকালে কক্সবাজারে মেরিন ড্রাইভ কার্যক্রম পরিদর্শনকালে এ কথা বলেন। এ সময় যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তার সাথে ছিলেন।

 

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সমুদ্র সৈকত হওয়া সত্বেও বিশ্ববাসীর কাছে সেই অর্থে কক্সবাজারকে পরিচিত করানো যায়নি। কক্সবাজারকে একটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল ও বিশেষ পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তোলা হবে। কক্সবাজারের অভঙ্গুর ১২০ কি. মি. সমুদ্র সৈকতের পাশ দিয়ে রাস্তা তৈরী করে কক্সবাজারকে সমুদ্র সৈকত অঞ্চল ও পর্যটন স্পট হিসেবে বিশ্ববাসীর কাছে পরিচিত করানো হবে। তিনি বলেন, এতে পর্যটন শিল্পসহ কক্সবাজারের সামগ্রিক অর্থনীতি বহুগুনে বৃদ্ধি পাবে।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার আগামী পাঁচ বছরে যে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে তা বিগত ৪০ বছরের সব প্রকল্প থেকেও বেশী হবে। এসব উন্নয়ন প্রকল্প সফল করতে হলে দেশের সকল মানুষকে সম্পৃক্ত করতে হবে। সরকার গুরুত্ব সহকারে এ কাজটি করে যাচ্ছে। এ সময় গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, সরকারের উন্নয়ন সফলতার কথা আপনারা গণমাধ্যমে প্রচার করে দেশকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করতে পারেন। আপনারা বলতে পারেন যে, আমরা পিছিয়ে নেই। আমরা উন্নয়নের পথে উত্তরোত্তর এগিয়ে যাচ্ছি।

পরিকল্পনা মন্ত্রী উল্লেখ করেন, তিনি কক্সবাজারের সরকারি সম্পত্তি বেদখল হওয়া রোধ করার জন্য জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে বেদখল সরকারি জমি পুনরুদ্ধারের জন্যে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, ৮৪ কি.মি. দৈর্ঘ্যরে মেরিন ড্রাইভ প্রকল্পটি ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে সম্পন্ন হবে। এ কাজ সম্পন্ন হলে পর্যটকরা কক্সবাজার থেকে টেকনাফ পর্যন্ত সমুদ্রের পাশ দিয়ে সড়কপথে যেতে পারবেন। মেরিন ড্রাইভ প্রকল্পের ঊধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: