‘আব্দুল গফুর ভূইয়া’রা সমাজের মহৎ হৃদয়ের মানুষ ‘ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ ◈ অনুকূল পরিবেশ হলে এইচএসসি পরীক্ষা ◈ কুমিল্লায় বিপুল ইয়াবাসহ দম্পতি আটক!

‘আব্দুল গফুর ভূইয়া’রা সমাজের মহৎ হৃদয়ের মানুষ ‘

26 May 2020, 5:07:46

‘আব্দুল গফুর ভূইয়া’রা সমাজের মহৎ হৃদয়ের মানুষ ‘

দেশে যখন ধনী গরিবের বৈষম্য ক্রমেই প্রকট হচ্ছে, যখন বাসার কাজের ছেলে মেয়ে বাসার মালিক দ্বারা নির্যাতিত হয় কিংবা তাদের নূন্যতম অধিকার দিতে যখন সমাজ রাষ্ট্র ব্যার্থ তখন পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন বিগত রমজান মাসের মতো কুমিল্লা-১০ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য, নাঙ্গলকোটের উন্নয়নের রুপকার এবং তৃণমূলের নেতাকর্মী,সমার্থকদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয় আলহাজ্ব আব্দুল গফুর ভূইয়া তার বাসার কাজের ছেলে মেয়েদের নিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন এক টেবিলে বসে খাবার খাচ্ছেন।
এছাড়া পবিত্র রমজান মাসে তাদের সবাইকে নিয়ে এক টেবিলে ইফতার করেছেন, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাসার কাজের ছেলে মেয়েদের তাদের পছন্দ অনুযায়ী জামাকাপড় কিনে দেন নিয়মিত। আব্দুল গফুর ভূইয়া সমাজে এক অন্যান্য মানবিক ব্যাক্তিত্বের নজির সৃষ্টি করেছেন।

আলহাজ্ব আব্দুল গফুর ভূইয়ার মহত্ত্ব সেখানেই, তিনি খুব সহজে ধনী গরিবের সাথে মিশে যেতে পারেন। ক্ষমতায় থাকাকালীনও তিনি ধনী গরিবের বৈষম্য করেন নি বরং মানুষ কে ভালোবাসতে শিখেছেন। ধনী-গরিব সবাইতো এক আল্লাহর সৃষ্টি তবুও আমরা কেনো এত বৈষম্য করি?
তাহলে এত বিবেধ কেন? কেন আমরা পারি না কাজের ছেলে বা মেয়েটিকে নিজের সন্তানের মত দেখতে?? দয়া করুন, রহম করুন তাদের প্রতি। মহান আল্লাহ আপনার উপর রহম করবেন।একটু সুন্দর মনের মানুষ হন,মানুষ রুপী জানোয়ার হবেন না।একটু সহানুভূতিশীল হোন তাদের প্রতি
যারা অভাব-অনটনের শিকার হয়ে যারা আজ আপনার ঘরের কাজের লোক। একটু ভাবুন এই জায়গায় যদি আপনি হতেন তখন কি রকম হতো? হয়তোবা দেখবেন একদিন হয়েও গেছেন। আল্লাহ যার উপর অসন্তুষ্ট হন, তাকে পদে পদে লাঞ্চিত করেন।

‘বলুন, হে আল্লাহ! তুমিই সার্বভৌম শক্তির অধিকারী। তুমি যাকে ইচ্ছা রাজ্য দান কর এবং যার কাছ থেকে ইচ্ছা রাজ্য ছিনিয়ে নাও এবং যাকে ইচ্ছা সম্মান দান কর আর যাকে ইচ্ছা অপমানিত কর। তোমারই হাতে রয়েছে যাবতীয় কল্যাণ। নিশ্চয়ই তুমি সর্ব বিষয়ে ক্ষমতাশীল।”
সূরা আলে ইমরান; আয়াত ২৬’

একটু ভালোবাসতে শিখুন বাসার কাজের লোকদের। না হয় মনুষ্যত্ব বোধ টা ধীরে ধীরে বিলুপ্ত হয়ে,আপনি মানুষরূপী হায়েনা হয়ে যাবেন। আপনার মাঝে মানুষের গুণাগুণ থাকবে না। পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঠিকই রেষ্টুরেন্টে বসে খাচ্ছেন অথচ পাশের টেবিলে কাজের মেয়েকে বসিয়ে রেখেছেন আপনার খাওয়ার দৃশ্য দেখতে? কেমন মানুষ আপনি??
এই ধরনের মানসিকতা বদলান, যদি কাজের লোক কে খাওয়াতে না পারেন, সম্মান না দিতে পারেন তবে বাসায় কাজের লোক রাখবেন না। তাদের প্রতি একটু সহানুভূতি যদি আপনার মন থেকে না আসে,তাহলে তাদের সাথে নিয়ে আসবেন না। প্রেমহীন, ভালোবাসা শূন্য ও নির্দয় হৃদয় পাথরের চেয়েও কঠিন। এক জাতির ভৎসনায়
আল্লাহতায়ালা বলেন
“অতঃপর তোমাদের অন্তর কঠিন হয়ে গেছে। তা পাথরের মতো অথবা তার চেয়েও বেশি। এমন পাথর আছে যা থেকে ঝর্ণা প্রবাহিত হয়, এমনও আছে, যা বিদীর্ণ হয়, এরপর তা থেকে পানি নির্গত হয় আর এমনও আছে, যা আল্লাহর ভয়ে খসে পড়তে থাকে। আল্লাহ তোমাদের কাজ-কর্ম সম্পর্কে বেখবর নন (সূরা আল-বাকারাহ-৭৪)”

রাসূল (স) বলেন- কেবল অপরাধীর থেকেই রহমতকে উঠিয়ে নেয়া হয়। আবু দাউদ শরিফ।
-যে ব্যক্তি সৃষ্টির সেবা করে না, তাকে আল্লাহও দয়া করেন না। রাসূল (স) বলেন- যে মানুষের উপর রহম করে না, আল্লাহও তাকে দয়া করেন না (বুখারি শরিফ)। রহমত, প্রেম, ভালোবাসার পথে চলতে যে ব্যক্তি লজ্জাবোধ করে, তাকে রাসূল (স) অপছন্দ করেন।
-রাসূল (স) বলেন- যে ব্যক্তি কারো উপর দয়া প্রদর্শন করে না, সে কখনো দয়াপ্রাপ্ত হবে না। (বুখারি ও মুসলিম শরিফ)

বাসার কাজের মানুষদের সাথে ভালো ব্যবহার করি। আসুন সমাজের প্রতিষ্ঠিত, সম্মানিত আলহাজ্ব আব্দুল গফুর ভূইয়ার মতো মহৎ হৃদয়ের মানুষদের থেকে শিক্ষা নিতে চেষ্টা করি, তাদের মতো মহৎ হৃদয়ের মানুষদের অনুসরণ করি। মহান আল্লাহ নিশ্চয়ই আমাদের হৃদয় কে নরম করে দিবেন। আমাদের মানবিক হওয়ার তাওফিক দিবেন।

লেখকঃমোঃ জোবায়ের হোসেন তুহিন 

ছাত্রনেতা

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: