সর্বশেষ সংবাদ
◈ নাঙ্গলকোটে প্রবাসীর স্ত্রীকে চায়ের সঙ্গে ঔষধ মিশেয়ে অচেতন ◈ প্রতিটি আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিচ্ছি আপনি-আমিও ◈ হামলা না চালাতে পাকিস্তানকে অনুরোধ ভারতের! ◈ পুঁজিবাজার শক্তিশালী করতে হবে-অর্থমন্ত্রী ◈ সম্পাদক পরিষদের সভাপতি মাহফুজ আনাম, সাধারণ সম্পাদক নঈম নিজাম ◈ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট থেকে পদত্যাগ করেছেন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শোভন ◈ নাঙ্গলকোটের কৃতি সন্তান তৈরি করেছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ‘এডুবট’ ◈ বিনা খরচে বাংলাদেশিদের জন্য জাপানে চাকরির সুযোগ ◈ কুমিল্লায় চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে (৯) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ◈ তিতাসের জুনাব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যোৎসাহী হলেন জালাল সরকার

কারাগারে জানাজা শেষে জন্মভূমির মাটিতে শহীদ প্রেসিডেন্ট মুরসীর দাফন সম্পন্ন

১৮ জুন ২০১৯, ১০:০০:৫৭

অবৈধভাবে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখলকারী ইহুদিবাদী ইসরাইল ও পশ্চিমা প্রভুদের অনুসারী মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দুল ফাত্তাল আল সিসির কারাগারে মৃত্যুবরণকারী দেশটির গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম প্রেসিডেন্ট ও মুসলিম ব্রাদারহুডের সিনিয়র নেতা মুহাম্মাদ মুরসীর দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৮ জুন) স্থানীয় সময় ভোর পাঁচটায় জন্মভূমি পূর্ব কায়রোতে নাসরের একটি কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। ইখওয়ানুল মুসলিমিনের নেতাকর্মীদের পাশেই তাকে সমাহিত করা হয়েছে।

ভক্তদের দেখার জন্য মৃত্যুর পরে ২৪ ঘন্টাও তাকে রাখা হয়নি। ময়নাতদন্ত শেষ হওয়ার পরেই প্রসিকিউশন লাশ দাফনের অনুরোধ জানায়। মুরসীর ব্যক্তিগত আইনজীবী আব্দুল মুনইম আব্দুল মাকসুদ আনাদুলুকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কারাগারের মসজিদে মুরসীর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় তার স্ত্রী, সন্তানাদি এবং দুইবোন উপস্থিত ছিলেন। কারাগারে বন্দি থাকা তার পুত্র উসামা মুরসিও জানাজা এবং দাফনের সময় পিতার পাশে উপস্থিত ছিলেন।

৬৭ বছর বয়সী মুহাম্মাদ মুরসী গতকাল সোমবার (১৭ জুন) দেশটির আদালতে বক্তৃতারত অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন।

মিশরে স্বৈরশাসক হোসনি মোবারকের পতন হলে প্রথমবারের মতো গণতান্ত্রিকভাবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মুহাম্মাদ মুরসী।

ক্ষমতা গ্রহণের এক বছরের মাথায় ২০১৩ সালে, তৎকালীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইহুদিবাদী ইসরাইলের দোষর আবদেল ফাত্তাহ আল সিসির নেতৃত্বে এক রক্তক্ষয়ী সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে অবৈধভাবে মুহাম্মাদ মুরসীকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়।

ক্ষমতাচ্যুত করার পর মুরসীকে কারাবন্দি করে সৌদি ও তার আরব মিত্র এবং পশ্চিমাদের সমর্থন পাওয়া সিসির সরকার। এরপর রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তিসহ তথাকথিত বিভিন্ন অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি করা হয় তাকে।

কয়েকটি মামলায় মুরসীকে ৪৮ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

গত ৬ মে মুহাম্মদ মুরসীর পরিবার জানায়, তাকে বর্তমানে নির্জন কারাবাসে রাখা হয়েছে। এটা তাকে বন্দিদশার শর্ত-বিরোধী। ইচ্ছাকৃতভাবেই এমনটা করা হচ্ছে।

মুরসীর পরিবার আরও জানায়, কারাগারে সাবেক প্রেসিডেন্টের ঠিকমতো চিকিৎসা হচ্ছে না এবং সেখানে তাকে বারবার হত্যা করার হুমকি দেয়া হচ্ছে। এমনকি হুমকির বিষয়টি আদালতকে জানানো হলেও এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

মুহাম্মাদ মুরসীর পরিবারের পক্ষ থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে কারাগারে তার দুরবস্থার জন্য প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আস-সিসি সরকারকে সরাসরি দায়ী করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, মিশিরের সাবেক প্রেসিডেন্টকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে এবং তার সঙ্গে পরিবারের সদস্যদের সাক্ষাৎ করতে না দিয়ে আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকার মারাত্মকভাবে লঙ্ঘন করা হচ্ছে।

এছাড়া, চলতি বছরের মার্চ মাসে প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদ মুরসী চিকিৎসার অভাবে কারাগারে মৃত্যুবরণ করতে পারেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছ ব্রিটেনের সংসদীয় কমিটি।

ব্রিটিশ দৈনিক ‘দ্য টাইমস’ কয়েকজন সংসদ সদস্য ও আইনজীবীর বরাত দিয়ে লিখে, মুহাম্মাদ মুরসী বিভিন্ন ধরণের রোগে ভুগছেন। ডায়াবেটিস, ব্লাড প্রেশার ও লিভার সমস্যায় ভুগলেও তার সঠিক চিকিৎসা হচ্ছে না। তাকে মিশরের রাজধানী কায়রোর একটি জেলখানার নির্জন সেলে রাখা হয়েছে। খারাপ আচরণ এবং চিকিৎসার অভাবে মুরসীর জীবন এখন হুমকির মুখে রয়েছে।

মুহাম্মাদ মুরসী গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত মিসরের প্রথম প্রেসিডেন্ট ছিলেন। আরবদেশসমূহের মধ্যে এই প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত কোন প্রেসিডেন্ট জালিমের কারাগারে বন্দী থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলেন।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: