কুমিল্লাকে অপমান করলো প্রথম আলো

১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:২২:০৩

 

বাপ্পি মজুমদার ইউনুসঃ
কুমিল্লাকে চরমভাবে অপমান করলো প্রথম আলোর ক্রিয়া সাংবাদিক তারেক মাহমুদ। ঢাকা কুমিল্লা যখন মুখোমুখি ফাইনালে ঠিক তখন গতকাল শুক্রবার ফাইনালের দিন প্রথম আলোয় প্রতিবেদনে ঢাকাকে কুমিল্লার সাথে তুলনা করার ক্ষেত্রে কুমিল্লাকে চরমভাবে অপমান করলো সাংবাদিক নামের কলঙ্ক তারেক মাহমুদ। এই তারেক মাহমুদ ১৯৯৪-১৯৯৬ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেছেন। পাশাপাশি উনি কুমিল্লা জিলা স্কুলের ছাত্র ছিলেন। তারপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতা বিভাগে অধ্যয়ন করেন। কুমিল্লার ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতি সম্পর্কে তার কোন ধারণা না থাকায় বা হিংসার বনবাসে বসেছে নোংরা মানসিকতার পরিচয় দিয়ে এই সংবাদ পরিবেশন করেছেন।

কুমিল্লার ইতিহাস ঐতিহ্য দুই একদিনের নয় সাড়ে চারশ বছরের ইতিহাস। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ স্মৃতি ধারণ করে এবং সংগ্রাম ঐতিহ্য লীলাভূমি এই কুমিল্লা। এক সময় এই কুমিল্লায় ছিল ত্রিপুরা রাজধানী আর বৃহত্তর কুমিল্লার অংশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফেনী নোয়াখালী চাঁদপুর বৃহত্তর কুমিল্লা ছিল। আজ কুমিল্লা দাঁড়িয়ে আছে তার ইতিহাস নিয়ে। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত কুমিল্লায় ছিল একমাত্র ধারক-বাহক। ভাষা আন্দোলন নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং বাংলা ভাষাকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা রূপ দিয়েছেন কুমিল্লার কৃতি সন্তান শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত। অসংখ্য গুণীজন এই কুমিল্লার সন্তান। ডঃ বদিউল আলম মজুমদার, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, শিক্ষা মন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি, এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, এরা বর্তমান কুমিল্লার প্রতিচ্ছবি। বিগত দিনগুলোর কথা তুলে ধরছি না।

শিক্ষা শিল্প-সাহিত্য সংস্কৃতি পাদপীঠ কুমিল্লা প্রাচীন ঐতিহ্য সমৃদ্ধ জেলা হিসাবে এই উপমহাদেশে সুপরিচিত। কুমিল্লার খাদি শিল্প, তাঁত শিল্প, কুটির শিল্প, মৃৎশিল্প ও কারুশিল্প, রসমালাই, মিষ্টি, ময়নামতির শীতল পাটি ইত্যাদি স্ব-স্ব ঐতিহ্য স্বকীয়তা আজও বজায় রেখেছে। কালের বিবর্তনের ধারায় এসেছে অনেক কিছু অনেক কিছু গেছে হারিয়ে হারায় নি এখনও মানুষের আন্তরিকতাপূর্ণ আতিওতা ও সামাজিক সম্প্রীতি। কুমিল্লা একসময় বর্তমান ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের অংশ ছিল এবং কুমিল্লার আদি নাম ছিল ত্রিপুরা কারণ তৎকালীন সময়ে কুমিল্লায় ছিল ত্রিপুরার রাজধানী। 1733 সালে বাংলার নবাব সুজাউদ্দিন ত্রিপুরা রাজ্য আক্রমণ করে এর সমতল অংশ সুরে বাংলার অন্তর্ভুক্ত করেন।

ক্রীড়া সাংবাদিক তারেক মাহমুদ কে জনসম্মুখে ক্ষমা চাইতে হবে এবং প্রথম আলোকে এই বিষয়ে ক্ষমা চেয়ে প্রতিবেদন তৈরি করতে হবে। ফেসবুক লাইভে এসে তাদের অন্যায় এবং তাদের এই ধর্ষিতার ব্যাখ্যা দিতে হবে নতুবা কুমিল্লার কৃতি সন্তানেরা এবং কুমিল্লার আপামর জনতা প্রথম আলোকে ছেড়ে দেবে না। প্রয়োজনে আমি মামলার জন্য প্রস্তুতি নিব এবং পুরো বাংলাদেশ প্রতিরোধ গড়ে তুলবো। আমি বাপ্পি মজুমদার ইউনুস, দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক এবং জাতীয় পত্রিকা দৈনিক আমাদের নতুন সময়’র কুমিল্লা জেলা ব্যুরো চিফ। আপনারা সকলেই আমার সাথে একতা প্রকাশ করুন এবং এই অপমানের প্রতিরোধ গড়ে তুলুন।

কুমিল্লার কৃতি সন্তানদের সামান্য কিছু তালিকা-
বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম রাব্বানি সরকার, চরবাকর, দেবিদ্বার, কুমিল্লা। মহারাজ বীরচন্দ্র মাণিক্য বাহাদুর, ত্রিপুরার মহারাজা। শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত, ভাষাসৈনিক ও সাবেক গণপরিষদ সদস্য। রায় বাহাদুর অানন্দ চন্দ্র রায়, প্রতিষ্ঠাতা, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ। শচীন দেব বর্মণ, বিখ্যাত গীতিকার ও সুরকার। ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন, সাবেক মন্ত্রী, বাংলাদেশ। এম কে আনোয়ার সাবেক কৃষিমন্ত্রী, বাংলাদেশ। ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া,সাবেক মন্ত্রী
লেঃ জেনারেল মোঃ মইনুল ইসলাম (অবঃ), OSP, BGBM, awc, psc.। মোহাম্মদ মেহেদী হাসান, লেখক বিজিবি’র সাবেক মহাপরিচালক, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ। মেজর জেনারে(অব:) শুবিদ আলি ভূইয়া এমপি কুমিল্লা ১ আসন
ক্যাপ্টেন নরেন্দ্রনাথ দত্ত, প্রতিষ্ঠাতা, শ্রীকাইল কলেজ
অতীন্দ্র মোহন রায়, সাবেক চেয়ারম্যান, কুমিল্লা পৌরসভা।
আখতার হামিদ খান, প্রতিষ্ঠাতা, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমি।
মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য, প্রতিষ্ঠাতা, মহেশ চ্যারিটেবল ট্রাস্ট
মুজিবুল হক মুজিব, সাবেক রেলমন্ত্রী, বাংলাদেশ।
অধ্যাপক ডাঃ প্রাণগোপাল দত্ত, সাবেক উপাচার্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়।
শিব নারায়ণ দাস, বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার প্রথম রূপকার৷ আপেল মাহমুদ বাংলাদেশের বেতার ও বিটিভির সাবেক মহা পরিচালক গীতিকার গায়ক বীর মুক্তিযুদ্ধা, রাহুল দেব বর্মণ। মেজর আব্দুল গণি, বীর প্রতীক, প্রতিষ্ঠাতা ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট। আজিজুর রহমান সরকার, প্রাক্তন কৃষিমন্ত্রী, বাংলাদেশ। এনামুল হক মনি, আইসিসি আম্পায়ার। আ হ ম মোস্তফা কামাল লোটাস, অর্থমন্ত্রী, বাংলাদেশ ও সাবেক আইসিসি সভাপতি। ড.মিজানুর রহমান ভিসি জবি। সুফিয়া কামাল, কবি ও নারী নেত্রী। নওয়াব ফয়জুন্নেসা চৌধুরানী, লেখিকা, সমাজ কর্মী ও জমিদার। বুদ্ধদেব বসু, কবি, ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, গল্পকার ও নাট্যকার। মোঃ তাফাজ্জাল ইসলাম, বাংলাদেশের সাবেক প্রধান বিচারপতি। মোঃ আবু তাহের, সাবেক নৌবাহিনী প্রধান। ভাষা সৈনিক,মুক্তিযোদ্ধা কবি ম,আ,ন শহীদুল্লাহ সাহিত্যরত্ন(বাংলার স্বপ্ন দ্রষ্টা কবি)১৯২৩-২০০৫। কবি আহমেদ উল্লাহ্, কথাসাহিত্যিক ও গীতিকার। আসিফ আকবর, সঙ্গীত শিল্পী। কাজী জাফর আহমেদ, রাজনীতিবিদ ও বাংলাদেশের ৮ম প্রধানমন্ত্রী। ব্যারিস্টার শফিক আহম্মেদ, সাবেক আইনমন্ত্রী, বাংলাদেশ।
আব্দুল মতিন খসরু, সাবেক আইনমন্ত্রী, বাংলাদেশ ও প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া, সাবেক সেনা প্রধান, বাংলাদেশ। এয়ার ভাইস মার্শাল জামাল উদ্দীন আহমেদ, বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক চিফ এয়ার স্টাফ। আবদুল খালেক, বাংলাদেশ পুলিশের প্রথম আইজিপি। অধ্যাপক মুজাফফর আহমদ, সর্বদলীয় উপদেষ্টা কমিটির সদস্য, প্রবাসী গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, প্রতিষ্ঠাতা ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, রাজনীতিবিদ। শীলভদ্র, বৌদ্ধ ধর্মের অন্যতম সংগঠক। শওকত মাহমুদ, সাবেক সভাপতি জাতীয় প্রেস ক্লাব। বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন, আপিল বিভাগ। আনোয়ারা অভিনেত্রী। আজিজুল হাকিম, নাটক অভিনেতা। ফেরদৌস আহমেদ অভিনেতা। ড.ইমরান কবির চৌধুরী, ভিসি কুবি। আহমদ রফিক, ভাষাবিদ। শাহরিয়ার নাজিম জয় অভিনেতা। হেমপ্রভা মজুমদার। এ, কে, এম, জহিরুল হক (লীল মিয়া)। হারুন কিসিঞ্জার, বিশিষ্ট কৌতুক অভিনেতা। অধ্যাপক আলী আশ্রাফ এমপ‌ি (সাব‌েক ডেপুট‌ি স্পীকার, জাতীয় সংসদ)। এ.এফ.এম ফখরুল ইসলাম মুন্সী(সাবেক মন্ত্রী) উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বাংলাদেশের ২২তম প্রধান বিচারপতি।
অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ, উপাচার্য, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। সার্জেন্ট অবঃ আবুল কালাম বিশিষ্ট সেনা ক্রীড়াবিদ।
অধ্যাপক ড.ফরিদ উদ্দিন আহমেদ,উপাচার্য,শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
রফিকুল ইসলাম (বিজ্ঞানী), চিকিৎসক ও চিকিৎসা বিজ্ঞানী।

প্রথম আলোর মত জনপ্রিয় জাতীয় পত্রিকায় কুমিল্লার নামে আলাদা পাতা ছাপানো হয়। কুমিল্লা বিভাগ না হলেও কোন বিভাগের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। সেখানে প্রথম আলোর সাংবাদিক এইভাবে কুমিল্লাকে ছোট করে প্রতিবেদক তৈরি করায় কুমিল্লায় প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। তারপর গত শুক্রবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স দল জয়ের পর থেকে বিভিন্ন ফেসবুক টাইমলাইমে প্রথম আলো ক্রীড়া সাংবাদিক তারেক মাহমুদের শাস্তি দাবী করছে কুমিল্লার জনগন। পাশাপাশি কুমিল্লাতে প্রথম আলো পত্রিকা নিষিদ্ধের দাবী তুলেছে কুমিল্লার হাজারো ক্রিকেট ভক্ত।

প্রথম আলো তার সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই অনধিকার চর্চার খেসারত প্রথম আলোকে দিতে হবে। আমি বর্তমান অর্থমন্ত্রী কুমিল্লার অহংকার আ হ ম মুস্তফা কামাল লোটাস কামালের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। অবিলম্বে প্রথম আলোকে ক্ষমা চাইতে হবে।

যারা লেখাটি নিজ ওয়ালে প্রকাশ করবেন অবশ্যই নামের ম্যানশন দিয়ে প্রকাশ করবেন। আর সবাইকে অনুরোধ করছি, বেশি বেশি করে শেয়ার করুন।
আপনার পরিচিত সবকটি পত্রিকায় লেখাটি পাঠানোর অনুরোধ করছি। অনলাইন যারা পরিচালনা করেন তাদের প্রতি অনুরোধ লেখাটি প্রকাশ করে এই প্রতিবাদে অংশ নিন।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: