নাঙ্গলকোটে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

নাঙ্গলকোটে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু

11 June 2017, 6:28:36

জামাল উদ্দিন স্বপন:
কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের বেসরকারি ট্রমা হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় গতকাল শনিবার সকালে হৃদয় (১২) নামে এক শিশুর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। সে উপজেলার আদ্রা ইউনিয়নের তুগরিয়া গ্রামের শাহ আলমের ছেলে। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আদ্রা ইউনিয়নের তুগরিয়া গ্রামের শাহ আলমের ছেলে হৃদয় গত ৪ মে বৃহষ্পতিবার গাছ থেকে পড়ে ডান পা ভেঙ্গে যায়, পরে অসুস্থ হৃদয়কে নাঙ্গলকোট উপজেলা সদরের ট্রমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার তার পায়ে প্লাষ্টার করলে তাকে বাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়। গত শুক্রবার রাতে হৃদয়ের পায়ে প্রচন্ড ব্যাথা হয়। গতকাল শনিবার সকালে অসুস্থ হৃদয়কে আবার ট্রমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সাইফুল ইসলাম হৃদয়কে ইনজেকশান পুস করলে হৃদয় অচেতন হয়ে পড়েন। পরে তাকে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক হৃদয়কে মৃত ঘোষণা করেন। হৃদয়ের দাদা আবদুস সাত্তার বলেন, এক সপ্তাহ পূর্বে হৃদয়কে ট্রমা হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। গত শুক্রবার রাতে হৃদয় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে গতকাল শনিবার সকালে আবার ট্রমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ট্রমা হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার হৃদয়ের চিকিৎসার জন্য স্যালাইন এবং ইনজেকশান আনতে বলেন। ইনজেকশান আনার পর ডাক্তার হৃদয়কে ইনজেকশান দেয়ার সাথে-সাথে হৃদয়ের মৃত্যু হয়। ট্রমা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সাইফুল ইসলাম বলেন-হৃদয়কে মুমুর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে আনা হলে তাকে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেফার করা হয়। হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়। ট্রমা হাসপাতালের ব্যবস্থাপক মনির হোসেন বলেন, হৃদয়কে গতকাল শনিবার সকালে হাসপাতালে আনার পর অবস্থা খারাপ দেখে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেফার করা হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে তাজুল ইসলাম মেম্বার দায়িত্ব নিয়েছেন।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: