কুমিল্লায় ১৪ হাজার প্রবাসীর ৮৭০ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

20 March 2020, 7:13:36

আবু সুফিয়ান রাসেল।।

চলতি মাসে প্রবাস থেকে আগত ১৪ হাজার প্রবাসীর মধ্যে ৮৭০ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে অবস্থান করছেন। সরকারি তথ্যমতে, কুমিল্লায় ১৩ শতাংশ মানুষ প্রবাসে রয়েছেন। এছাড়া পাঁচটি উপজেলা সিমান্তবর্তী। ফলে কুমিল্লায় ঝুঁকির পরিমাণ বেশী।

কুমিল্লা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে ২০ মার্চ প্রাপ্ত তথ্যমতে, সদর উপজেলায় ২৬, মেঘনা ২১, হোমনা ২১, তিতাস ৭৯, দাউদকান্দি ২৮, মুরাদনগর ৩২১, দেবিদ্বারে ১০, বুড়িচং ১৯, বি. পাড়া ০৯, চান্দিনা ২২, বরুড়া ১২, লাকসাম ৫১, মনোহরগঞ্জ ৫৭, নাঙ্গলকোট ৭৬, চৌদ্দগ্রাম ১৮, সদর দক্ষিণে ৫৭ ও লালমাই উপজেলায় ৪৩ জনসহ কুমিল্লা ৮৭০জন হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন।

শহরতলীর বাসিন্দা মো. কাউছার মন্তব্য করেন, গত দুই সাপ্তাহের মধ্যে যারা প্রবাস থেকে এসেছেন তাদের অনেক হোম কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম মানছেন না। তারা সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগদান করছেন। শুক্রবার জুমার নামাজে অনেকে শামিল হয়েছেন।

কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. নিয়াতুজ্জামান বলেন, শুক্রবার পর্যন্ত কুমিল্লা ৮৭০ জন প্রবাসী হোম কোয়ারেনটাইনে আছেন। বৃহস্পতিবার যার সংখ্যা ছিলো ৬১০ জন। কুমিল্লায় ইতোমধ্যে ৮ জন হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে বের হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনাভাইরাসের কোন উপসর্গ পাওয়া যায়নি।

জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, চলতি মাসের ১৫ তারিখ পর্যন্ত
১৪ হাজার ১৮৩ জন প্রবাসী কুমিল্লায় এসেছেন। ইতালি, সিঙ্গাপুর, ইরান, কানাডার প্রবাসী বেশী কুমিল্লায়। তাদের একাধিক ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ, স্থানীয় সরকার ও প্রশাসন যৌথভাবে কাজ করছে। এলাকা ভিত্তিক কমিটি করা হয়েছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সবার অান্তরিকতা প্রয়োজন।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিচালক ডা. মো. মুজিবুর রহমান বলেন, ২০ শয্যার আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত আছে। প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম পেয়েছি। জ্বর, সর্দি ও কাশির রোগীগণ প্রাথমিক ভাবে টেলিমেডিসিনের (০১৯৩৫০০৭০৪৯) মাধ্যমে জরুরি বিভাগ থেকে ২৪ ঘণ্টা সেবা নিতে পারবেন।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: