কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র হলের পাশ ঘেঁষে ছাত্রী হল, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র হলের পাশ ঘেঁষে ছাত্রী হল, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

7 June 2017, 11:16:45

আব্দুর রহিম বাবলু,কুমিল্লা প্রতিনিধি:-

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র হলের পাশ ঘেঁষেই নির্মিত হচ্ছে ছাত্রীদের জন্য একটি আবাসিক হল। দুইটি ছাত্র হলের লাগোয়া নতুন ছাত্রী হল নির্মান কাজ শুরু হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মাঝে বেশ মিশ্র প্রতিক্রিয়া এবং ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। সুপরিকল্পিতভাবে স্থাপনা নির্মান হচ্ছে না তাই পরিকল্পিত অবকাঠামোগত উন্নয়নের দাবি জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। জানা যায়, শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের মূল ফটক সংলগ্ন সড়কের উপর শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ও কাজী নজরুল ইসলাম হলের কয়েক ফুট দূরেই ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ছাত্রীদের জন্য নির্মাণ করা হচ্ছে ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট নতুন একটি আবাসিক হল। ছাত্রী হল নির্মানের স্থানটিতে সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায়, শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের সড়ক কেটে ছাত্রী হল নির্মাণ কাজের প্রক্রিয়া চলছে। নতুন এই ছাত্রী হলটি ছাত্র ও ছাত্রীদের গোপনীয়তা চরমভাবে বিনষ্ট করবে বলে মনে করছেন শিক্ষার্থীরা। ছাত্রদের হলের এত কাছে ছাত্রী হল নির্মাণ হলে ছাত্র বা ছাত্রীদের হলের ছাদে কেউই স্বাচ্ছন্দে উঠতে পারবে না। দত্ত হল, শিক্ষক ডরমেটরি, উপাচার্যের বাসভবন, নওয়াব ফযজুন্নেছা হলের মাঝে এ জায়গাটি নতুন কোন স্থাপনা নির্মানের জন্য উপযোগী নয়। এ সংকুচিত জায়গায় নতুন হল নির্মাণ না করে ভূমি অধিগ্রহণের দিকে দৃষ্টি দিতে প্রশাসনের প্রতি দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। দত্ত এবং নজরুল ইসলাম হলের কাছেই নতুন হল নির্মান করলে এসব স্থাপনাকে ঘিরে কোন ফাঁকা জায়গাই আর অবশিষ্ট থাকবে না। সুদুর পরিকল্পনা থাকলে কর্তৃপক্ষ এমনটি কিভাবে চিন্তা করতে পারে বলে ক্ষোভ জানান দত্ত ও নজরুল হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা। এদিকে নতুন হল নির্মানের জন্য ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের সড়ক কাটা পড়ায় দত্ত হলের জন্য সড়কটি ঘুরিয়ে টিলার উপর দিয়ে খাড়া করে নামিয়ে দেওয়ার কাজ চলছে যা নির্মিতব্য ছাত্রী হলের প্রাচীর ঘেষা হবে। বেশ কয়েকটি দালানের মাঝে খুবই স্বল্প জায়গায় ছাত্রী হল নির্মানের প্রক্রিয়া শুরু করায় শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের মাঝে বেশ ক্ষোভ এবং মিশ্র প্রতিক্রিয়াও লক্ষ্য করা গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও টুইটারে এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।এমন জায়গায় কোন স্থাপনা নির্মাণ বিশেষ করে ছাত্রী হল নির্মানের কথা শিক্ষার্থীরা চিন্তাই করতে পারেননি। দুটি ছাত্র হল এবং শিক্ষক ডরমেটরির পাশে ছাত্রী হল নির্মাণ কতটা যৌক্তিক এমন প্রশ্ন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীদের। ছাত্র হল গুলোর পাশেই ছাত্রী হল নির্মাণ প্রসঙ্গে কুবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড.আবু তাহের বলেন, ‘ছাত্র হলের পাশেই ছাত্রী হল নির্মাণ হলে ছাত্র-ছাত্রীদের উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। আর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা না করেই যত্রতত্র ভবন নির্মাণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্য ও অবকাঠামো নষ্ট করছে। ভূমি অধিগ্রহনের প্রতি কর্তৃপক্ষের নজর দেওয়া উচিত।’ ছাত্র হলের সাথে কিভাবে ছাত্রী হল নির্মাণ হয় এমন প্রশ্নে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আলী আশরাফ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে জায়গা নেই তাই এখানে হল নির্মাণ করা হচ্ছে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: