খুলনায় সামান্য বৃষ্টিতেই সীমাহীন ভোগান্তি নগরবাসীর | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

খুলনায় সামান্য বৃষ্টিতেই সীমাহীন ভোগান্তি নগরবাসীর

19 May 2018, 7:26:00

 

বি এম রাকিব হাসান, খুলনা ব্যুরো:
আকাশে মেঘ ডাকলেই যেন ডুবে যায় খুলনা নগরীর রয়েলের মোড় বেনী বাবু রোড আহসান আহমেদ রোড শান্তিধামের মোড় ও প্রানকেন্দ্রগুলো। খুলনা মহানগরী এলাকায় ৫১ মিলিমিটার বৃষ্টিতে পানি থৈ থৈ করে নগরীর অধিকাংশ সড়কগুলো। রাস্তার কোথাও হাঁটু কোথাও হাঁটুর ওপরে উঠে যায় পানি। অপরদিকে বৃষ্টির কারণে সড়কগুলোর বেহাল দশা। ওয়াসা খোঁড়াখুঁড়ি আর জোড়াতালি দিয়ে ঠিক করলেও বৃষ্টির কারণে আবারও আগের চিত্রই দেখা যাচ্ছে। ফলে সড়কগুলোর এ অবস্থার কারণে সাধারণ জনগণকে সীমাহীন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
সূত্রমতে, গত শুক্রবার খুলনার বিভিন্ন এলাকার সড়কগুলো ঘুরে দেখা গেছে, ভাঙাচোরা, খানাখন্দে ভরা সড়কগুলোয় জমে ছিল হাঁটু সমান পানি। রিক্সা ও ইজিবাইক চালকদের এ সব সড়কে চলাচলের সময় গর্তে পড়ে দুর্ঘটনার শিকার হতে দেখা গেছে। ২ ঘন্টার অনবরত বর্ষণের কারণে দ্বিগুণ-তিনগুণ ভাড়া আদায় করেছে রিক্সা ও ইজিবাইক চালকরা। যাত্রী সাধারণ জলজটের কবল থেকে বাঁচতে সামান্য পথ পাড়ি দিতে অতিরিক্ত ভাড়া সানন্দে মেনে নিয়েছেন। বেশ কিছু জায়গায় জলাবদ্ধতা হলেও পরে আবার পানি সরে গেছে। কিন্তু অধিকাংশ জায়গায় পানিবন্দী হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। ফলে জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে। বৃষ্টির পানির সাথে নোংরা পানি এক হয়ে এখন একাকার। ড্রেনের ময়লা-আবর্জনা এখন রাস্তার ওপর পানকৌড়ির মতো ভেসে বেড়াচ্ছে। একটুখানি বৃষ্টি হলেই যে সকল এলাকার সড়কে পানি জমে দীর্ঘক্ষণ ভোগান্তিতে থাকেন নগরবাসী সেগুলো হচ্ছে- খানজাহান আলী রোড, শের এ বাংলা রোড, রূপসা স্ট্যান্ড রোড, মতিয়াখালী রোড, টুটপাড়া সেন্ট্রাল রোড, বাবুখান রোড, মৌলভীপাড়া রোড, টিবি ক্রস রোড, আহসান আহমেদ রোড, হাজী মহসিন রোড, পিটিআই মোড়, কদমতলা রোড, রূপসা ব্রিজ রোড, ইসলামপাড়া রোড, লবণচরা বান্দা বাজার, দোলখোলা, মিস্ত্রীপাড়া, মিয়াপাড়া, বাগমারা, ইকবালনগর, রায়পাড়া, শামসুর রহমান রোড, শান্তিধাম মোড়, রয়েল মোড়, ইসলামপুর রোড, বাইতিপাড়া রোড, দেবেন বাবু রোড, শেখপাড়া রোড, বসুপাড়া, নিরালা, করিমনগর, বেনী বাবু রোড, ধর্মসভা রোড, জোড়াগেট, নেভীগেট, বিআইডিসি রোড, সোনাডাঙ্গা, ছোট মির্জাপুর, গোবরচাকা রোডসহ আরও অনেক জায়গা। নগরীর ছোটখাট ড্রেন এবং খালগুলো পলি পড়ে ভরে থাকায় পানি সরতে সমস্যা হচ্ছে।
বেনী বাবু রোড এলাকার বাসিন্দা মোঃ আশিক জানান, একটুখানি বৃষ্টি হলে এ এলাকায় পানি জমে যায়। এ পানি সরতে অনেক সময় লাগে। রাস্তাটি অনেক নিচু। তাই বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়। আমরা খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
শান্তিধাম এলাকার ব্যবসায়ী মোঃ ইমরান হোসেন জানান, প্রতিবছরই বৃষ্টি হলে শান্তিধাম মোড় এবং রয়েল মোড়ে প্রায় কোমর সমান পানি থাকে। বৃষ্টির পানি সরার আগে আবার বৃষ্টি আসলে দোকানে পানি উঠে যায়। বছরের পর বছর ধরে এ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে আমাদেরকে। রাস্তাটি নিচু হওয়ার কারণে জলাবদ্ধতা বেশি সৃষ্টি হয়। মনে হয় যেন দেখার কেউ নেই। নির্বাচন আসে নির্বাচন যায় জনপ্রতিনিধিরা অনেক আশ্বাস দেয় কিন্তু জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন হয়না।
মাওলার বাড়ি খালপাড় রোড এলাকার পানিবন্দী গৃহিণী রেহেনা আক্তার জানান, পানি যাওয়ার কোন রাস্তা নেই। খাল আর ড্রেনের ময়লা পানি ও বৃষ্টির পানি এক হয়ে ঘরে ঢুকে গেছে। অনেক পোকামাকড়ও দেখা যাচ্ছে। ছেলেমেয়েদেরকে নিয়ে চরম ভোগান্তিতে আছি। রান্নাবান্না বন্ধ। বাইরে থেকে খাবার এনে খেতে হচ্ছে।
সোনাডাঙ্গার ইজিবাইক চালক মোঃ মামুন জানান, বৃষ্টি হলে টাকা একটু বেশিতো নেবো। রাস্তায় এমন পানি থাকে যে সেখান থেকে ইজিবাইক চলতে পারে না। তখন রাস্তা পাল্টে যেতে হয়। ওয়াসা রাস্তার যা অবস্থা করেছে, কাজ করে কোনও মতে জোড়াতালি দিয়ে গেছে।
খুলনা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবহাওয়াবিদ মোঃ আমিরুল আজাদ জানান, গত শুক্রবার খুলনা মহানগরীতে বেলা ১টা ২০ মিনিট থেকে বেলা সাড়ে তিনটা পর্যন্ত ৫১ মিলিমিটার বজ্রসহ বৃষ্টিপাত হয়েছে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য:

x