চট্টগ্রাম টেস্ট মুশফিকের ‘ওয়ান অব দ্য বেস্ট’ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

চট্টগ্রাম টেস্ট মুশফিকের ‘ওয়ান অব দ্য বেস্ট’

25 October 2016, 9:15:34

দীর্ঘ ১৫ মাস পর টেস্ট খেলতে নেমেছে বাংলাদেশ। ১৫ মাস পর মাঠে নেমে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অসাধারণ লড়াই করলেও হেরেছে ২২ রানে। অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের কণ্ঠে ঝড়েছে দীর্ঘদিন টেস্ট না খেলার হতাশা। তবে এ হারের মধ্যে যে অনেক ইতিবাচক দিক রয়েছে তাও মনে করেন তিনি।

পঞ্চম দিনে জয় থেকে বাংলাদেশ দূরে ছিলো ৩৩ রানে। সিঙ্গেল নিয়ে নিয়মিত প্রান্ত বদল করছিলেন সাব্বির রহমান ও তাইজুল ইসলাম।  নিজের কাছে স্ট্রাইক না রেখে তাইজুল ইসলামের কাছে সাব্বির রহমানের স্ট্রাইক দেওয়ার বিষয়টির ব্যাখ্যা দেন অধিনায়ক। বলেন, “এমন না যে এক দিক থেকে পেস করছে, এক দিক থেকে স্পিন করছে। দুই দিক থেকে পেস করবে এটাই তো স্বাভাবিক। সাব্বিরও যদি অতিরিক্ত ঝুঁকি নিতো তাহলে ও আউট হয়ে যেতো। ও আউট হয়ে গেলে খেলা আরো আগেই শেষ হতো”।

“গতকাল শেষেও সে ভালোই খেলেছিলো। আজকেও শুরুটা ভালোই করেছিলো। এ জন্যই সিদ্ধান্ত নেওয়া যে যদি রান হয় তাহলে রানটা নিয়ে নেওয়া।”

প্রায় ১৫ মাস পর বাংলাদেশের টেস্ট খেলতে নামা। এ বিষয়টি নিয়েও আক্ষেপ রয়েছে মুশফিকুর রহিমের। ১৫ মাস পর খেলতে নামা মোটেও সহজ নয় বলে মনে করেন তিনি। তিনি বলেন,  “আমাদের টেস্টে ধারাবাহিকতার খুবই অভাব থাকে। আর ১৫ মাস পরে খেলা সহজ নয়। আর ইংল্যান্ডের সাথে যে কন্ডিশনেই খেলা হোক না কেনো… ওটা আমাদের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ ছিলো।”

এ হারের মাঝেও অনেক ইতিবাচক দিক খুঁজেছেন অধিনায়ক। প্রশংসা করেছেন অভিষিক্ত মেহেদি হাসান মিরাজ ও সাব্বির রহমানের। মুশফিক বলেন, “এ খেলায় অনেক কিছু পজিটিভ আছে। মিরাজ, সাব্বির ভালো করেছে ওদের প্রথম টেস্টে। মিরাজ ভালো বল করেছে, সাব্বির ভালো ব্যাটিং করেছে। সাকিব খুবই ভালো বোলিং করেছে। তামিম খুব ভালো ব্যাটিং করেছে। সামগ্রিকভাবে খুব ভালো একটা টেস্ট হয়েছে বাংলাদেশের জন্য।”

শেষ দুই উইকেট হাতে রেখে ৩৩ রান তোলা সহজ নয় বলে মনে করেন তিনি। বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট যে আরও মানসম্মত করে তুলতে হবে সেদিকেও ইঙ্গিত দেন মুশফিক।

মুশফিক বলেন, “৩৩ রানে ২ উইকেট, অনেক কঠিন সমীকরণ। ম্যাচ এটা ৯০ ভাগ ওদের দিকে হেলে ছিলো। ওদের যেমন টেলএন্ডার যে এগারো জনেরই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে হান্ড্রেড আছে আমাদের এমন প্লেয়ার নেই। হান্ড্রেড থাকলেও ওদের ফার্স্ট ক্লাস হান্ড্রেড আর আমাদের ফার্স্ট ক্লাস হান্ড্রেডের মাঝে আকাশ পাতাল তফাৎ।”

উইকেটে রান তোলা কত কঠিন তা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বলেন, “এই উইকেটে আসলেই প্রত্যেকটা বল গুরুত্বপূর্ণ। যদি একশও করেন বা ৮০-৭০ ও করেন তাহলেও এখানে সেট কেউ না। সে যতই ভালো খেলোয়াড় হোক। এখানে একদম পিওর শট না হলে, ফুলটস বা হাফ ভলি না হলে কোনো বিগ বা স্কোরিং শট খেলা কঠিন। সুইপ শটগুলো এ উইকেটে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবগুলোই চেষ্টা করেছি। কিছু পেরেছি, কিছু হয়তো আমরা ভুল করেছি।”

পিচ কিউরেটর জাহিদ রেজা বাবুরও প্রশংসা করেন মুশফিকুর রহিম। তিনি বলেন, “এখানে বাবু ভাই অসাধারণ উইকেট বানিয়েছেন। এমন উইকেট প্রথম পেলাম যেটা আমাদের সহায়ক…। সামগ্রিকভাবে খুব ভালো একটা টেস্ট ম্যাচ হয়েছে”।

ক্যারিয়ারে এটি অন্যতম সেরা টেস্ট হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলেন, “আমার ১১ বছরের ক্যারিয়ারে এটা সেরা টেস্ট। দুটো টেস্ট আমার সব সময় মনে থাকে। একটা পাকিস্তানের সাথে খুলনায়, যেটা ড্র করেছিলাম। তারপরে যদি বলে থাকেন এটা ওয়ান অব দ্যা বেস্ট টেস্ট।”

 

মোহাম্মদ ইব্রাহিম খলিল, ক্রীড়া প্রতিবেদক, দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোট

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: