ঝিনাইদহে সাপ দেখিয়ে ভিক্ষা উটকো ঝামেলায় শহরবাসি | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

ঝিনাইদহে সাপ দেখিয়ে ভিক্ষা উটকো ঝামেলায় শহরবাসি

2 January 2017, 10:22:55

ঝিনাইদহ  অফিস :

ঝিনাইদহ শহরে বেদে সম্প্রদায়ের মেয়েরা সাপ দেখিয়ে আতংক সৃষ্টি করে টাকা আদায় করছে। এ নিয়ে পথচারীরা উটকো ঝামেলায় পড়েছে। গত এক মাস ধরে শহর দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বেদে সম্প্রদায়ের ১০/১২ জন নারী। এরা সবাই বার‌্য বিয়ের শিকার। জীবন ধারণের জন্য তারা ভিক্ষা বৃত্তিতে নেমেছে। তবে তাদের ভিক্ষা আদায়ের কৌশল ভিন্ন এবং আতংকজনক। খোজ নিয়ে জানা গেছে, সকাল হলেই তারা দল বেধে শহরের বিভিন্ন স্থানে পথচারীদের উপর হামলে পড়ছে। বিশেষ করে কলেজ ভার্সিটি ও গ্রাম থেকে আসা শহরে আসা মানুষগুলো তারা টার্গেট করে টাকা আদায় করছে। টাকা দিতে অস্বীকার করলে সাপের ভয় দেখানো হচ্ছে। সওন নামে কেসি কলেজের এক ছাত্র জানান, কার কাছ থেকে পঞ্চাশ টাকা নিয়ে আর ফেরৎ দেয় নি। ১০/১২ জন নারী সবাই তাকে ঘিরে ধরে টাকা আদায় করে। সোনিয়া নামে এক কলেজ পুড়য়া মেয়ে জানালেন বাড়ি থেকে কিছু কেনা কাটার জন্য তিনি টাকা নিয়ে এসেছিলেন, কিন্তু বেদে সম্প্রদায়ের মেয়েরা তার কাছ তেকে অনেকটা জোর করে কেড়ে নিয়েছে। নুর আলী নামে এক ব্যক্তি জানান, তার কাছ থেকে টাকা আদায়ারে জন্য অনেক খানি দাবড় খেয়েছেন তিনি। পথে ঘাটে এ সব বেদের মেয়েদের দেখলে ছেলে মেয়েরো আড়ে আবডালে সরে যাচ্ছে। তবে কোন প্রতিকার নেই। নোংরা কাপড় পড়া আর বেশির ভাগ গর্ভবতি এ সব বেদের মেয়েরা ঝিনাইদহ শহরে আতংকের সৃষ্টি করলেও কেও তাদের প্রতিরোধ করছে না। তারা অপ্রতিরোধ্য ভাবে শহর চষে বেড়াচ্ছে। তাদের কাছ থেকে কেও ভদ্র আচরণ পাচ্ছে না বলেও অনেকের অভিযোগ।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: