সর্বশেষ সংবাদ
◈ মারছে মানুষে মানুষ!- মোঃ: জহিরুল ইসলাম ◈ নাঙ্গলকোট উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের নামে ভূয়া আইডি খুলে প্রতারনার ফাঁদ ◈ “কাজী জোড়পুকুরিয়া সমাজকল্যাণ পরিষদ” কমিটি গঠন ◈ ছাত্রদলের সভাপতি পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে বাগেরহাটের ছেলে হাফিজুর রহমান ◈ চৌদ্দগ্রাম থানার ওসির নির্দেশে কবরে রেখে যাওয়া বৃদ্ধ মহিলাকে হাসপাতালে ভর্তি করলো পুলিশ ◈ নাঙ্গলকোটে ইভটিজিংয়ে প্রতিবাদ করায় সন্ত্রাসী হামলা প্রতিবাদে মানববন্ধন ◈ আজ টাইগারদের দায়িত্ব বুঝে নেবেন ডোমিঙ্গো ◈ জাতীয় দিবসগুলো শিক্ষকদের ছুটি হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে কেন? ◈ কুমিল্লা মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় বাড়ছে লাশের সারি; নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮ জনে; পরিচয় মিলেছে সবার ! ◈ কুমিল্লার লালমাই উপজেলায় বাসের সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে ৭ যাত্রী নিহত
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

ডেঙ্গু নিয়ে তামাশা আর কত

৫ আগস্ট ২০১৯, ৬:৩৯:৪৩

রামিম চৌধুরী : 
গত কয়েকদিন ধরে দেখা যাচ্ছে ডেঙ্গু নিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন সচেতন মহল শুরু করেছেন নানাবিধ কার্যক্রম। দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নের্তৃবৃন্দ হঠাৎ করে সে¦াচ্চার হয়েছেন জনগণকে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতন করার জন্য। শুধু তাই নয় দেশের বেশিরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন দপ্তর থেকে নেমে পড়েছেন সবাই রাস্তা ঝাড়– দিতে। আবার কিছু কিছু জায়গায় দেখা যাচ্ছে চলচিত্র জগতের কিছু চেনা-অচেনা তারকারা পরিষ্কার রাস্তায় ঝাড়ু হাতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। “ডেঙ্গু প্রতিরোধে জনসচেতনতা” নামক এই ব্যানারে সচেতনতা বাড়ানোর থেকে গুরুত্বপূর্ন ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে ফটোসেশন।
বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী গত ৭ মাসে বাংলাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৭’শ ৯৪ জন। আর গত ৪ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ৯’শ ১৮ জন। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৭ হাজার ৩’শ ৯৮ জন ডেঙ্গু রোগী। এ বছর ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা দড়িয়েছে ৮৪ জন। প্রায় প্রতিদিনই শোনা যাচ্ছে ডেঙ্গুতে কেউ না কেউ মারা যাচ্ছে। বাংলাদেশে যে ডেঙ্গু একটি মহামারী আকার ধারন করছে তা নিয়ে কারো সন্দেহ থাকার কথা না।
ফটোসেশনের তামাশার মধ্যে চলছে আবার ঢাকার ২ সিটি কর্পোরেশনের তামাশা। মশা মারার নতুন কার্যকারী ওষুধ ছিটাতে না কি প্রায় ১ মাস সময় লেগে যাবে। ওষুধের নমুনা পরিক্ষার জন্য ১০ দিন, আমদানির জন্য লাগবে ১০ দিন, আমদানির পর আবার পরিক্ষার জন্য লাগবে আরও ১০ দিন। এ যেন বিশাল এক নাটকিয়তার প্রেক্ষাপট। এদিকে দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের মতে দেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এ বারের ডেঙ্গু আক্রমন কয়েক বছরের রেকর্ড ভেঙ্গ দেওয়ার পরও যদি কেউ বলে দেশে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রনে, তাহলে তাকে অন্ধরাজ্যে বসবাসকারী বলা ছাড়া আর কোন উপায় নেই।
ডেঙ্গুর আক্রমন শহর থেকে এখন ক্রমেই ছড়িয়ে পড়ছে দেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে চাই কার্যকারী পদক্ষেপ। পরিষ্কার রাস্তা ডেঙ্গু মশার বাসস্থান নয় তো রাস্তা ঝাড়– দিয়ে লাভ কি? রাস্তার পাশের অপরিষ্কার জায়গাটি পারলে পরিষ্কার করুন। যে ওষুধে মশা মরে না সেই ওষুধ ছিটাতে গিয়ে সকলে কেন ফটোসেশনে অংশগ্রহণ করছেন? মশা মারার কার্যকারী ওষুধ ছিটানোর ব্যবস্থা করুন, দেশবাসীকে সস্তির নিশ্বাস ফেলতে দিন। রাস্তায় দলে দলে বের হয়ে মিছিলের মাধ্যমে জনসাধারনকে সচেতন করতে যাওয়াটা হয়তো এক ধরনের বোকামী। বাংলাদেশের প্রতিটি স্থানেই সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিনিধিরা রয়েছেন। তারা মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডেঙ্গু বিষয়ে সচেনতন করতে পারেন সবাইকে। একই সাথে কোথায় কোথায় ডেঙ্গু আক্রমনের ঝুকি রয়েছে তা সণাক্ত করা সম্ভব। এছাড়া এলাকাভিত্তিক ছোট ছোট সেমিনারের মাধ্যমেও জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা সম্ভব।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: