সর্বশেষ সংবাদ
◈ নাঙ্গলকোটে প্রবাসীর স্ত্রীকে চায়ের সঙ্গে ঔষধ মিশেয়ে অচেতন ◈ প্রতিটি আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিচ্ছি আপনি-আমিও ◈ হামলা না চালাতে পাকিস্তানকে অনুরোধ ভারতের! ◈ পুঁজিবাজার শক্তিশালী করতে হবে-অর্থমন্ত্রী ◈ সম্পাদক পরিষদের সভাপতি মাহফুজ আনাম, সাধারণ সম্পাদক নঈম নিজাম ◈ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট থেকে পদত্যাগ করেছেন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শোভন ◈ নাঙ্গলকোটের কৃতি সন্তান তৈরি করেছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ‘এডুবট’ ◈ বিনা খরচে বাংলাদেশিদের জন্য জাপানে চাকরির সুযোগ ◈ কুমিল্লায় চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে (৯) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ◈ তিতাসের জুনাব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যোৎসাহী হলেন জালাল সরকার

তৃণমূলে প্রচারে এগিয়ে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মশিউর রহমান রনি

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১:৩০:০০

৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, খন্দকার আলমগীর হোসাইন:      বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৬ষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিল উপলক্ষে প্রার্থীরা এরই মাঝে ভোট প্রার্থনার জন্য বিভিন্ন জেলা ও মহানগরে গিয়ে তাদের পক্ষে কাউন্সিলরদের সাথে সাক্ষাত করছেন। বিভিন্ন জেলার প্রতিনিধিদের কাছ থেকে পাওয়া সংবাদের মাধ্যমে জানা যায়, এরই মাঝে ছাত্রদলের তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যান্ত সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী নারায়নগঞ্জের কৃতি সন্তান মিশিউর রহমান (রনি)’র নাম বেশি শুনা যাচ্ছে । রনি একমাত্র জেলার প্রার্থী, অন্য সবাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যাল, জগন্নাথ ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালের প্রার্থী। সে হিসেবে রনি সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে। রনি বর্তমান না.গঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি। তৃনমূল থেকে উঠে আসা রনি গত বছর ২০১৮ সারের ১৫ সেপ্টেম্বর গুম হয়।পরে রনিকে গ্রেপ্তার দেখায় ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ তাকে কয়েকদিন যাবত পুলিশি রিমান্ডে নেওয়া হয়।দীর্ঘ কারাবাসের পর না.গঞ্জ জেলা কারাগার থেকে জামিন পেয়ে মুক্তি লাভ করে। তার বিরুদ্ধে না.গঞ্জের বিভিন্ন থানায় ৩১টির বেশি মামলা রয়েছে।

রনি ছাড়াও যাদের নাম আলোচনায় তারা হলেন- জুয়েল হাওলাদার, শাহ নাওয়াজ ও আমিনুর রশিদ আমিন।

উল্লেখ্য বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৬ষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের প্রার্থীর তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। সভাপতি হিসাবে ৮ জন ও সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ১৯ জন বৈধ প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা করেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটি।

গত ০২-০৯-২০১৯ ইং তারিখে ৬ষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিল নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক খায়রুল কবির খোকনের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

এর আগে যাচাই-বাছাই কমিটি বৈধ সভাপতি হিসাবে ১৩ জন ও সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ৩০ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেন।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে যারা প্রার্থীতার ক্ষেত্রে শর্তাবলি পূরণ করতে পারেনি তারা পরবর্তীতে আপিল করেন, আপিলেও যারা বাদ পড়েছিলেন তারা রিভিউ’র জন্য আবেদন করেন। আপিল ও রিভিউ শেষে সাধারণ সম্পাদক পদে ৬ জন প্রার্থী প্রার্থীতা ফিরে পান।

নিম্নে বৈধ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের তালিকা দেওয়া হলো:

সভাপতি প্রার্থী বৈধ (৮ জন) : কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, মাহমুদুল হাসান বাপ্পি, হাফিজুর রহমান, রিয়াদ মোঃ তানভীর রেজা রুবেল, মোঃ এরশাদ খান, মোঃ ফজলুর রহমান খোকন, এস এম সাজিদ হাসান বাবু, এবিএম মাহমুদ আলম সরদার।

সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী বৈধ (১৯ জন): মোঃ মশিউর রহমান (রনি),মোঃ জাকিরুল ইসলাম জাকির, মোহাম্মদ কারিমুল হাই (নাঈম), মাজেদুল ইসলাম রুমন, ডালিয়া রহমান, মোঃ আমিনুর রহমান আমিন, শেখ আবু তাহের, শাহ নাওয়াজ, সাদিকুর রহমান, কে এম সাখাওয়াত হোসাইন, সিরাজুল ইসলাম, মোঃ ইকবাল হোসেন শ্যামল, মোঃ জুয়েল হাওলাদার (সাইফ মাহমুদ জুয়েল), মোঃ হাসান (তানজিল হাসান), মুন্সি আনিসুর রহমান, মোঃ মিজানুর রহমান শরিফ, মোস্তাফিজুর রহমান, সোহেল রানা, কাজী মাজহারুল ইসলাম।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: