দেবিদ্বারে ইউপি সদস্য কতৃক সরকারী গাছ কাটা ও নানা অনিয়মের অভিযোগ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

দেবিদ্বারে ইউপি সদস্য কতৃক সরকারী গাছ কাটা ও নানা অনিয়মের অভিযোগ

24 November 2018, 10:02:30

মোঃ বিল্লাল হোসেন : দেবিদ্বার উপজেলার ১১ নং রাজামেহার ইউনিয়ন পরিষদের ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার নজরুল ইসলাম সরকারীভাবে রাস্তার দুপাশে রোপনকৃত গাছ কেটে নিজ বাড়িতে আসবাবপত্র তৈরি করার অভিযোগে জেলা প্রসাশক বরাবর একটি অভিযোগ করা হয়েছে।
অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জানা যায়, বিগত কিছুদিন পুর্বে মরিচা টু চুলাশ রাস্তার পাশে সরকারী বনায়নকৃত প্রাপ্ত বয়স্ক একটি শিশু গাছ কতৃপক্ষের অনুমোদন না নিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজ বাড়িতে ফার্নিচার তৈরির নিমিত্তে কেটে ফেলে। এ ব্যপারে প্রাথমিক ভাবে এলাকাবাসী উপজেলা বনবিভাগের কর্মকর্তা আব্দুল মতিনকে অবহীত করা হলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সত্যতা পাওয়া সত্তেও ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামের সাথে সু সম্পর্ক থাকায় কোন প্রকার ব্যবস্থা না নিয়ে চলে আসেন। পরে এলাকাবাসীর পক্ষে মোঃ স্বপন,মোঃ সোলেমান,মোঃ মনির,মোঃ লিটন,মোঃ আক্কাস আলী স্ব-প্রনোদীত জনসার্থে জেলা প্রসাশক বরাবর একটি অভিযোগ দাখিল করি। তবে এই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে আরো অনেক অভিযোগ এলাকাবাসী করেছে, তার মধ্যে সরকারী গাছ কাটা,ভিজি এফের চাল বিতরনে অনিয়ম,সরকারী খাস জমি হতে মাটি বিক্রয় করে দেওয়া এবং অর্থের বিনিময়ে বাল্য বিবাহে সহায়তার অভিযোগ উল্লেখযোগ্য।
মোঃ স্বপন বলেন,আমার বাড়ি হতে চুলাশ বাজারে যাওয়ার পথে নজরুল মেম্বার এবং তার ভাতিজা কাশেম গাছটি গাড়িতে তুলে দেওয়ার কথা বলে। কিন্ত সরকারী গাছ কেন নিয়ে যাচ্ছেন প্রতিবাদ করলে আমাকে উল্টো মারধর করে, পরে এ ব্যপারে বন কর্মকর্তাকে মোবাইলে বিষয়টি জানালেও কোন প্রতিকার না পেয়ে জেলা প্রসাশক বরাবর অভিযোগ করি। গাছ কাটার শ্রমিক সোলেমান জানান,গাছ কাটার সময় আমি ছিলামনা তবে টাকার বিনিময়ে গাছটি গাড়িতে তুলে দিয়েছি,এই গাছটি রাস্তার সরকারী গাছ ছিল যা আমার বাড়ী হতে ৩০ গজ পুর্বে অবস্থিত।
এ ব্যপারে অভিযুক্ত ইপি সদস্য নজরুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি অভিযোগ অস্বীকার বরে বলেন আমি কোন গাছ কাটি নাই ,তবে বিদ্যুৎ এর খুটি বসানোর স্বার্থে বেশ কিছুদিন পুর্বে দুটি গাছ কাটা হয়েছিল যার সাথে আমি সম্পৃক্ত নই।
উপজেলা বন কর্মকর্তা আব্দুল মতিন জানান এ ব্যপারে কোন লিখিত অভিযোগ না পেলেও মোবাইলে কেউ একজন আমাকে জানালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি এবং স্থানীয়দের সাথে কথা বলে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য পাইনি। তবে কিছু মানুষ গাছের গোড়া চিহ্নিত করলেও সেখানে খড়ের বেদী থাকায় তা দেখা সম্ভব হয়নি।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য:

x