নাঙ্গলকোটকে জেলা ঘোষনার দাবিতে আলোচনা সভা | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / নাঙ্গলকোট / বিস্তারিত

নাঙ্গলকোটকে জেলা ঘোষনার দাবিতে আলোচনা সভা

19 September 2014, 2:14:23

 

মোঃ আলাউদ্দিন, নাঙ্গলকোট ঃ

কুমিলার নাঙ্গলকোটকে জেলা ঘোষনার দাবিতে নাঙ্গলকোট লেখক ফোরামের উদ্যোগে এক আলোচনা সভা রবিবার ইয়ুথ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন কার্র্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। নাঙ্গলকোট লেখক ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এ,এইচ,এম আবুল খায়েরের সভাপতিত্বে সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, লেখক ফোরাম ও ইয়ুথ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের উদ্যোক্তা সাংবাদিক মোঃ আলাউদ্দিন মজুমদার, ইয়ুথ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ অহিদ উলাহ পাটোয়ারী, রিপোটার্স ইউনিটির কোষাধ্য খন্দকার মোঃ সহিদ, প্রচার সম্পাদক এইচ, এম আজিজুল হক প্রমূখ। সভায় বক্তারা বলেন, কুমিলা মহানগর মর্যাদা লাভের পর নাঙ্গলকোটকে জেলা বাস্তবায়নের এখনই উপযুক্ত সময়। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন পেশাজীবিদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় শীগ্রই নাঙ্গলকোটকে জেলা বাস্তবায়ন সম্ভব। স্থানীয় সংবাদপত্র নাঙ্গলকোট এক্সপ্রেস এর সূত্রমতে, ১৯৯০ সাল থেকে নাঙ্গলকোটকে জেলা ঘোষনার দাবি চলমান হয়ে আসছে। দেশের মানচিত্রে নাঙ্গলকোট একটি গুরুত্বপূূর্ন উপজেলা হিসেবে চিহিৃত। সময়ের তাগিদে নাঙ্গলকোট উপজেলাকে জেলা হিসেবে রুপান্তর করা হলে নতুন সম্ভাবনার দ্বার উম্মোচিত হবে। সৃষ্টি হবে অর্থনৈতিক উন্নয়নের নতুন ত্রে। কৃষি, শিল্প, বিদুৎ, জ্বালালী, গ্যাস, পরিবহন, যোগাযোগ, আইসিটি ও জলবায়ু পরিবর্তন সহ বিভিন্ন খাতে দেখা দিবে অভূতপূর্ব সাফল্য। সরকারী খাতের পাশাপাশি বিভিন্ন েেত্র বেসরকারী প্রতিষ্ঠানও বিনিয়োগের সুযোগ পাবে। এতে সৃষ্টি হবে নতুন নতুন কর্মসংস্থান। শিা, স্বাস্থ্য হলো মানব সম্পদ উন্নয়নের ভিত্তি। নাঙ্গলকোট জেলা বাস্তবায়ন হলে এ অঞ্চলে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, কারিগরি শিা, উচ্চ শিা, নারী শিা প্রতিষ্ঠান ও হাসপাতালসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বৃদ্ধি পাবে। নাঙ্গলকোট জেলা বাস্তবায়ন হলে এ অঞ্চলের অবকাঠামোগত উন্নয়ন ত্বরানিত হবে। সড়ক ও রেলপথের উন্নয়ন ঘটবে। নাঙ্গলকোট ছাড়াও লাকসাম, মনোহরগঞ্জ, চৌদ্দগ্রাম, নোয়াখালীর সেনবাগ ও সোনাইমুড়ী এবং ফেনীর দাগনভূঁইয়া উপজেলার সমন্বয়ে অচিরেই নাঙ্গলকোট জেলা বাস্তবায়ন হবে বলে জনসাধারণের প্রত্যাশা।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: