নাঙ্গলকোটের উপজেলা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে দুনির্তীর অভিযোগ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ ◈ অনুকূল পরিবেশ হলে এইচএসসি পরীক্ষা ◈ কুমিল্লায় বিপুল ইয়াবাসহ দম্পতি আটক!

নাঙ্গলকোটের উপজেলা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে দুনির্তীর অভিযোগ

2 June 2014, 5:51:44

oniom

 

 

 

 

আমাদের নাঙ্গলকোট ডেক্স:02-06-2014 নাঙ্গলকোট উপজেলার ঐতিহ্যবাহী লক্ষীপদুয়া হাই স্কুলের সভাপতি নির্বাচন কে কেন্দ্র করে উপজেলা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের নামে স্বজনপ্রীতি সহ দুনীতির অভিযোগ উঠেছে । অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য উল্লেখিত স্থানে গেলে নির্বাচিত অভিভাবক প্রতিনিধি ও শিক্ষক প্রতিনিধিরা প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর ছোঁড়েন । ছাত্র অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচনে কে কে নির্বাচন করবেন প্রধান শিক্ষক নিজে সবকিছু টেলিফোনে ম্যানেজ করবেন । ভাই আমি ও আমার শিক্ষকেরা আপনার পক্ষে আছি । কিন্তু নির্বাচনের পর চিত্র হয়ে যায় উল্টো । শিক্ষক প্রতিনিধিদের চাপ ও হুমকি প্রয়োগ করে নিজের ভালো লাগার প্রার্থীকে সমর্থন করার জন্য চাপ প্রয়োগ সহ বিভিন্ন প্রকার খারাপ কথা বলে থাকেন ।

22

 

 

 

 

২৭ এপ্রিল বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে শহীদউল্লাহ নামে একজন অভিভাবক প্রতিনিধি উপজেলা চেয়ারম্যানের নাম প্রস্তাব করেন এতে সবাই সমর্থন করেন । কিন্তু চেয়ারম্যান সাহেব তা প্রত্যাখ্যান করায় জনাব নুরুল আমিন নিজের ভালোলাগার প্রার্থীকে সভাপতি করার নিল নকশা আঁকতে থাকেন যারই ফলশ্র“তিতে সভাপতির নির্বাচন অধিবেশনের আগে নুরুল আমিন নিজে ২৮ এপ্রিল ২০১৪ ইং রাত সাড়ে ১১ ঘটিকায় নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নিকট পিয়ন না পাঠিয়ে নিজে গিয়ে মিথ্যা কথা বলে স্বাক্ষর নেন এবং মোটা অংকের টাকা ঘুষের বিনিময়ে উপজেলা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে সাথে নিয়ে ২৯ এপ্রিল ২০১৪ইং তারিখে স্কুল অফিস নিরাপদ নয় অভিযোগ দেখিয়ে উপজেলা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে যেতে হবে একথা নির্বাচিত ছাত্র অভিভাবক প্রতিনিধি জনাবা গোলজার বেগমকে না জানিয়ে উপজেলা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের কার্য্যলয়ে সভাপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় যা গনতান্ত্রিক মূল্যবোধ, রীতিনীতি এবং বিদ্যালয় রেওয়াজ আইন পরিপন্থি । গোলজার বেগমকে অনুপুস্থিত রেখে ২৯ এপ্রিল সভাপতি নির্বাচনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ০৪ ভোট শহীদউল্লাহ ০৫ ভোট পান । যাহা অনুষ্ঠিত হওয়ার পর নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বোর্ড চেয়ারম্যান বরাবর রেজুলেশান কপি প্রেরন করার নিয়োম থাকলেও তাহা মানা হয়নি ।

অভিযোগ রয়েছে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হান্নান নির্বাহি অফিসারকে তোয়াক্ক্া না করে ঘুষ গ্রহন ও দুনিতীৃর মাধ্যমে অনৈতিক ক্ষমতা প্রয়োগ করে নাঙ্গলকোটের বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জিম্মি করে রেখেছেন । যা সরকার ঘোষিত আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থার প্রতি হুমকিস্বরুপ । উপরোক্ত অভিযোগ গুলো লক্ষীপদুয়া হাই স্কুলের আজীবন আতা সদস্য মোঃ কামাল হোসেনের । জনাব কামাল উপজেলা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে অভিযুক্তকরে, গুলজার বেগমের ভোটাধীকার ফিরে পাওয়া, পুনরায় সভাপতি নির্বাচন ও ঘুষখোর প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিনের দুনির্তী তদন্ত কমিটি গঠন করে ব্যবস্থা গ্রহনের অভিযোগ জানিয়ে কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান বরাবর ৩০০০/= টাকার ব্যাংক ড্রাফট নং- চঙঈ ১৭৭৬৮০৬ তাং ০৪ এপ্রিল ২০১৪ইং তারিখে দাখিল করে । শিক্ষা বোর্ড তদন্ত বিভাগ সেই অভিযুক্ত উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হান্নান কে অভিযোগটি খতিয়ে দেখার তদন্ত ভার প্রেরন করে ।

বিষয়টি অত্যান্ত স্পর্শ কাতর । অভিযোগটির আসল রহষ্য উৎঘাটনে , শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুস্থ পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্যে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হান্নান কে নিয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি বাদ দিয়ে নতুন করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহনের সুযোগ করে দিতে শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভোক্তভোগী সবাই ।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: