নাঙ্গলকোটে অটো-কারখানায় কর্মচারী কর্তৃক দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনায় ! | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

নাঙ্গলকোটে অটো-কারখানায় কর্মচারী কর্তৃক দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনায় !

27 October 2014, 3:53:35

dakati_pic-23

 

 

 

 

 

 

 

নাঙ্গলকোট আর সুন্দরগঞ্জ উপজেলা তোলপাড়!

আজিম উল্যাহ হানিফ:
 কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার রায়কোট ইউনিয়নের শান্তির বাজারে এম এ রহিম দুলাল এর মালিকাধীন প্যানোরমা ফাণির্চার এন্ড অটো ডোরে ১টি অটো-রিক্সা,৪টা রাডার মেশিনসহ ক্যাশবাক্স ভেঙ্গে সবর্মোট ৩ ল টাকা কমর্চারী কর্তৃক চুরির অভিযোগে নাঙ্গলকোট থানায় মামলা দায়েরের পর ও স্থানীয় ও জাতীয় পত্রপত্রিকায় লেখালেখির পর হইতে আজ দুইদিন যাবত এ নিয়ে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট ও গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় তোলপাড় চলছে। ঘটনার দিন শুক্রবার রাত প্রায় ১০ টায় কারখানার মালিক প নাঙ্গলকোট থানায় প্রাথমিক একটি অভিযোগ করলে এতে করে রায়কোট ইউনিয়ন ছাড়িয়ে পুরো নাঙ্গলকোট উপজেলার ৩২৯ টি গ্রামে এক চোরের ঘটনা ছড়িয়ে পড়ে। এলাকাবাসী সূত্রে ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় কয়েক মাস যাবত রায়কোট ইউনিয়ন বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা এম এ রহিম দুলালের কারখানায় মালামাল ও নগদ টাকা চুরির সাথে জড়িত কর্মচারী ২ জন কাজ করতেন। কিন্তু তাদের এত সুব্যবস্থা করার পরও এমন চুরির ঘটনায় তিনি আশ্চর্য হলেনতো বটে,কারণ কর্মচারী ২ জনের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর গ্রামে। কর্মচারী দুইজনই সম্পর্কে ভাই। তাদের বাবা খয়বার আলী মিস্ত্রি। গত শুক্রবার সকালে কারখানার মালিক এম এ রহিম দুলাল এসে দেখেন কারখানা গেইট বন্ধ। তিনি ভেবেছেন তারা বন্ধ করে কোথায় হয়তো গেছে? তাদের ব্যবহৃত ফোন ও বন্ধ ছিল তখন। তিনি আবার যখন জুমার নামাজের পর আসেন,সন্দেহ হলে কয়েকজন শান্তির বাজারের স্থানীয় ব্যবসায়ী নিয়ে তিনি তালা ভেঙ্গে দেখেন এই অবস্থা। ঘটনাস্থল দেখতে এলাকার ্মানুষ ভিড় করতে দেখা যায়। এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়েরের পর কর্মচারী ২জনের প হয়ে গাইবান্ধা থেকে তাদের আরেক ভাই আন্জু মিস্ত্রি ফোন করে জানায়,তারা শনিবার সকালে গিয়ে পেীছেছে। তারা তাদের গাড়ি ফেরত দিয়ে দিবে।
এ ঘটনায় কারখানার মালিক এম এ রহিম দুলাল অভিযোগ দায়েরের পর গত শনিবার বেলা ২ টায় তদন্ত্রকারী কর্মকর্তা আসাদুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন। এদিকে এম এ রহিম দুলালকে চোরদের আরেক ভাই আন্জু মিয়া মুঠোফোনে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছেন বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

 

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: