নাঙ্গলকোটে একটি নক্ষত্রের বিদায়! | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

নাঙ্গলকোটে একটি নক্ষত্রের বিদায়!

9 January 2017, 7:24:47

মানিক নিজাম  উদ্দিন-
নাঙ্গলকোট উপজেলা’র জোড্ডা গ্রামে শতবর্ষ পূর্বে জন্ম নিয়েছিলেন” ফজল মেম্বার” যার পুরো নাম মোঃ ফজলুর রহমান।গত রাত ১০:০০ঘটিকায় তিনি ইন্তেকাল করছেন ইন্নালি,,,,,,,,,,,রাজেউন,আজ সকাল ১১:০০ঘটিকায় উনার শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী জোড্ডা বাজার ছিদ্দিকিয়া আলিম মাদ্রাসায় জানাযা ও দোয়া শেষে দাফন করা হয়।
এক বর্নাঢ্য জীবন তাঁর। প্রচুর সম্পত্তির মালিক হয়েও তিনি সাদাসিধে- ঝরাঝীর্ণ  সহজ সরল নিরস জীবন যাপন করেছেন। ইচ্চে করলে উনার বাজার কেন্দ্রিক সম্পত্তি গুলো বিক্রি করেই নিজের এবং তার সন্তানদের উচ্চ শিক্ষিত করে বিলাসী জীবন যাপন করতে পারতেন। কিন্তু তা করেন নাই। তার সন্তান, ভোগ বিলাস কে তিনি তুচ্চ মনে করে আজ হতে প্রায় ৬০ বছর পূর্বে প্রথম জোড্ডা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য সমপত্তি দান করেন। এর পূর্বে জোড্ডা বাজারের মুসল্লীদের নামাজের জন্য মসজিদ নির্মান করেন। ধীরে ধীরে এলাকায় শিক্ষার বিস্তার শুরু হতে লাগলো, সবাই সপ্ন দেখলো একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের, তিনি জোড্ডা উচ্চ বিদ্যালয়ের জন্য ও দান করলেন তার মূল্যবান সম্পদ। তার পর এলাকায় কোরআন ও হাদিসের আলোয় আলোকিত করতে একটি মাদরাসা প্রতিষ্ঠার জন্য উনার নিকট গেলো তিনি দান করলেন আরো মূল্যবান সম্পদ, প্রতিষ্ঠিত হলো জোড্ডা বাজার ছিদ্দিকিয়া আলিম মাদরাসা। এলাকায় সাধারন মানুষকে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য তিনি প্রথম দাতব্য চিকিৎসালয়ের জন্য জায়গা দান করেন। পরবর্তীতে যখন জোড্ডায় একটি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র স্থাপন করা হবে তখন তিনিই এগিয়ে এসে দান করলেন উনার মূল্যবান সম্পদ।

এই ভাবে তিনি মানুষের কল্যানে, সেবায়, জ্ঞান অর্জন,সমাজ সংস্কার, সমাজ উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন। তিনি আমাদের গর্ব,  জোড্ডাবাসী একজন সমাজ সেবক,মানব সেবককে হারালেন। তিনি সমাজের জন্য যে অবদান রেখেছেন তা সকলের জন্য আলোকবর্তিকা হয়ে থাকবে।

যিনি সারা জীবন সমাজ- শিক্ষা সংস্কারের কাজে নিজের সম্পত্তি দান করে গেছেন অগচরে। আজ তিনি সবার কাছে প্রিয় হয়ে আছেন নয়নের তরে। এমন সমাজ বির্নিমানকারীদের কাতার আরো বড় হবে- সমাজ পরির্বতন হবে এটাই আশা করছে নাঙ্গলকোট বাসী।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: