নাঙ্গলকোটে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে যুবকের টাকা আত্মসাৎ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

নাঙ্গলকোটে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে যুবকের টাকা আত্মসাৎ

11 June 2015, 10:40:56

obijog

 

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে টাকা প্রবাসীর স্ত্রী ও কন্যার বিরুদ্ধে জামাল হোসাইন নামের এক যুবকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্তরা হলেন- উপজেলার পশ্চিম বামপাড়া গ্রামের প্রবাসী আবুল বাশারের স্ত্রী মরিয়ম বেগম ও কন্যা মোসাঃ মুন্নী আক্তার।
বৃহস্পতিবার জামাল হোসাইনের দায়ের করা লিখিত অভিযোগে জানা যায়, গত ৬মাস পূর্বে নাঙ্গলকোট পৌর বাজারে অভিযুক্ত মরিয়ম বেগম ও তার ৪র্থ কন্যা মুন্নী আক্তারের সাথে জামাল হোসাইনের পরিচয় হয়। কোন ছেলে সন্তান না থাকায় মরিময় বেগম জামালকে ছেলে ডাকে। এভাবে কিছুদিন যাওয়ার পর মরিয়ম বেগম জামালের সাথে তার কন্যা মুন্নী আক্তারকে বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। পরবর্তীতে উভয়ের পরিবারের সম্মতিতে জামাল ও মুন্নীর এনগেজমেন্ট সম্পন্ন হয়। এর কিছুদিন পর মরিয়ম বেগম জামালের কাছে বিশেষ প্রয়োজনে ধার হিসেবে ১ লক্ষ টাকা চায়। জামাল মরিয়ম বেগমকে ৮০ হাজার টাকা দেয়। আরও কিছুদিন যাওয়ার পর জামাল মুন্নীর মা মরিয়ম বেগমকে মুন্নীর সাথে তার বিয়ের দিন-তারিখ ঠিক করতে বললে তিনি নানা টাল-বাহানা শুরু করে এবং একপর্যায়ে তার সাথে মেয়ের বিয়ে দিবেনা বলে এনগেজমেন্টের আংটি ফিরিয়ে দেয়। তখন জামাল মরিয়ম বেগমকে ধার দেওয়া ৮০ হাজার টাকা ফিরিয়ে দিতে বলে। কিন্তু মরিয়ম বেগম টাকা ফিরিয়ে দিতে অস্বীকৃতি জানায়।  তাই
পাওনা টাকা ফিরে পেতে এবং প্রতারণার অভিযোগ এনে বৃহস্পতিবার জামাল হোসাইন বাদী হয়ে এশিয়া ছিন্নমূল মানবাধিকার ফাউন্ডেশন নাঙ্গলকোট শাখায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মরিয়ম বেগম জানায়, আমরা বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংশা করব। এদিকে জামাল হোসাইন জানায়, দীর্ঘদিন যাবত বিষয়টি মীমাংশা করার কথা বললেও তিনি (মরিয়ম বেগম) তা করেননি। আমি বাধ্য হয়ে মানবাধিকার ফাউন্ডেশনে অভিযোগ দায়ের করেছি। আমি পাওনা টাকা এবং প্রতরণার দায়ে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। আর এখানেও যদি বিষয়টি মীমাংশা না হয় তাহলে আমি আদালতে মামলা দায়ের করব।

 

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য:

x