নাঙ্গলকোট উপজেলার সবচে অবহেলিত জনপদ কাঁন্দাল | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

নাঙ্গলকোট উপজেলার সবচে অবহেলিত জনপদ কাঁন্দাল

20 July 2016, 10:17:59

বাপ্পি মজুমদার ইউনুস;

কুমিল্লা’র নাঙ্গলকোট উপজেরার ৯নং দৌলখাঁড় ইউনিয়ন পশ্চিম ১নংওয়াড কান্দাল গ্রামের সড়কটির দীর্ঘ  স্বাধীনতা পূব থেকে মহান স্বাধীনতা লাভের ৪৪  বছর পার হয়েছে ঠিকই- কিন্তু স্বাধীনতা যুদ্ধের সূচনা ভূমি এই নাঙ্গলকোট উপজেলার অবহেলিত জনপদের উন্নয়নের ভাগ্যে পরিবতন হয়নি আজও।

 

দীর্ঘ কাল ধরে এই সড়কটি অবহেলিত অবস্থায় পড়ে আছে। এলাকার লোকদের অর্থায়নে নিমান করা হয়েছে বেশ কিছু বার কিন্তু সড়কটি পাকা না হওয়া এই উন্নয়র ধরে রাক সম্ভব হয়নি।

 

এলাকা সূত্রে ধরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সড়কের বেহাল দশা যার মধ্যে দিয়ে যাতায়াতের কোন ব্যবস্থা নেই বললেই চলে।এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন কান্দাল ,সোন্দাইল,মান্দ্র, নোয়াথালী,দৌলখাঁড় সহ অনেক এলাকার হাজার হাজার লোক এই পথ দিয়ে যাতায়াত করে।মাত্র ৯৬১ মিটার এই সড়কটি নির্মান করার আশায় মাননীয় মন্ত্রী লোটাস কামালকে দাওয়াত করেন এলাকা বাসী আর মন্ত্রী’র সম্মানে স্বাপন করা হয় ১৩টি শুভেচ্ছা গেইট কিন্তু তাতেও কোন লাবে আসলো না এই হতভাগা জনগনের। এ যাবৎ এই রাস্তা নিয়ে রিপোট তৈলী করা হয় বেশ অনেকবার।

 

প্রতিদিন দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্কুলগামী কোমলমতি শিশুদের।নারী,শিশু,কিশোর,বৃদ্ধ-সহ হাজার হাজার লোকদের চলাচলের দীর্ঘ মাএ ৯৬১ মিটারের এই সড়কের মধ্য দিয়ে দেখা যায় বড় বড় গর্তের মহা পাচির। বর্ষা এলে এসব নিচুঁ জায়গায় পানি জমে যায়।রাস্তাটি সংস্কারের অভাবে প্রায় এখন বিলিন হবার পথে। এই রাস্তটি এখন মানুষ চলাচলের উপোযোগী নেই বললেই চলে।কয়েক বার মন্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল লোটাস করে দিবে বল্লে ও কোন কাজ হয় নাই। 

 

এলাকার সর্বসাধারন মানুষের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান; আমরা অনেক বছর যাবৎ এই রাস্তাটি করার দাবী জানিয়েছি,কিন্তু কোন সূফল পাইনি।শুকনার দিনে কোন রকম চলি,কিন্তু বর্ষা এলে আমাদের দূর্ভোগের শেষ থাকেনা।
আমাদের সুবিধাবাদি এমপি, মন্রী, চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা শুধু ভোটের সময়ই আমাদের খোঁজ খবর নেন,আর ভোটের সময় পার হয়ে গেলে আমরা বেচেঁ আছি কিনা মরে গেছি এই খবর কেউ নেয় না।

 

এই রাস্তাটি সরকার পক্ষ থেকে যদি কোন ফয়সালা না আসে তাহলে আমরা আন্দোলন করে বাধ্য হবো বলে জানিয়েছেন এলাকার বেশ কিছু গন্যমান্য বৃক্তিবর্গ; মো: আক্তার হোসেন (ব্যাংকার)  ডা. ফয়সাল,লোকমান হোসেন, আইয়ূব আলী মজুমদার,মোল্লা নাছির উদ্দিন,মাও নেছার উদ্দিন,হাজী মানিক( ছাত্রলীগের সভাপতি ওয়ার্ড) দৈনিক আমাদের নাঙ্গরকোটের সম্পাদক বাপ্পি মজুমদার ইউনুস সহ অনেকেই।

01

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য:

x