নাঙ্গলকোট-কান্দাল-অপরিকল্পিত মাছ চাষে কাঁচা-পাকা সড়ক বেহাল! গ্রামবাসীর ক্ষোভ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

নাঙ্গলকোট-কান্দাল-অপরিকল্পিত মাছ চাষে কাঁচা-পাকা সড়ক বেহাল! গ্রামবাসীর ক্ষোভ

23 April 2017, 3:24:03

নিজস্ব প্রতিবেদক-
অপরিকল্পিত মাছ চাষ করায় 0.৫ কিলোমিটারের বেশি পাকা ও ব্রিক সলিংসহ ৩৩১ মিটার কাঁচা রাস্তার ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। কুমিল্লা’র নাঙ্গলকোট উপজেলার দৌলখাঁড় ইউনিয়ন পশ্চিম এর অর্ন্তগন্ত কান্দাল র্পর্ব ও দক্ষিন পাড়া মাস্টার পাড়ার সংলগ্ন কান্দাল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ওপাশের আঠিয়া ও কান্দাল পূর্বপাড়া’র আঞ্চলিক সড়কটির বেহাল দশা। বর্তমানে এই সড়কে কোন যানবাহন চলাচল করতে হিমশিম খাচ্ছে। এসব সড়কগুলো দিয়ে কোন ভারি যানবাহন চলাচল করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। মৎস্য চাষ দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের একটি অংশ হওয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এসব সড়কের বেহাল অবস্থা হলেও কোন পদক্ষেপ গ্রহণে উদাসীনতা দেখাচ্ছেন। ফলে সড়কগুলোর কোন সংস্কার হচ্ছে না। অথচ একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করলে সড়কগুলোও মজবুত হতে পারে মাছ চাষের জন্য সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে।
সম্প্রতি সরে জমিনে ঘুরে দেখা যায়, মুনু মিয়ার বাড়ীর পূর্ব পাশের রাস্তা ও মোল্লার বাড়ীর উত্তর পাশের রাস্তার মাঝখান কেটে পারি সরানোর ব্যবস্থার করা হয়। ভারি বৃষ্টির কারণে পানি বেড়ে যাওয়ায়  পাঁকা সড়কের মাঝখান কেটে পানি সরানোর ব্যবস্থা করে। এই কারনে কোন ভারী যানবাহন চলাচল করতে পারছে না।- স্কুল পড়ুয়া ছাত্র/ছাত্রীরা এই ক্ষতির সম্মুখীন হবে- যদি রাস্তাটি বিগত সরকারের আমলের মত হয়। এই রাস্তা দিয়ে সুনাম ধন্য প্রতিষ্ঠান গুলোতে হাজার শিক্ষাথী রাস্তা পার হোন প্রতিদিন- সোন্দাইল উচ্চ বিদ্যালয়, সোন্দাইল প্রাথমিক বিদ্যালয়, কান্দাল পূর্বপাড়া আর্দশ ইসলামিয়া কিন্ডার গার্টেন, কান্দাল দাখিল মাদ্রাসা, কান্দাল নুরানী মাদ্রাসা, কান্দাল প্রাথমিক বিদ্যালয়, কান্দাল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কান্দাল মানব কল্যান কিন্ডার গার্টেন সহ আরো অনেক প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের একমাত্র সংড়ক এটি।

গত দু বছর আগে এলাকার মানুষের দুভোগের শেষ ছিলো না। আ,লীগ ক্ষমতায় আশার পর এই এলাকার মানুষের জীবন যাত্রার পরির্বতন ঘটে।
এই বিষয়ে অত্র এলাকার বৃদ্ধ একজনের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান- এ এলাকার রাস্তাগুলোর কথা স্বরণ করে চোখের জল ফেলে দেন। তিনি বলেন আমরা যদি দেশপ্রেমি হয়ে থাকি তাহলে এই অনিয়মগুলো আমাদেরকে দেখার প্রয়োজন আছে।

আবু কালাম, এড, আবুল কালাম, মহিউদ্দিন, উপস্থিত আরো বেশ কিছু এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন আমরা এলাকাবাসী বিষয়টি মালিক পক্ষবে অনেক বার বুঝিয়েছি কিন্তু আমাদের কথাগুলো শুনেনি। আর আমরা এই রাস্তার জন্য কত কষ্ট করেছি তা বুঝানোর কোন ভাষা নেই আমাদের। ছাত্রলীগনেতা আবুল কালাম বলেন: বাংলাদেশ আ,লীগ ক্ষমতার আশার পর অনেক উন্নয়ন করেছে কান্দাল গ্রামের জন্য। আর আমাদের সকলের দায়িত্ব হচ্ছে এ সব উন্নয়নের রক্ষনাবেক্ষন করা।

এই বিষয়ে অত্র দুই এলাকার আ,লীগের প্রতিনিধিদের কাছে জানতে চাইলে আ,লীগ নেতা ও সাবেক মেম্বার জহিরুল হক দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোটকে বলেন: বিষয়টি আমি দেখেছি।
আইয়ূব আলী মজুমদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন; এই বিষয়ে আমার কানে আসলে কয়েকজনকে সাথে নিয়ে আমি দেখে এসেছি।

ওইসব এলাকার মৎস্য খামারের মালিকরা সরকারী পাকা রাস্তা, ব্রিক সলিংসহ ইউনিয়ন পরিষদের নির্মিত রাস্তা মাছের খামারের বাঁধ হিসেবে ব্যবহার করে অতি সহজেই মাছ চাষ করে আসছে। মৎস্য চাষে ব্যবহৃত সড়কের দুই পাশে সব সময় পানি থাকার ফলে খামারের সকল মাছ রাস্তার মাটির গায়ের সাথে ঘেঁষে রাস্তার মাটি নরম করে পানির সাথে মিশিয়ে দিচ্ছে এবং প্রতিনিয়ত রাস্তা ভেঙ্গে যাচ্ছে। এভাবে প্রতিবছর প্রায় ৫০কিলোমিটারেরও বেশি আঞ্চলিক সড়ক নষ্ট হয়ে যাছে। ফলে ওইসব সড়কগুলোতে সকল প্রকার ছোট-বড় যানবাহনসহ এলাকাবাসীর চলাফেরা বন্ধ হয়ে নানা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।

এ ব্যাপারে দৌলখাঁড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাস্টার সিরাজুল আলম (স্যার) এর সাথে সরাসরি দেখা করার সুযোগ হয়নি প্রচুর বৃষ্টির কারনে, মুঠোফোনে ওনার কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোটকে বলেন, তার ইউনিয়নের প্রায় ১৫ কিলোমিটার সড়ক মাছের খামারীরা প্রতিবছর নষ্ট করে থাকে। ইউনিয়নের পক্ষ থেকে তাদেরকে শর্তক করা হয়েছে এবং হবে যাতে ওইসব এলাকায় মৎস্য চাষীরা পরিকল্পিতভাবে খামারের পাড় তৈরী করে নেয় এবং সড়কগুলো যাতে ভেঙ্গে না পড়ে। আর এই বিষয়টি তিনি আগামীকাল সরেজমিনে গিয়ে দেখে আসবেন এবং এই বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।এর পরও মৎস্য চাষীরা কোন ব্যবস্থা না করায় সড়কগুলোই প্রতিবছর একই অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। তবে, এবিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবগত করবো বলে দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোটকে জানান মাস্টার সিরাজুল আলম (স্যার)।
এব্যাপারে কুমিল্লা এলজিইডি’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী কে অবগত করলে তিনি  জানান,যে সকল খামারীদের খামার পাকা বা ব্রিকসলিং অথবা রাস্তাসংলগ্ন রয়েছে রাস্তা রক্ষার উদ্দেশ্যে প্রটেকশন ওয়াল নির্মাণ করে মাছ চাষ করা জন্য তাদের নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। প্রটেকশন ওয়াল নির্মাণ ছাড়া রাস্তার পাশে মাছ চাষ করা যাবে না।
পথচারী ও গাড়ির মালিকরা উল্লেখ করেন যে সমস্ত খামার মালিক মাছ চাষ করে রাস্তা নষ্ট করবে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে রাস্তা রক্ষার দাবী জানান। আর আপনাদের মাধ্যমে আমরা প্রসাশনের দৃষ্টি আর্কষন করছি। দক্ষিন পূর্ব কান্দাল এর কাঁচা সড়কটি অতিশিঘ্রীই নির্মানের দাবি জানান এলাকাবাসী। আ,লীগের উন্নয়নের ধারা অবহত থাকার জন্য মহান আল্লাহর নিকট দোয়া কামনা করেন।

ভারী বৃষ্টির কারণে দক্ষিন ও পূর্ব কান্দালের সড়কটি নির্মান কাজের শুরু করা যাচ্ছে না। আশা করা যাচ্ছে অতিতাড়তাড়ি কাজটি শুরু হবে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: