নাঙ্গলকোট কৈরাশে দ্বিখন্ডিত লাশের পরিচয় মিলছে | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

নাঙ্গলকোট কৈরাশে দ্বিখন্ডিত লাশের পরিচয় মিলছে

14 October 2016, 10:15:01

বাপ্পি মজুমদার ইউনুস-
কুমিল্লা’র নাঙ্গলকোট উপজেলার জোড্ডা ইউনিয়নের কৈরাশে ঘটে যাওয়া নির্মম হত্যাকান্ডে এলাকায় থমথমে আঁতংক বিরাজ করছে। গতকাল প্রকাশিত হয় দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকায় এ সংক্রান্ত একটি অনুসন্ধানমুলক প্রতিবেদন, যা অনলাইন মিডিয়ায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। অবশেষে অজ্ঞাত এই যুবকের সন্ধান মিলেছে খবর প্রকাশের পর।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে উপজেলার জোড্ডা ইউনিয়নের কৈরাশ গ্রামের মাহাবুবুল হকের বাড়ির পুকুর থেকে ওই ছাত্রের মাথা এবং পাশেই অবস্থিত একই গ্রামের মান্নান মিয়া ও সফিক মিয়ার ধান ক্ষেত থেকে তার মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। সিফাত ওই গ্রামের নুরুল হকের ছেলে। সে স্থানীয় জোড্ডা পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

ঐ ছাত্রের পরিবার, স্থানীয় এলাকাবাসি ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত রোববার (৯ অক্টোবর) বিকেলে খেলা দেখার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর থেকেই সে আর বাড়ি ফিরেনি। সিফাত কে খোঁজে সর্বত্র কিন্তু কোথাও কোন হদিস মিলেনি সিফাতের।
সর্বশেষ গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ওই গ্রামের মাহাবুবুল হকের বাড়ির পুকুরে সিফাতের গলা কাটা মাথা দেখতে পায় স্থানীয়রা। এর কিছুক্ষণ পরেই পুকুর পাড়ের পাশেই অবস্থিত ওই গ্রামের মান্নান মিয়া ও সফিক মিয়ার ধান ক্ষেতে সিফাতের মরদেহ খুঁজে পায় এলাকাবাসি। লোকমুখে এ ঘটনার খবর পেয়ে শিফাতের পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুঁটে গিয়ে তার লাশ সনাক্ত করেন। এছাড়া পরে খবর পেয়ে নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পৃথক স্থান থেকে ওই ছাত্রের মাথা ও মরদেহ উদ্ধার করে, ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

এ বিষয়ে দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোট বড় ভাই শাফায়েত হোসেনের কাছে হত্যাকান্ড সম্পকে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ করে বলেন,; তার চাচা জাহাঙ্গীর আলম, হারুনুর রশিদ, ছালেহ আহম্মদ ও ফুফা ইউছুফ মিয়ার পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জায়গা-জমি নিয়ে আমাদের বিরোধ চলে আসছিলো। গত প্রায় ২০ দিন আগেও তাদের সাথে জমি নিয়ে আমাদের কথা কাটা-কাটি হয়। কথা কাটা-কাটির এক পর্যায়ে তারা আমাদের হুমকি দিয়ে বলেন, জমিতে গেলে আমাদের লাশ ফেলে দেওয়া হবে। তিনি আরও জানান, লোকমুখে শুনে আজ সকালে (গতকাল বৃহস্পতিবার) মাহাবুবুল হকের পুকুরে গিয়ে আমার ভাইয়ের গলাকাটা মাথা ও মান্নান মিয়াদের ধান ক্ষেতে গিয়ে আমার ভাইয়ের লাশ সনাক্ত করি। শাফায়েত হোসেনের ধারণা, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে তার চাচারাই সিফাতকে হত্যা করে এভাবে লাশ ফেলে গেছে।

তবে এসব অভিযোগকে মিথ্যা ও বানোয়াট দাবি করে অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম, ছালেহ আহম্মদ ও হারুনুর রশিদ বলেন, ভাতিজা শাফায়েত ও সিফাতের সাথে আমাদের কোন বিরোধ হয়নি। ভাতিজারা আমাদেরকে দেখলে অনেক সম্মান করতো। সিফাত ছেলে হিসেবে অনেক ভালো। বৃহস্পতিবার সকালে আমরা তার মৃত্যুর খবর পাই। এতে আমরাও শোকাহত।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.আইয়ূব জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা যাচ্ছে ৩ থেকে ৪ দিন আগে  হত্যাকান্ডটি ঘটে পর গতকাল (বুধবার) রাতের কোন এক সময় পৃথক স্থানে মাথা ও মরদেহ ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি জানান, গতকাল সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় এখনও  পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার বা আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য যে; পুকুরের পানিতে ভেঁসে উঠে মাথা আর পুকুর পাড়ের পাশের ধান ক্ষেতে পড়ে থাকে নিথর দ্বিখন্ডিত দেহ। নির্মমভাবে হত্যার করার পর হতভাগ্য এক স্কুল ছাত্রের মাথা আলাদা করে পুকুরে ফেলে দেয় আর খন্ডিত দেহ ধান ক্ষেতে ফেলে রাখে ঘাতকরা।
নিখোঁজ হওয়ার ৫ দিন পর  শাহাদাত হোসেন সিফাত (১৫) নামে  স্কুল ছাত্রের গলাকাটা লাশ এভাবেই উদ্ধার করেছে নাঙ্গলকোট থানা পুলিশ।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: