সর্বশেষ সংবাদ
◈ নাঙ্গলকোটে স্বামী-স্ত্রীর দ্বন্দ্বে খুনের রহস্য উন্মোচিত; চাচার সেফটি ট্যাংকি থেকে লাশ উদ্ধার! ◈ জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে বিশ্ব: ছাত্রদলের বৃক্ষরোপণ ◈ প্রধান মন্ত্রীর আস্থাভাজন খুলনা ১এর কর্নধর শেখ সোহেল দাকোপ বটিয়াঘাটায় ত্রান ও ঈদ উপহার বিতরণ করেন ◈ ‘আব্দুল গফুর ভূইয়া’রা সমাজের মহৎ হৃদয়ের মানুষ ‘ ◈ কুমিল্লাবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আ.লীগ নেতা আবদুছ ছালাম বেগ ◈ নাঙ্গলকোটে এবার ১৬ স্বাস্থ্য কর্মীসহ সহ করোনা আক্রান্ত ২৫ ◈ প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহারের তালিকায় ব্যাপক অনিয়ম ও আত্মীকরনের অভিযোগ! ◈ কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে কর্মক্ষম পুরুষহীন পরিবারের মাঝে ইচ্ছেঘুড়ির মাছ মাংস বিতরণ ◈ নাঙ্গলকোটে ঈদ উপহার সামগ্রী নিয়ে সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে আলিয়ারার আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ◈ করোনা থেকে মুক্তি চাই – মোহাম্মদ সোহরাব হোসেন

নাঙ্গলকোট পৌরসদরে জলাবদ্ধতায় ৩০ পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন

23 July 2016, 5:18:14

মো. আলাউদ্দিন মজুমদার::
কুমিল্লার নাঙ্গলকোট পৌরসদরে গত কয়েকদিনের হালকা বৃষ্টিতেই বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের সুষ্ঠ কোন ব্যবস্থা না থাকায় এতে পানিবন্দী হয়ে পড়েছে অন্তত ৩০টি পরিবার। এ বিষয়ে স্থানীয় পৌর মেয়রকে লিখিতভাবে অভিযোগ করলেও এখনও পর্যন্ত কোন সুরাহা মেলেনি।
শনিবার সকালে সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, নাঙ্গলকোট পৌর সদরের পুরাতন হাসপাতাল বাইপাস সড়ক সংলগ্ন এলাকা ও খাদ্যগুদাম সংলগ্ন এলাকায় পানিবন্দী হয়ে অন্তত ৩০টি পরিবারের সদস্যদের মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে। এসব পরিবারের স্কুল পড়–য়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেকেই গত কয়েকদিন যাবত স্কুলে যেতে পারছেনা। বাড়ির উঠোন গুলো হাটুঁ পানিতে নিমজ্জিত। অনেকের ঘরে আরও দুই-তিন আগেই পানি প্রবেশ করেছে। এদিকে গত কয়েকদিন যাবত পানিবন্দী হওয়ায় পরিবারগুলোতে বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে। 


এ বিষয়ে তাজুল ইসলাম তাজু নামে এক ভূক্তভোগী জানান, আমরা আজ দীর্ঘদিন যাবত পানিবন্দী হয়ে আছি। এখানে বাইপাস সড়কের উপর দিয়ে ছাড়া পানি নিষ্কাশনের বিকল্প কোন ব্যবস্থা নেই। কিন্তু স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা বিষয়টি দেখেও পানি নিষ্কাশনের কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ২০ জুলাই স্থানীয় পৌর মেয়রকে এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। কিন্তু অভিযোগ দেয়ার তিন দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত পানি নিষ্কাশনের জন্য কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। অতিদ্রুত এখানকার পানি নিষ্কাশনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার। তা না হলে আর দুই-তিন দিন বৃষ্টি অব্যাহত থাকলে আমাদের থাকার ঘরও হাটু পানিতে নিমজ্জিত হবে।
নাঙ্গলকোট পৌর মেয়র আবদুল মালেক জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই আমি স্থানীয় কাউন্সিলর ও পৌর ইঞ্জিনিয়ারকে জলাবদ্ধ এলাকা পরিদর্শনে পাঠিয়েছি। অতিদ্রুত ওই এলাকার পানি নিষ্কাশনের সুষ্ঠ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: