নারায়নগঞ্জের রাজনীতি ও শামীম ওসমানের এক ঢিলে দুই পাখি! | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / সম্পাদকীয় / বিস্তারিত

নারায়নগঞ্জের রাজনীতি ও শামীম ওসমানের এক ঢিলে দুই পাখি!

16 May 2014, 2:47:01

Monir amadernangalkot.com

মনির আহমেদ।

বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাস টা শুরুই হয়েছে যেন জোর যার মুল্লুক তার নীতিতে । ১৯ ৭১ সালে স্বাধীনতা অর্জনের পর থেকে যেন সবারই প্রত্যাশা একটাই ক্ষমতার বাইরে কখনও থাকা যাবেনা । বেছে থাকতে হলে ধাপটের সাথেই থাকতে হবে ,দ্বীতিয় কাউকে মাথা তুলে দাড়াতে দেয়া ঠিক হবে না । মুলত সেই চিন্তা থেকেই বাকশাল গঠনের চিন্তা করেছিলেন বাংলাদেশের স্থপতি প্রেসিডেন্ট শেখ মুজিবুর রহমান ।
শামীম ওসমান নাম টা খুব জোরে শোরে মানুষের দৃষ্টিতে আসে সেই ১৯৯৬ সালে এম পি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে । নারায়নগঞ্জের একক আওয়ামী লীগ নেতা হিসাবে আত্ম প্রকাশ তার ।প্রভাব প্রতিপত্তি, সাহস ,হিম্মত পারিবারিক ভাবেই রয়েছে । সারা দেশে সেই সময়ে ক্ষ্যাতি অর্জন কারী কয়েক জনের মধ্যে শামিম ওসমানও এক জন (যারা নিজেকে প্রতিষ্ঠার জন্য যে কোন কিছুই করতে সক্ষম ছিল) । শামীম ওসমান ছিলেন ওসমান পরিবারের মার্যাদা রক্ষার অকুতভয় সৈনিক । তার ইচ্ছা আমার নারায়ন গঞ্জে নেতৃত্ব থাকবে শুধু আমারই এখানে অন্য কেউ এসে ভাগ বসাক এটা সে কখনও সহ্য করার মানুষ নয় । ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর সারাদেশে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ,নারায়নগঞ্জ ও এর বাইরে ছিল না । সেখানে আওয়ামীলীগের নতুন মুখ হিসাবে দেখা দেয় ডা: সেলিনা হায়াৎ আইভি । শামীম ওসমান কে হারিায়ে মেয়র নির্বাচিত হন আইভি । মাথা ব্যাথা শূরু হয় শামীম ওসমানের যদিও ওসমান পন্থি অনেকেই কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিল । পরবর্তীতে প্যানেল মেয়র নির্বাচনের পালা । আইভিকে চিঠি দিয়েছিলেন এইচ টি ইমামও এক জনকে প্যানাল মেয়র করার জন্য । কিন্তু ভাগ্যেও নির্মমতা মাত্র ১ ভোটের ব্যবধানে হার মানতে হয় তাকে । প্যানেল মেয়র হন নজরুল । পারিবারিক ভাবে প্রভাবশালী এবং আইভির খুব কাছের হওয়ায় অনেকের চক্ষু শুল হন নজরুল । প্যানেল মেয়র না হতে পেরে নুর হোসেন নারায়ন গঞ্জের ডন হওয়ার পরিকল্পনা নেন যা তার কাছের মানুষদের কাছে উপস্থাপন করেন তিনি ,এরকম উষ্মার প্রকাশ শামীম উসমানের পছন্দ ছিলনা । এক দিকে নেতৃত্বে এগিয়ে আসছেন নজরুল ,অন্য দিকে নিজের ঘরে খেয়ে পরে নুর হোসেনের নারায়নগঞ্জের ডন হওয়ার চিন্তা ওসমান পরিবারের ধাপটে আঘাত হানার মত । অন্যদিকে আইভিকে বিভিন্ন ভাবে কোন ঠাসা করার বিষটিও ছিল দিবালোকের মত স্পষ্ট । ত্বকী হত্যার ব্যাপাওে সরাসরী আইভির অভিযোগ শামিম ওসমানের দিকেই ।
শামিম ওসমানের রাজনৈতিক দুরদর্শিতা আসলেই অবাক করার মত । কাটা দিয়ে কাটা সরানো অতঃপর দুই কাটাই আউট । নজরুল কে শেষ করে দিয়ে একক ধাপটে ব্যক্তিত্ব বনার পরিকল্পনা নেন নুর হোসেন । অনেকবার চেষ্টা করেন কিছুতেই সম্ভব হয়ে উঠছিলনা , সর্বশেষ প্রশানকে মেনেজ করে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেন নুর হোসেন । নজরুলের জামিন নেয়ার দিনই জেল খানার সামনে থেকে সন্দেহ ভাজন দুই ব্যক্তির মধ্যে এক জনকে অস্্র সহ আটক করে পুুিলশ পরবর্তিতে র‌্যাবের এক জন এসে কলিক বলে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। ক দিন পরেই অপহরন হন নজরুল সহ সাত জন । শামিম ওসমান দাবি করেন ঘটনার ১০মিনিটের মধ্যেই তিনি প্রধান মন্ত্রিকে সব জানান । অন্য দিকে নজরুলের শশুর শহীদ চেয়ারম্যান ঘটনা শামিম ওসমান কে জানালে তিনি র‌্যাবের কাছে যেতে বলেন । শহীদ চেয়ারম্যান নজরূল পরিবারের আরো ২/৩ জন সহ যান অফিসে ,শহীদ চেয়ারম্যানের ভাষ্য মতে তাদেরকে সেখানে যাওয়ার পর নিজেদের মোবাইগুলো নিয়ে যায় র‌্যাব ,আটকে রাখা হয় তাদের । এক পর্যায়ে তারেক সাইদ এসে বলেন আমার কাছে এসেছেন কেন? শামিম ওসমানের কাছে যান । এতে দেশের মানুষের কাছে অনেকটা স্পষ্ট হয়ে যায় । ঘটনা আসলে কার পরিকল্পনায় !!!
পরদিন থেকেই তোল পাড় ,ঘটনা সবার জানা পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ,শালার মাধ্যমে চুক্তি দুলাভাইায়ের মাধ্যমে বাস্তবায়ন ,আর সেই দুলাভাই হচ্ছেন তারেক সাইদ । প্রশ্ন আসতে পারে এক জন তারেক সাইদের এত ক্ষমতা????????
মির্জা ফখরুলের দাবি সরকার সম্পুর্ন ভাবে জড়িত এই ঘটনায় । অন্য দিকে শামিম উসমান প্রকাশ করেন ঘটনার ওডিও সিডি ।

এক দিকে নজরুল না ফেরাার দেশে অন্য দিকে নুর হোসেনের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ধ্বংস । সুতরাং রেজাল্ট নারায়নগঞ্জ আমারই
আজ দেশের গনতন্ত্রও একই ধারায় । জাতি মুক্তি চায় ,দেশের মানুষ শানিÍ চায় । এই ঘটনার সুস্থ তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীরা শাস্থি পাক ।জনগন সেই প্রত্যাশায় ————–

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: