প্রত্যন্ত অঞ্চলের আলোকবর্তিকা নাঙ্গলকোটের শাকতলী উচ্চ বিদ্যালয়! | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

প্রত্যন্ত অঞ্চলের আলোকবর্তিকা নাঙ্গলকোটের শাকতলী উচ্চ বিদ্যালয়!

9 November 2014, 9:30:06

shaktoli School-1

মোঃ আলাউদ্দিন, নাঙ্গলকোট ঃ

জ্ঞানের আলোয় মানুষকে আলোকিত করার ল্েয ১৯৪৯ সালে হযরত আবদুল গণি (রঃ) কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার ঐতিহ্যবাহী দণি শাকতলী গ্রামের নামানুসারে শাকতলী উচ্চ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রায় ২’শ ২০ শতক জায়গা নিয়ে অত্যন্ত নির্মল পরিবেশে বিদ্যালয়টি অবস্থিত। স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় কয়েক ল শিার্থী এখানে পড়াশোনা করেছেন। এখান থেকে শিা লাভ করে পরবর্তীতে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, স্কুল-কলেজের শিক, লেখক, সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবিসহ উচ্চপদস্থ সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তা হিসেবে অধিষ্টিত হয়েছে অনেকেই। প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে সব সময় এখানকার শিার মান ছিল উন্নত। যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। যার কারণে প্রতি বছরই এ স্কুলের শিার্থী সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে ওই স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ২৩০ জন, ৭ম শ্রেণিতে ১৭০ জন, ৮ম শ্রেণিতে ১৫২ জন, ৯ম শ্রেণিতে ১২৬ জন এবং ১০ম শ্রেণিতে ১০৫ জন শিার্থী পড়ালেখা করছে। এছাড়া চলতি সনের এসএসসি পরীায় এ স্কুল থেকে ১৩৭ জন শিার্থী অংশ নিয়ে পাশ করেছে ১৩০জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮জন আর ফেল করেছে ৭জন শিার্থী। শিার্থী সংখ্যা অনুযায়ী বর্তমানে স্কুলটিতে শিক সংকট, শ্রেণি করে অপ্রতুলতা, ছাত্রবাসের অভাব ও বিজ্ঞানাগারের প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাব পরিলতি হচ্ছে। স্কুলের ভালো ফলাফলের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে বর্তমানে স্কুলের প্রাক্তন শিার্থী দিয়ে পাঠ দান করা হচ্ছে এবং স্কুল মিলনায়তনকে ছাত্রাবাস হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে স্কুলের প্রধান শিক জহিরুল কাইয়ুম ভূঁইয়া জানান, উপরোক্ত সমস্যাগুলো সমাধানের ল্েয ম্যানেজিং কমিটির সাথে কয়েকবার বৈঠক করা হয়েছে। কিন্তু হিসাব করে দেখা যায় সমস্যাগুলোর সমাধান অত্যন্ত ব্যয় বহুল। সরকারি কোন সাহায্য না পেলে এখন কিছুই করা সম্ভব নয়। এই স্কুলের শিার্থীদের মেধা বিকাশের সাহায্যে নিয়মিত ভাবে শিক-শিকিা, প্রাক্তন শিার্থী ও বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে সাধারণ জ্ঞান প্রতিযোগিতা, বিতর্ক প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। সামনের দিকে বিদ্যালয়ের ফলাফল আরও ভালো করার কাঙ্খিত ল্েয শিকরা অকান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। স্কুলের প্রধান শিক আরও জানান, বিদ্যালয়টিকে কুমিল্লা জেলার মধ্যে একটি আদর্শ বিদ্যালয় হিসেবে বাস্তবায়ন করার জন্য আন্তরিকভাবে প্রচেষ্টা চলছে।

shaktoli School 2

 

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: