ফের খুলে দেওয়া হচ্ছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ২২ সেপ্টেম্বর | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

ফের খুলে দেওয়া হচ্ছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ২২ সেপ্টেম্বর

31 August 2016, 8:22:31

নিজস্ব প্রতিবেদক ● কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ধরনের সভা, সমাবেশ ও মিছিল নিষিদ্ধ এবং আগামী ২২ সেপ্টেম্বরের পর বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৩তম সিন্ডিকেট সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি নজরুল হলের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মার্কেটিং বিভাগের সপ্তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মো. খালিদ সাইফুল্লাহ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটিকে তদন্তকাজ সুষ্ঠুভাবে করার জন্য আরও এক মাস সময় দিয়েছে সিন্ডিকেট। ওই সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বলা হয়।

জানা যায়, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও সিন্ডিকেটের সভাপতি মো. আলী আশরাফের সভাপতিত্বে সিন্ডিকেটের এক সভা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট সদস্য ড. মো. আবদুল মান্নান, সিন্ডিকেট সদস্য আবদুল হাকিম, এ কে এম মাইনুল হক মিয়াজী, কুণ্ডু গোপীদাস ও সিন্ডিকেটের সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মজুমদার।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৩১ জুলাই রাত ১২টা ৪৫ মিনিটে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে মো. খালিদ সাইফুল্লাহ নিহত হন। এ ঘটনায় ১ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। একই সঙ্গে ওই ঘটনার জন্য তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটির কার্যক্রম ও বিরাজমান পরিস্থিতি নিয়ে সভায় আলোচনা হয়।

উপাচার্য মো. আলী আশরাফ বলেন, ‘আগামী ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ঈদুল আজহার বন্ধ রয়েছে। সিন্ডিকেট সিদ্ধান্ত নিয়েছে, প্রশাসন ও সব মহলের সহযোগিতা নিয়ে ঈদের ছুটির পর ক্যাম্পাস খুলে দেওয়া হবে। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে সভা, সমাবেশ ও মিছিল নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: