বাংলাদেশ তাঁর খুব চেনা | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

বাংলাদেশ তাঁর খুব চেনা

19 September 2016, 9:06:11

স্পোর্টস ডেস্ক :মঈন আলী বাংলাদেশে আসছেন। এটি আসলে খবর না। এই ইংলিশ অলরাউন্ডার বাংলাদেশে না এলেই উল্টো খবর হতো, ‘আসছেন না মঈন আলী!’ বাংলাদেশে আসা তো নতুন কিছু নয় তাঁর জন্য। ২০১০ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট যখন ‘মঈন আলী’ কে সেটা জানেই না, ওই সময় থেকেই এ দেশে তাঁর আসা-যাওয়া। প্রথমবার এসেছিলেন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলতে। পরে খেলেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও। বাংলাদেশ সফরে এসেছেন ইংল্যান্ড দলের হয়েও। হাতের তালুর মতো না হলেও বাংলাদেশ তো অনেকটাই চেনা মঈন আলীর কাছে।
বাংলাদেশ সফরের জন্য ঘোষিত ইংল্যান্ডের দুই দলেই আছেন মঈন। দল ঘোষণার অনেক আগে থেকেই এ সফর নিয়ে ইতিবাচক মনোভাব তাঁর। কারণটি জানালেন দল ঘোষণার পর, ‘আমি এর আগে সেখানে চার-পাঁচবার গিয়েছি। আমার মনে হয়েছে, যাওয়ার জন্য ও ক্রিকেট খেলার জন্য খুব সুন্দর জায়গা। ওখানকার মানুষ খুব বন্ধুসুলভ।’
ওয়ানডে অধিনায়ক এউইন মরগান কিংবা ওপেনার অ্যালেক্স হেলসের সেটা মনে হয়নি। মঈন অবশ্য তাঁদের সিদ্ধান্তকে সম্মানই করছেন, ‘এটা ওদের সিদ্ধান্ত, কিন্তু এখনো দলের বড় এক অংশ ওরা। ওদের সিদ্ধান্তকে আমরা সম্মান করি। বর্তমানে আপনি কোথাও নিরাপদ নন, তাই আমি এই সফর নিয়ে কোনো সমস্যা খুঁজে পাইনি।’
এসবই এখন অতীত। মঈনের দৃষ্টি এখন সামনে, বাংলাদেশ সফরে। উপমহাদেশের স্পিনিং কন্ডিশনে তাঁকে যে নিতে হবে বাড়তি দায়িত্ব। উপমহাদেশে এর আগে কখনো টেস্ট না খেললেও বাংলাদেশে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা আছে। ঘরোয়া ক্রিকেটে তো খেলেছেনই। বাংলাদেশে খেলতে বাড়তি স্বচ্ছন্দ বোধ করেন বলেও জানালেন তিনি, ‘ওখানকার কন্ডিশনের সঙ্গে আমার খেলার ধরনটা বেশি মানানসই। আমিও মনে করি কোনো না কোনো একপর্যায়ে আমাকে বড় ভূমিকা নিতে হবে। আশা করছি, সেই দায়িত্ব পালন করতে পারব এবং দুই সিরিজ জয়েই বড় ভূমিকা রাখতে পারব। তবে আমি কোনো বাড়তি চাপ অনুভব করছি না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মানেই তো চাপ।’
দলে তাঁর ভূমিকা দুটো। টেস্ট ও ওয়ানডে দুই সিরিজেই ‘অলরাউন্ডার’ মঈনকে প্রয়োজন হবে ইংল্যান্ডের। এ সিরিজে একটু ওপরে উঠে এসে মিডল অর্ডারে ব্যাট করার কথা তাঁর। ইংলিশ অলরাউন্ডার সবকিছুর জন্যই প্রস্তুত, ‘নিজেকে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবেই ভাবি। সুতরাং ওপরে ব্যাট করতে ভালোই লাগবে আমার। তবে দল যেখানে চায়, সেখানে ব্যাট করেই আমি খুশি। যদি সুযোগের অপেক্ষায় থাকতে হয়, তাই করব।’
ওয়ানডেতে বাংলাদেশের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের সাম্প্রতিক অভিজ্ঞতা ভালো নয়। শেষ চার ম্যাচের তিনটিতেই হার। মঈন তাই বাংলাদেশ নিয়ে সতর্ক। তবে এই ইংল্যান্ড এখন বদলে যাওয়া দল বলে খানিকটা হুমকিও দিয়ে রাখলেন, ‘বাংলাদেশকে নিয়ে আমরা একটু চিন্তায় তো আছিই। অস্ট্রেলিয়ায় ওরা আমাদের হারিয়েছে। কিন্তু ওই ম্যাচের পর আমাদের দলও অনেক বদলে গেছে। অন্য এক মহাদেশে খেলা, তাই বিষয়টি একটু ভিন্ন হবে। কিন্তু আমি মনে করি, আমরা এমন এক দল, যারা প্রতিনিয়ত ভালো হচ্ছি এবং যেখানেই যাই না কেন, আমরা এভাবেই খেলতে পারব। আমরা বরং এটা নিয়ে বেশ রোমাঞ্চিত।’
বাংলাদেশ দল কি পারবে মঈনকে ভুল প্রমাণ করতে?

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: