বোলিং নিষেধাজ্ঞা উঠে গেল তাসকিন-সানির | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

বোলিং নিষেধাজ্ঞা উঠে গেল তাসকিন-সানির

24 September 2016, 8:58:53

মোহাম্মদ ইব্রাহিম খলিল মজুমদার: অপেক্ষার অবসান। বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষায় উতরে গেলেন তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানি।আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে এই সুখবর। নতুন করে দেওয়া বোলিং পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন দুই বোলারই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করতে এখন আর তাঁদের সামনে কোনো বাধা নেই।
ভারতে গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে হল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচের পর দুঃসংবাদ ঘিরে ধরে বাংলাদেশ দলকে। একই সঙ্গে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের অভিযোগ ওঠে তাসকিন ও সানির বিরুদ্ধে। টুর্নামেন্ট চলার সময়ই ভারতের চেন্নাইয়ের পরীক্ষায় আম্পায়ারদের সন্দেহ সত্যি প্রমাণিত হয়েছিল। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাই বোলিং নিষেধাজ্ঞায় পড়েন দুজনই।
নিষিদ্ধ হওয়ার পর গত এপ্রিল থেকে পুনর্বাসনপ্রক্রিয়া শুরু করেন তাসকিন-সানি। প্রায় পাঁচ মাসের প্রস্তুতি শেষে দুজন প্রথমে পরীক্ষা দেন বিসিবির বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটির কাছে। দুজনই উতরে যান বিসিবির পরীক্ষায়। চূড়ান্ত পরীক্ষা দিতে ৫ সেপ্টেম্বর তাসকিন-সানি উড়াল দেন অস্ট্রেলিয়ায়। আইসিসির অনুমোদিত গবেষণাগার ব্রিসবেনের ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারে তাঁদের বোলিং অ্যাকশনের শুদ্ধি পরীক্ষায় হয়েছিল ৮ সেপ্টেম্বর। দুই বা তিন সপ্তাহ পর দেওয়ার কথা ছিল পরীক্ষার ফল। এক বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি কাল জানিয়ে দিল, বাংলাদেশের দুই বোলারের কনুইয়ের বাঁক এখন গ্রহণযোগ্য (১৫ ডিগ্রি) মাত্রার মধ্যে আছে।

এই সুখবরে দুজনই ভীষণ খুশি। তাঁদের মাথা থেকে যেন নেমে গেছে বিরাট এক বোঝা। কাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে তাসকিনের মুখে তাই দেখা গেল উচ্ছ্বাসের ছটা, ‘অনেক খুশি লাগছে। এটা খুব কষ্টের অভিজ্ঞতা ছিল। রাস্তায় বেরোলেই মানুষ জিজ্ঞেস করত, আপনার হাত কি সোজা হয়েছে? আর খেলতে পারবেন? এখন এই প্রশ্ন আর কেউ করতে পারবে না। আর যেন না করতে পারে সেভাবে খেলার চেষ্টা করতে পারব।’

পরীক্ষায় উতরে যেতে পেরে আনন্দ ছুঁয়ে যাচ্ছে সানিকেও। মুঠোফোনে তাঁর প্রতিক্রিয়ায় সেটিই বোঝা গেল, ‘মাথার ওপর থেকে বিরাট এক বোঝা নেমে গেছে। এটা আমার কাছে বিরাট আনন্দের খবর। বিশ্বকাপে অল্প সময়ের মধ্যে পরীক্ষা দিতে হয়েছিল। পরীক্ষাটা ভালো দিতে পারিনি। এবার অনেক সময় নিয়ে প্রস্তুতি নিয়েছি। আত্মবিশ্বাস ছিল পরীক্ষায় পাস করব, করেছি।’

পরীক্ষার ফল ইতিবাচক হবে ধরে রেখেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দলে তাসকিনের জন্য জায়গা রেখেছিলেন নির্বাচকেরা। স্কোয়াডের ১৪তম সদস্য হিসেবে তাই বাংলাদেশ দলে ঢুকে পড়লেন তাসকিন। এবার সিরিজটা স্মরণীয় করে রাখার লক্ষ্য এই পেসারের।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: