মনোহরগঞ্জে এক বাড়ির ৫ নলকূপ থেকে বের হচ্ছে গ্যাস! | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

মনোহরগঞ্জে এক বাড়ির ৫ নলকূপ থেকে বের হচ্ছে গ্যাস!

24 June 2014, 4:25:34

মনোহরগঞ্জে এক বাড়ির ৫টি টিউবওয়েল থেকে লাগামহীন ভাবে বেরিয়ে চলেছে খনিজ সম্পদ গ্যাস। গ্যাসের বের হওয়ার তীব্রতা দিন দিন বাড়তে থাকায় ইতিমধ্যে ওই বাড়ির ৩টি টিউবওয়েল খুলে পাইপের মুখ বন্ধ করে দিয়েছেন এলাকাবাসী।

এতে চরম আতংকে রয়েছেন গ্রামের লোকজন। আর ওই বাড়ির লোকজন পার্শ্ববর্তী গ্রাম থেকে খাবার পানি এনে তা পান করছেন। গত এক মাস থেকে উপজেলার ভরনীখন্ড গ্রামের বড় বাড়ির সব গুলো টিউবওয়েলে এ গ্যাস বের হচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ভরনীখন্ড গ্রামের বড় বাড়িতে আর্সেনিক রোগীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় ওই বাড়িতে একটি গভীর নলকূপ স্থাপনের উদ্যোগ নেয় র্ভাক নামক এনজিও প্রতিষ্ঠান। সেখানে ওই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নলকূপ স্থাপনের জন্য পাইপসহ প্রয়োজনীয় মালামাল নেওয়া হয় প্রায় ১ মাস আগে।

পরে এনজিও’র কর্মীরা স্থান নির্ধারণ করে ওই বাড়িতে নলকূপ স্থাপনের কাজ শুরু করে। এ সময় প্রায় ৮০/৯০ ফুট পাইপ মাটির নিচে যেতেই গ্যাস বের হতে শুরু করে। পরে গ্যাসের চাপ বেড়ে যাওয়ায় তারা কাজ বন্ধ করে পাইপ গুলো তুলে নেয়। এর ২/৩ দিন পর থেকেই ওই বাড়ির ৫/৬ বছরের পুরোনো সবগুলো টিউবওয়ের থেকে লাগামহীন ভাবে গ্যাস বের হতে শুরু করে।

গ্যাসের চাপ দিন দিন বাড়তে থাকায় বাধ্য হয়ে ওই বাড়ির আবুল হোসেন, ইয়াসিনসহ ৩ ব্যাক্তি তাদের টিউবওয়েল খুলে পাইপের মুখ বন্ধ করে দেয়। বের হওয়া গ্যাসের কারনে ওই এলাকায় অক্রিজেনের পরিমান কমে যাওয়ায় এলাকার লোকজনের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। পরে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তফা মোরশেদ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এ ঘটনা বাস্তবে দেখতে ওই বাড়ির লোকজনদের টিউবওয়েরে পানি পান না করার নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউ’পি মেম্বার জাকির হোসেন বলেন, প্রথমে আস্তে বের হলেও পরে অনেক জোরে গ্যাস বের হতে শুরু করে। পরে আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করি।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: