মনোহরগঞ্জে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ!! | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

মনোহরগঞ্জে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ!!

26 May 2014, 5:13:38

মনোহরগঞ্জে কালবৈশাখী ঝড়ের কবলে পড়ে এক প্রতিবন্ধী তরুণী (১৫) ধর্ষনের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনার পর অভিযুক্ত ধর্ষকের পরিবার ওই মেয়েটির পরিবারের নামে উল্টো থানায় অভিযোগ করে হয়রানি করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত ২২ মে রাতে এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদি হয়ে থানায় ওই ধর্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তবে ঘটনার পর থেকেই ওই লম্পট পলাতক থাকায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়নি।

26052014_010_LAKSAM_RAPE

 

 

 

 

 

 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ১৪ মে বিকেল ৩টার দিকে উপজেলার বচইড় গ্রাম থেকে পার্শ্ববর্তী দৈয়ারা বাজারে যায় প্রতিবন্ধী মেয়েটি। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মেয়েটি বাজারের কাজ শেষে ফের বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে মেয়েটি বাজার ও গ্রামের মধ্যবর্তী স্থানে পৌঁছলে কালবৈশাখী ঝড়ের কবলে পড়ে। প্রতিবন্ধী মেয়েটি ঝড় ও বৃষ্টি থেকে রক্ষার জন্য ওই পথের পাশে অবস্থিত গাছের নিছে আশ্রয় নেয়। এ সময় ওই পথ দিয়ে যাচ্ছিলেন উপজেলার বচইড় গ্রামের জাবেদ উল্লার ছেলে নুর আলম (২২)। সে মেয়েটিকে একা দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে সেখানে পৌঁছে মেয়েটিকে প্রথমে কু-প্রস্তাব দেয়। এতে মেয়েটি রাজি না হলে লম্পট নুর আলম ওই অসহায় মেয়েটিকে ঝাপটে ধরে পার্শ্ববর্তী ঝোপের আড়ালে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। কিছুক্ষন পর ঝড় থামলে মেয়েটির চিৎকারে আশ-পাশের মহিলারা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে ওই ধর্ষককে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পায়। এ সময় লোকজন দেখে ওই লম্পট নুর আলম দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা মেয়েটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, এ ঘটনা জানা-জানি হলে মেয়েটির দিনমজুর বাবা গ্রামের মেম্বারসহ মাতাব্বরদের নিকট বিচারের জন্য ঘুরতে থাকেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই লম্পটের পরিবার মেয়েটির পরিবারের নামে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন। এর পর থেকেই ওই ধর্ষকের পরিবার মেয়েটির পরিবারকে থানায় মামলা না করার জন্য বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধমকি দিতে থাকে। এ ঘটনার পর সর্বশেষে গত ২২ মে রাতে ধর্ষিতা প্রতিবন্ধী মেয়েটির মা বাদি হয়ে মনোহরগঞ্জ থানায় ওই ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মনোহরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) সনজিত দেবনাথ। তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। ধর্ষিত মেয়েটির মেডিকেল চেকআপ করা হয়েছে। মামলার আসামি ওই ধর্ষককে গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে বলে দাবি করেন তিনি। এদিকে স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: