সর্বশেষ সংবাদ
◈ নাঙ্গলকোটে এবার ১৬ স্বাস্থ্য কর্মীসহ সহ করোনা আক্রান্ত ২৫ ◈ প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহারের তালিকায় ব্যাপক অনিয়ম ও আত্মীকরনের অভিযোগ! ◈ কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে কর্মক্ষম পুরুষহীন পরিবারের মাঝে ইচ্ছেঘুড়ির মাছ মাংস বিতরণ ◈ নাঙ্গলকোটে ঈদ উপহার সামগ্রী নিয়ে সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে আলিয়ারার আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ◈ করোনা থেকে মুক্তি চাই – মোহাম্মদ সোহরাব হোসেন ◈ শিকল পায়ে সাম্য –মোঃ এম.রহমান ◈ নাঙ্গলকোটের পেরিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে আইনজীবীর বাড়িতে হামলার অভিযোগ:শিশুসহ আহত ৩ ◈ করোনা মানবিকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত! নাঙ্গলকোটে করোনা আক্রান্ত এনায়েতের পাশে চিওড়া সমাজকল্যাণ পরিষদ ◈ আমাদের আলোকিত সমাজের’ পক্ষে থেকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের উপহার ◈ আগৈলঝাড়ায় ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতা মোক্তাধির হোসেন তরুর ঈদ উপহার বিতরণ

মাটিরাঙ্গা জোন কর্তৃক কম্পিউটার ও সেলাই প্রশিক্ষণ ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ

7 May 2019, 2:14:45

মোঃ ফয়সাল,খাগড়াছড়ি জেলা প্রতিনিধি:

মাটিরাঙ্গা সেনা জোন কতৃক আয়োজিত কম্পিউটার ও সেলাই প্রশিক্ষণ ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে সনদপত্র বিতরন করেন আজ ৭ মে মঙ্গলবার সকাল ১২ ঘটিকায় মাটিরাঙ্গা ৩০ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি জোন কতৃক আয়োজিত কম্পিউটার ও সেলাই মেশিন ২০জন প্রশিক্ষনার্থীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করেন মাটিরাঙ্গা জোন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ নওরোজ নিকোশিয়ার, পিএসসি,জি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে পাহাড়ি বাঙালিদের মাঝে শান্তি সম্প্রীতি বজায় রাখতে ও পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের কর্মসংস্থান তৈরিতে এই প্রশিক্ষণ বেবস্থাটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।এতে করে বেকারত্ব দূরীকরণ করে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে মাইলফলক ভূমিকা রাখবে। এসময়ে আরো ছিলেন মাটিরাঙ্গা মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিভিষণ কান্তি দাশ, মাটিরাঙ্গা উপজেলার চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম, মাটিরাঙ্গা পৌরসভা মেয়র মোঃ শামসুল হক, মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হিরণজয় ত্রিপুরা, ৩০ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি জোন ক্যাপটেন মোঃ হাসিবুল হাসান শান্ত সহ ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদগণ।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: