মুহাম্মাদ বিন কাসিম: ১৩০২ তম শাহাদাত বার্ষিকী ১৪ জুলাই | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

মুহাম্মাদ বিন কাসিম: ১৩০২ তম শাহাদাত বার্ষিকী ১৪ জুলাই

13 July 2017, 6:07:55

মাহমুদ ইউসুফ
ইমাদউদ্দিন মুহাম্মদ বিন কাসিম আল সাকাফি ৬৯৫ সালের ৩১ ডিসেম্বর সৌদি আরবের তায়েফে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একজন উমাইয়া সেনাপতি সিন্ধু নদসহ সিন্ধু ও মুলতান অঞ্চল তিনি জয় করে উমাইয়া খিলাফতের অন্তর্ভুক্ত করেন। তার সিন্ধু জয়ের কারণে মুসলিমদের পক্ষে মুসলিমদের ভারতীয় উপমহাদেশ বিজয়ের পথ প্রশস্ত হয়।
বিশ^ ইতিহাসের বিশ^বীরদের তালিকা করলে প্রথম সারিতে যার নামটা জ¦লজ¦ল করবে তিনি হলেন মুহাম্মাদ বিন কাসিম। অষ্টম শতাব্দির সূচনাপর্বে তিনি ভারতবর্ষের ভূমিতে তাওহিদের পতাকা উড্ডীন করেন। এই প্রথম রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতায় ইমান ও ইমানদারদের সংস্পর্শে আসে ভারতীয় পৌত্তলিকরা। শুধু তাই নয় সুশাসন, ইনসাফ, ন্যায়বিচার, মানবতা ও মানবাধিকারেরও মোলাকাত লাভ করে উপমহাদেশের মানবগোষ্ঠী। এরসব কৃতিত্ব ইতিহাসের সবচেয়ে কনিষ্ঠ জেনারেল মুহাম্মাদ বিন কাসিমের। সিন্ধু ও মুলতানে ৭১২ সালে যখন অভিযান পরিচালনা করেন তখন তাঁর বয়স মাত্র ১৭ বছর। বর্তমানের হিসেবে এই বয়সে উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণির ছাত্র থাকার কথা। অথচ সেই তরুণ বয়সে সামরিক অভিযানের সেনাপতির পদ অলঙ্কৃত ইতিহাসে দ্বিতীয়টি আর আছে বলে আমাদের জানা নেই। সে হিসেবে তিনি ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী জেনারেল। দ্বিতীয় হিসেবে ফরাসী তরুণী বীরাঙ্গনা জোয়ান অব আর্কের (১৪১২-১৪৩১) নাম আসে।
মহাবীর মুহাম্মাদ বিন কাসিমকে খলিফা সুলাইমান ইবনে আবদুল মালিকের ক্ষমতা গ্রহণের পর ১৮ জুলাই ৭১৫ তারিখে তাকে ফাসি দেয়া হয়। কাল্পনিক ও মিথ্যা নালিশে তাঁকে প্রাণদ-ে দ-িত করা হয়। তাঁর ১৩০২ তম শাহাদাত বার্ষিকীতে তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করছি মহান আল্লাহ রব্বুল আলামিনের দরবারে। উপমহাদেশের নামজাদা সাংবাদিক হামিদ মীর বলেন, ‘যখন সুলায়মান বিন আবদুল মালিকের মতো কুচক্রী শাসক মুহাম্মদ বিন কাসিমকে হত্যা করতে থাকে, তখন শত্রু আমাদের ঘরে ঢুকে গিয়ে আমাদের মারতে থাকে। আমাদের মুহাম্মদ বিন কাসিমের পরিণাম থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে একে অন্যকে হত্যা করানোর ষড়যন্ত্র ও কুচক্র পরিত্যাগ করতে হবে।’ (দৈনিক নয়াদিগন্ত, ১০ মার্চ ২০১৭)

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: