মোল্লাহাট উপজেলা সমাজ সেবা অফিসারের বিরুদ্ধে অনিয়ম দুর্নীতির বিষয়ে প্রকাশিত সংবাদের তদন্ত শুরু | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

মোল্লাহাট উপজেলা সমাজ সেবা অফিসারের বিরুদ্ধে অনিয়ম দুর্নীতির বিষয়ে প্রকাশিত সংবাদের তদন্ত শুরু

1 August 2018, 6:53:40

মোল্লাহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ঃ
মোল্লাহাট উপজেলা সামাজ সেবা অফিসার মোঃ মাহাবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে রাতের আধারে সরকারী মালামাল বিক্রির চেস্টাসহ সিমাহীন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশিত সংবাদের তদন্ত শুরু হয়েছে। গতকাল বুধবার সমাজসেবা অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ দেলোয়ার হোসেন ও বাগেরহাট জেলার সহকারী পরিচালক মোঃ খলিল আল রশিদ এ তদন্ত করেন।
এ খবর জানতে পেরে মোল্লাহাট উপজেলা সমাজসেবা অফিসে তদন্তকালে বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা উপস্থিত হলে তাদের সামনেই বিভিন্ন ফাইল দেখেন উক্ত কর্মকর্তা দ্বয়। এসময় ভাতা প্রদানে প্রস্তুত নাম তালিকার রেজুলেশন বহিতে ফ্লুইড দ্বারা নাম মুছে নতুন নাম লেখা/স্থাপনের বেশ কতক প্রমান পাওয়া যায়। এছাড়া তদন্তকালে সরকারী মালামাল বিক্রির বিষয়টি স্বীকার করলেও ওই সকল মাল সমাজসেবা অফিসের না বলে বোঝাতে ব্যার্থ চেষ্টা করেন অভিযুক্ত সমাজসেবা অফিসার মোঃ মাহাবুবুর রহমান।
এসময় বিভাগীয় অতিরিক্ত পরিচালক কথোপকথোনে উল্লেখ করেন-অভিযুক্ত অফিসার এরপূর্বে একবার চাকুরিচ্যুত হয়েছিলেন, পরে চাকুরী ফিরে পেয়ে তার সতর্ক হওয়া উচিত ছিলো। এরপরেও যেহেতু নিজেকে সুধরাতে পারেনি, সেহেতু ন্যুনতম এখান থেকে অন্যত্র বদলী প্রয়োজন।
উল্লেখ্য, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতাসহ সমাজসেবা অফিসের মাধ্যমে সরকারের যাতীয় সেবামূলক কর্মকান্ডে ঘুষ নেয়া ও কৌশলে অর্থ আতœসাত করা এ কর্মকর্তার চরম নেশা। আর এ কারণে তিনি ইতি পূর্বে চাকুরী থেকে বহিস্কৃত হয়েছিলেন। বহুচেষ্টা-তদ্বির করে চাকুরী ফিরে পেলেও সীমাহীন অর্থের মোহে তিনি কিঞ্চিত নিয়মের পথে ফিরতে বা শোধরাতে পারে নি নিজেকে।
ওই সকল অনিয়ম-দুর্নীতির ধারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার রাতে অফিসের বেশ কিছু মালামাল ভাঙ্গাড়ী দোকানে নিয়ে বিক্রি করছিলেন তিনি। নিয়ম না মেনে রাতের আধারে সমাজসেবা অফিসার নিজে মাল বিক্রিকালে তাকে আটক করে স্থানীয়রা।
পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মাহবুবুল আলমের নির্দেশে বিক্রিত মালামাল ফেরত নিয়ে রক্ষা পান তিনি।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য:

x