রাজকোটে রোমাঞ্চ ছড়িয়ে ড্র | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

রাজকোটে রোমাঞ্চ ছড়িয়ে ড্র

14 November 2016, 9:17:47

অ্যালিস্টার কুক জানতেন এক সেশনে ধ্বংস হওয়ার দল ভারত নয়। তার পরও কমতি রাখলেন না কোনো চেষ্টার। ব্যাটসম্যানকে

ঘিরে তৈরি করলেন ফিল্ডারদের ছাতা। রিজার্ভ ফিল্ডারদের রাখলেন বাউন্ডারির বাইরে, যেন বল গেলে সময় নষ্ট না হয়! তাতে ৪৯ ওভারের বদলে খেলা গেছে ৫২.৩ ওভার। কাজের কাজটা হয়নি তার পরও। ইংলিশ ভয় কাটিয়ে রাজকোট টেস্টটা ড্র করল বিরাট কোহলির দল। ২০১২ সালে নাগপুরের পর গতকালই প্রথম ভারতের মাটিতে ড্র হলো পুরো পাঁচ দিন খেলা কোনো টেস্ট (২০১৫ সালে একটি টেস্ট ড্র হয়েছিল বৃষ্টিতে)। সেবার ইংল্যান্ডের সঙ্গে ড্রর পর দেশের মাটিতে টানা ১২ টেস্ট জিতেছিল ভারত।

গতকাল ৩ উইকেটে ২৬০ রানে ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করলে জয়ের জন্য অন্তত ৪৯ ওভারে ভারতকে করতে হতো ৩১০। ৩৯তম ওভারে ৫ উইকেট নিয়ে আশাও জাগিয়েছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু বিরাট কোহলির দৃঢ়তায় রোমাঞ্চ ছড়িয়ে শেষ পর্যন্ত ড্র হয় ম্যাচটা। ৫২.৩ ওভারে ভারত করেছিল ৬ উইকেটে ১৭২। তাতে আরো আগে ইনিংস ঘোষণা না করার আফসোসে পোড়ার কথা অ্যালিস্টার কুকের।

কুকের সাহসী ইনিংস ঘোষণা অথবা অভাবিত কোনো ধস না হলে রাজকোট টেস্ট যে ড্র হচ্ছে বোঝা গিয়েছিল চতুর্থ দিনই। দুটোর কোনোটা হয়নি গতকাল। ধীর গতিতে ব্যাট করে উদ্বোধনী জুটিটা ১৮০ পর্যন্ত নিয়ে গিয়েছিলেন কুক ও হাসিব হামিদ। ১৭৭ বলে ৭ বাউন্ডারি ১ ছক্কায় ৮২ করা হামিদকে কট অ্যান্ড বোল্ড করে জুটিটা ভাঙেন অমিত মিশ্র। সেঞ্চুরি না পেলেও হামিদের ৮২ ইংলিশ টিনএজারদের মধ্যে টেস্টে সর্বোচ্চ। কুকের সঙ্গে তাঁর ১৮০ রানের জুটিও ভারতের মাটিতে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ উদ্বোধনী জুটির রেকর্ড। কুকের ৩০তম সেঞ্চুরিটা আবার ভারতের মাটিতে তাঁর পঞ্চম। ভারতে এত বেশি টেস্ট সেঞ্চুরি নেই আর কারো। ২৪৩ বলে ১৩০ করে তিনি ফেরেন রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে। এত সব রেকর্ড গড়েও কুক ইনিংস ঘোষণা করেন লাঞ্চের ঘণ্টাখানেক পর।

চা বিরতির আগে আউট হয়েছিলেন গৌতম গম্ভীর (০) ও চেতেশ্বর পূজারা (১৮)। কিন্তু একটা প্রান্ত আগলে ছিলেন চতুর্থ ইনিংসে ৬০.৮১ গড়ে রান করা বিরাট কোহলি। আজিঙ্কা রাহানে ১ ও মুরালি বিজয় ৩১ করে ফিরলেও ৯৮ বলে ৪৯ রানে অপরাজিত থাকা কোহলিকে সঙ্গ দিয়ে গেছেন প্রথমে রবিচন্দ্রন অশ্বিন (৫৩ বলে ৩২), এরপর রবীন্দ্র জাদেজা (৩৩ বলে ৩২*)। শেষ পর্যন্ত ড্র করে কোহলির স্বস্তি, ‘ইংল্যান্ডের মতো দলের বিপক্ষে জয়ের নিশ্চয়তা নিয়ে নামা যায় না। আমরা ক্যাচও মিস করেছি পাঁচটা। এই ভুলগুলো কাটিয়ে উঠতে হবে দ্রুত।’ ওদিকে দেরিতে ইনিংস ঘোষণার ব্যাখ্যা দিয়েছেন কুক, ‘এই ফ্ল্যাট পিচে এমন একটা লক্ষ্য দিতে চেয়েছিলাম যেন ওরা তাড়া করতে না পারে। টস জেতাটা পক্ষে গেছে আমাদের। এই ড্রতে খুশি আমি।’ বাংলাদেশে স্পিনে হেনস্থা হওয়ার পর ভারতে প্রথম টেস্ট ড্র করে খুশি হওয়াই স্বাভাবিক ইংল্যান্ডের। ক্রিকইনফো

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ইংল্যান্ড : ৫৩৭ ও ৭৫.৩ ওভারে ২৬০/৩ ডি. (কুক ১৩০, হামিদ ৮২, স্টোকস ২৯*; মিশ্র ২/৬০, অশ্বিন ১/৬৩)।

ভারত : ৪৮৮ ও ৫২.৩ ওভারে ১৭২/৬ (কোহলি ৪৯*, অশ্বিন ৩২, জাদেজা ৩২*, বিজয় ৩১; রশিদ ৩/৬৪, আনসারি ১/৪১)।

ফল : ড্র।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : মঈন আলী।

 

মোহাম্মদ ইব্রাহিম খলিল, ক্রীড়া প্রতিবেদক, দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোট

 

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: