সর্বশেষ সংবাদ
◈ নাঙ্গলকোট থানার ওসির বিদায় সংবর্ধনা ◈ নাঙ্গলকোটে পুত্রের লাশ দেখে পিতার মৃত্যু ◈ নাঙ্গলকোটে শারদীয় দূর্গাপুজা উদযাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের চেক বিতরণ ◈ নাঙ্গলকোট উপজেলার দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত ◈ কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা,আটক ৩ ◈ এনটিভি’র লাইসেন্স বাতিলের দাবিতে ওলামা লীগের মানববন্ধন ◈ আবরার হত্যার প্রতিবাদে বিএফইউজে ও ডিইউজে’র মানববন্ধন ◈ অর্থপাচার ও ঋণ খেলাপীর অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট: বললেন শাহজাহান বাবলু ◈ কুমিল্লায় সৈয়দ শামসুল হকের ৩য় প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা ◈ নাঙ্গলকোটে পূজা মন্ডবে শিক্ষার্থীদের মাঝে ঢাবি ছাত্রলীগ নেতার ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী ‘ বই বিতরণ
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

রূপসার কাজদিয়ায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধুকে নির্যাতন

৩০ জুন ২০১৯, ৬:২৪:০০

স্টাফ রিপোর্টার:
গত ২ বছর আগে রূপসা কাজদিয়ার সল্পবাহিরদিয়া এলাকার মাঈনউদ্দিনের পুত্র মোস্তফা কামালের সাথে বিয়ে হয়েছিলো ফকিরহাটের হারুন শেখের কন্যা নাজমা খাতুনের। বিয়ের ১ বছর যেতে না যেতেই তাদের কোল আলো করে আসে এক কন্যা সন্তান। কিন্তু এরই মধ্যে সংসার জীবনে বিভিন্ন সময় কয়েকবারই যৌতুকের দাবিতে স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে গৃহবধু নাজমার। নাজমা খাতুনের স্বজনরা জানান- নাজমার স্বামী মোস্তফা কামাল খুলনার গেøারী জুটমিলের কর্মচারী। সে বিভিন্ন সময় যৌতুকের দাবিতে নাজমাকে নানা ভাবে নির্যাতন করতো। শুধু স্বামী মোস্তফাই নয় নাজমার ওপর নির্যাতন চালাতো মোস্তফার ২ বোন হোসনেআরা ও রোজিনা। যৌতুকের দাবি ছাড়াও নির্যাতনের পিছনে রয়েছে মোস্তফার পরোকিয়ার ঘটনা। একটি কন্যা সন্তান থাকা সত্তে¡ও অন্য মহিলাদের সাথে মোস্তফার সম্পর্ক আছে বলে জানায় নাজমার পরিবারের স্বজনরা। গত ২০ জুন বৃহস্পতিবার রাতে নাজমার ওপর চালানো হয় অমানবিক নির্যাতন। সেই রাতে তাকে নির্যাতন করে বিষ খাওয়ানো হয় বলে অভিযোগ নাজমার স্বজনদের। রাত ২টায় গুরুত্বর অসুস্থ্য অবস্থায় কাজদিয়া উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নাজমাকে ফেলে রেখে চলে যায় তার স্বামী ও শশুর বাড়ির লোকজনরা। পরবর্তিতে খবর পেয়ে নাজমার পরিবারের লোকজনরা পরের দিন তাকে ফকিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় নাজমাকে পাঠানো হয় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। কিন্তু সময় গড়ানোর সাথে সাথে তার অবস্থার আরও অবনতি হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে গৃহবধু নাজমা খাতুন। এদিকে অভিযুক্ত মোস্তফা কামালের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি পরকিয়া ও নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: