রোজা হোক ক্লান্তিহীন- বাপ্পি মজুমদার ইউনুস | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

রোজা হোক ক্লান্তিহীন- বাপ্পি মজুমদার ইউনুস

16 July 2014, 2:34:18

বাপ্পি মজুমদার ইউনুস

 

আমরা পবিত্র রমজান মাসের জন্য সারা বছর অপেক্ষা করে থাকি। আমাদের অপেক্ষার পালা শেষে
আবার রমজান মাস এসেছে। ধর্মপ্রাণ মুসলিম রোজা পালন করছেন।

পবিত্র রমজানে আমাদের স্বাভাবিক জীবন যাপনের বেশকিছু পরিবর্তন ঘটে। আর সব থেকে বড়
পরিবর্তন হয় খাবারের ক্ষেত্রে। গরমে প্রায় ১৬ ঘণ্টা রোজা রাখতে গিয়ে অনেকেরই পানিশূন্যতা,
বুকজ্বলা কিংবা মাথাব্যথার মতো নানা শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

তবে প্রথম থেকে একটু সাবধান হয়ে চললে এই সমস্যা কাটিয়ে সুস্থ ভাবেই রোজা রাখতে পারবো।

মনে রাখতে হবে, রোজা রাখা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর নয়, রমজানে চাই স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার।
আমরা সারা দিন রোজা রাখার পর ইফতারে অতিরিক্ত তেলে ভাজা খাবার খাই। এ খাবারগুলো
অনেক সময় বাইরে থেকে কিনে আনি। যার মান নিয়ে সংশয় থেকেই যায়।
পুরো রোজায় সুস্থ থাকতে আমরা যা করতে পারি:

*    বেশি ভাজাপোড়া খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। এগুলো বদহজম, বুক জ্বালাপোড়া অথবা
ওজন বাড়াতে সাহায্য করে
*    যেসব খাবারে অতিরিক্ত চিনি থাকে এগুলো খাবেন না
*    সেহরি ও ইফতারের সময় অতিরিক্ত খাবার খাওয়া ঠিক নয়
*    ইফতারে খেজুর, শরবত অথবা জুসের পাশাপাশি গ্লুকোজের শরবতও পান করতে পারেন
*    সেহরিতে ভাত, রুটি, মসুর ডাল, শাকসবজি বেশি পরিমাণে খান। এ খাবারগুলো পাকস্থলীতে
পরিপাক হতে অনেক সময় লাগে
*    সেহরি ও ইফতারের মাঝে প্রচুর পানি পান করুন
*   বাজারে এখন অনেক ফল পাওয়া যাচ্ছে চেষ্টা করুন প্রতিদিনের ইফতারে কয়েক ধরনের ফল
রাখতে
*    রাতের খাবারে ভুনা মাংস, পোলাও জাতীয় খাবার রোজা রেখে না খাওয়াই ভালো, এগুলো খেলে বেশি পানির তেষ্টা পায়
*    অতিরিক্ত চা ও কফি খাওয়া ঠিক নয়
*   বাইরে অনেক লোভনীয় ইফতারের পসরা সাজানো থাকলেও ঘরে তৈরি খাবারই স্বাস্থ্যসম্মত ও
পুষ্টিকর
*   অনেকেই ঘুম থেকে জেগে সেহরি খেতে চান না, সেহরি না খেয়ে রোজা রাখলে শরীর ক্লাšত ও
দুর্বল হয়ে যায় একটু কষ্ট হলেও সেহরি খেতে হবে।

এতোক্ষণ আমরা রোজায় ক্লাšিতহীন থাকতে খাবারের কথা জানলাম। আরও কিছু বিষয় জেনে রাখা
ভালো, রোদে বাইরে গেলে অবশ্যই ছাতা ব্যবহার করুন

দিনে দুইবার গোসল করুন, পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের জন্য ওযু করা ছাড়াও বার বার ঠান্ডা পানিতে মুখ
ধুয়ে নিন।

ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ বা অন্য কোনো অসুখ থাকলে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে, রোজা রেখে
নিয়মিত ওযুধ খাওয়ার সময় ঠিক করে নিন।

ওপরেরর বিষয়গুলো মেনে চলে, সুস্থ ও ক্লাšিতহীন ভাবে রোজা পালন করি।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: