শহরের ওপর চাপ কমাতে গ্রাম পর্যায়ে উন্নয়ন- পরিকল্পনামন্ত্রী | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ ◈ অনুকূল পরিবেশ হলে এইচএসসি পরীক্ষা ◈ কুমিল্লায় বিপুল ইয়াবাসহ দম্পতি আটক!

শহরের ওপর চাপ কমাতে গ্রাম পর্যায়ে উন্নয়ন- পরিকল্পনামন্ত্রী

3 October 2016, 1:51:48
স্টাফ রির্পোটার-
পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, শহরের ওপর চাপ কমাতে আমরা গ্রাম পর্যায়ে উন্নয়ন শুরু করেছি। এরই অংশ হিসেবে ১শ’ টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ার ল্যমাত্রা হাতে নিয়েছি। এটা করতে পারলে চাকরির জন্য আর শহরে আসতে হবে না।
শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁও এলজিইডি অডিটোরিয়ামে  ‘আরবান প্রোভার্টি’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে  ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মন্ত্রী একথা বলেন।
তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও পিপিআরসির নির্বাহী পরিচালক ড. হোসেন জিল্লুর রহমানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন- অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ।  বিশ্ব ব্যাংকের দণি এশিয়া অঞ্চলের সেক্টর ম্যানেজার (আরবান ) মিং জং কী নোট উপস্থাপন করেন।
এছাড়া কী নোট উপস্থাপন করেন ইউএনডিপি’র ইন্টারন্যাশনাল প্রজেক্ট ম্যানেজার জন উইলিয়াম টেইলর, প্রফেসর অ্যান্ড এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর গ্লোবাল ডেভলপমেন্ট ইনস্টিটিউট, ইউনির্ভাসিটি অব ম্যানচেস্টার ডেভিড হাম প্রমুখ।
পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন,আমরা প্রতিটি উপজেলায় মাস্টার্স পর্যন্ত লেখাপড়া করতে পারে সেই ব্যবস্থা করছি। এখন আর উচ্চ শিা বা চাকরির জন্য শহরে আসতে হবে না। স্বাস্থ্য সেবা থেকে কর্মসংস্থান ইউনিয়ন পর্যায়ে পৌছে দিয়েছি। এরফলে শহরের ওপর চাপ অনেকাংশ কমে যাবে।
তিনি বলেন, শহরে জনগোষ্ঠী এতো বেড়েছে যে এখন শহরের ধারণ করাই কঠিন। সারা বিশ্বে ৫০০ বছর আগে মাত্র ১০ শতাংশ লোক টাউনে বাস করতো।  ১৯৫০ সালে সেটি দাঁড়ায় ৩৬ শতাংশে, ২০১৫ তে এসে ৬৬  শতাংশে দাঁড়ায়। এরফলে দিন দিন শহর তার ধারণ মতা হারাচ্ছে।  মানুষ শহরে আসতো চাকরি পাওয়ার আশায়। আমরা এখন সেই  সুযোগ সুবিধা গ্রাম পর্যায়ে পৌছে দিচ্ছি।
প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, যারা উন্নয়ন কাজে বাধা হয়ে দাঁড়ায় তাদের মোকাবেলা করা দারিদ্র মোকাবেলার চাইতে কঠিন। তারা বিজ্ঞান, মানবতা, গণতন্ত্র ও শান্তির বিরোধী। এদের ব্যাপারে সবাইকে সচেতন হতে হবে।
বিবিএস রিসার্স পাবলিকেশন বই এর মোড়ক উন্মোচনের আগে সম্মেলনের সমন্বয়কারী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও পিপিআরসির নির্বাহী পরিচালক ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও পৌরসভায় ভিন্ন রকমের সমস্যা। আর এই  সমস্যা সমাধানের পথ এগিয়ে নিয়ে যাবে এই  সম্মেলন।
তিনি বলেন, শহর ও পৌরসভার সেবার মানে অনেক পার্থক্য রয়েছে। কিভাবে এই  পার্থক্য কমিয়ে আনা  যায় আজকের সম্মেলন থেকে তা বেরিয়ে আসবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
তিনি আরো বলেন, সমস্যা গুলোর সমাধানের পথ খুঁজে বের করতে পারলে ভিশন ২০২১ বাস্তবায়ন সহজ হবে। এটা না করতে পারলে সরকারের ল্যমাত্রায় পৌঁছানো কষ্ট হবে। পাশাপাশি বৈষম্য ও দারিদ্র্য বিমোচনে দেশ অনেক পিছিয়ে যাবে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: