শিক্ষার আলো জ্বালাতে অর্থমন্ত্রীর সমীপে খোলা চিঠি

26 February 2020, 9:26:16

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০
মাননীয় অর্থমন্ত্রী জননেতা জনাব আ হ ম মোস্তফা কামাল এমপি মহোদয়,

প্রথমে আমার শ্রশদ্ধ সালাম গ্রহন করবেন। আশা করি ভাল আছেন।শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড , শিক্ষার উপযুক্ত প্রতিষ্ঠান না থাকলে কিভাবে শিক্ষার মুল ভিত্তি প্রতিষ্ঠিত হবে। কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার সর্বশেষ ইউনিয়ন হচ্ছে বক্সগঞ্জ ইউনিয়ন। এ ইউনিয়ন আশেপাশের বিভিন্ন উপজেলার মানুষের অন্যতম সংযোগস্থল।পাশেই নোয়াখালী জেলার সেনবাগ ও সোনাইমুড়ি উপজেলা অপর পাশে ফেনী জেলার দাগনভূঁইয়া উপজেলা হওয়ায় সকল এলাকার শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার অন্যতম স্থান এই বক্সগঞ্জ ।প্রায় লাখো মানুষের মানুষের বসবাস এ ইউনিয়নে। এখানে ৩ টি জুনিয়র মাধ্যমিক বিদ্যালয় , ৩ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় , ১ টি দাখিল ও ১ টি আলিম মাদ্রাসা রয়েছে ।যেখানে একমাত্র উচ্চশিক্ষার প্রতিষ্ঠান বক্সগঞ্জ ইসলামিয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসা ।প্রতিবছর প্রায় ৪০০-৫০০ শিক্ষার্থী এসব প্রতিষ্ঠান থেকে এসএসসি পাশ করে বের হয় । মাদ্রাসায় পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীরা দাখিল পাশের পর আলিম মাদ্রাসায় পড়তে পারে কিন্তু যারা স্কুল থেকে এস এস সি পাশ করে তাদের উচ্চ মাধ্যমিক পড়ার জন্য নিকটে কোন কলেজ নেই। কলেজে পড়তে হলে ৬-৭ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে ঢালুয়া ডিগ্রী কলেজ, গুনবতী ডিগ্রী কলেজ, আকবর আলী খান কারিগরি কলেজে ভর্তি হতে হয় অথবা ১৫ কিলোমিটার দূরে নাঙ্গলকোট সরকারী কলেজ অথবা নাঙ্গলকোট মহিলা কলেজে পড়তে হয়। যাতায়াত ব্যবস্থা তেমন ভাল নয় এবং অনেক ব্যয়বহুল। এ ইউনিয়নের বেশিরভাগ মানুষ কৃষির উপর নির্ভরশীল, দিনমজুর এবং দারিদ্রসীমার নিচে বসবার করেন। তারা স্বল্প আয়ের মানুষ হওয়ায় তাদের সন্তানদের মাধ্যমিকের পর উচ্চ মাধ্যমিক পড়ানোর জন্য নিকটে কোন কলেজ না থাকায় পড়ালেখা না করানোর সিদ্ধান্ত নেয়। উপর্যুপরি যাদের অবস্থা ভালো তারাও বিভিন্ন সামাজিক সমস্যার কারনে তাদের ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা না করানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন ।
বিশেষ করে যারা মেয়ে তাদের এ সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করেছে। এলাকায় বাল্য বিবাহের ও প্রচলন রয়েছে। এসএসসির পর নিকটে কলেজ না থাকায় বাল্য বিবাহের পথ আরো বেশি পরিমানে ত্বরান্বিত হচ্ছে, যা বক্সগঞ্জ তথা পুরো জাতির জন্য হুমকি স্বরুপ। মা যদি শিক্ষিত না হয় তাহলে সে জাতিকে শিক্ষিত করে তোলা কষ্টসাধ্য। এযাবৎ অনেকই কলেজ প্রতিষ্ঠার উদ্দ্যোগ নিলেও তা আজো বাস্তবায়ন হয়নি।

বর্তমান সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ এবং শিক্ষাখাত কে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খাত হিসেবে তিনি অবিহিত করেছেন । আপনি আমাদের অভিভাবক ও আমাদের গর্বের জায়গা । শিক্ষাক্ষেত্রে আপনার অনেক অবদান, আপনি নিজ এলাকায় নিজেই প্রতিষ্ঠিত করেছন বহু কলেজ মাদ্রাসা তাছাড়াও এমপিও ভুক্ত করেছেন এলাকার অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আপনার সকল উন্নয়নমূলক কাজে সকল এলাকার পাশাপাশি বক্সগঞ্জের দলমত নির্বিশেষে সকলেই আপনার উপর কৃতজ্ঞ ।

অতএব মহোদয়ের নিকট আকুল আবেদন এই যে,আপনি বক্সগঞ্জে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠিত করে এই এলাকার দলমত নির্বিশেষে সকলের সর্বশেষ এবং
প্রাণের এই দাবী পূরণ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলার স্বপ্নকে একধাপ সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবেন এটাই আমাদের প্রত্যাশা ।
ধন্যবাদ।

বিনীত,
বক্সগঞ্জ কলেজ বাস্তবায়ন পরিষদের পক্ষ থেকে,
মোঃ শাহ্‌ জালাল আহমেদ ভূঁইয়া সজল।

পিতা: জনাব জহির উদ্দিন ভূঁইয়া ।
_সভাপতি বক্সগঞ্জ ইসলামীয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসা
_সাবেক সভাপতি বক্সগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ।
_সাবেক সভাপতি বক্সগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ।
গ্রাম : মানিকগংগা
পো: মিয়ার বাজার
ইউনিয়ন : বক্সগঞ্জ
থানা: নাঙ্গলকোট
জেলা: কুমিল্লা ।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: