‘সর্বকালের সেরা’ হওয়ার পথে মেসি? | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ ◈ অনুকূল পরিবেশ হলে এইচএসসি পরীক্ষা ◈ কুমিল্লায় বিপুল ইয়াবাসহ দম্পতি আটক!
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

‘সর্বকালের সেরা’ হওয়ার পথে মেসি?

26 June 2014, 5:54:36

বয়স মাত্র ২৭। এই বয়সেই ফুটবলে সম্ভব প্রায় সব অর্জনেই নিজের নাম লিখে ফেলেছেন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর যেখানেই হাত দিয়েছেন, সোনা ফলিয়েছেন। কিন্তু বিশ্বকাপটাই যে এখনো হাত দিয়ে ছুঁয়ে দেখা হয়নি তাঁর। একমাত্র অপূর্ণতা ঘোচাতে এবার বেশ আদা-জল খেয়েই লেগেছেন তিনি। বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে টেনে নিয়ে যাচ্ছেন একাই। ফুটবল-বোদ্ধাদের তাই ধারণা, সর্বকালের সেরা হওয়ার দৌড়ে বেশ ভালোভাবেই আছেন এই তারকা।

এবারের বিশ্বকাপে এ পর্যন্ত করেছেন চার গোল। চার গোল করা বড় কথা নয়, কিন্তু গোলগুলোর ধরন কিন্তু তাঁকে নিয়ে যায় অন্য উচ্চতাতেই। চারটির মধ্যে তিনটি গোলই মেসি করেছেন ডি-বক্সের বাইরে থেকে। বসনিয়ার বিপক্ষে চারজনকে কাটিয়ে জয়সূচক গোল, ইরানের বিপক্ষে সামনে দাঁড়ানো ইরানের নয়জন রক্ষণসেনাকে তোয়াক্কা না বক্সের বাইরে থেকে গোল, আর নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ফ্রি কিক থেকে পাওয়া গোলকে মহাকাব্যিক বললেও ভুল হবে না। এ পর্যন্ত আর্জেন্টিনার করা ছয় গোলের চারটিই এসেছে মেসির জাদুকরি পা থেকে। সর্বকালের সেরাদের জন্ম তো হয় এভাবেই।

এবারের বিশ্বকাপে মেসির পারফরম্যান্স খুব মনে করিয়ে দিচ্ছে ছিয়াশির ম্যারাডোনাকে। তিন ম্যাচের তিনটিতেই স্কোর, আর হালি খানেক গোলের সুযোগ সৃষ্টি তো আছেই। তিন ম্যাচেই হয়েছেন ম্যাচসেরা। সবচেয়ে বড় কথা, তিন ম্যাচেই পেয়েছেন জয়। আর্জেন্টিনার এবারের বিশ্বকাপ মিশনে মেসির একক ভূমিকা তাই মনে করিয়ে দিতেই পারে ছিয়াশির ম্যারাডোনাকে। গোটা দলকে অপূর্ব কারিশমায় একা টেনে নিয়ে যান কেবল ওই কিংবদন্তিরাই।
ম্যারাডোনার পর বিশ্বকাপের টানা তিন ম্যাচে চার গোল করা একমাত্র আর্জেন্টাইন মেসিই। ছিয়াশিতে ম্যারাডোনা একক নৈপুণ্যে নিজে করেছিলেন পাঁচ গোল, করিয়েছিলেন আরও পাঁচটি। সেবার আর্জেন্টিনার ১৪ গোলের ১০টিতেই ছিল ম্যারাডোনার প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষ অবদান। মেসি এবার যেভাবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তাতে আর্জেন্টিনার সমর্থকেরা আশাবাদী হতেই পারেন, ছিয়াশির আনন্দ-স্মৃতি বুঝি এবার মেসির হাত ধরেই ফিরে আসছে।
অন্যের সঙ্গে তুলনা হলেও মেসি এগিয়ে থাকবেন অন্যদের চেয়েও। পেলে, ক্রুইফ কিংবা ম্যারাডোনা দলের অন্য খেলোয়াড়দের কাছ থেকে যথাযথ সমর্থনই পেয়েছিলেন বিশ্বকাপজুড়ে। এ জন্যই হয়তো সম্ভব হয়েছিল ফাইনালের পথ ধরা। মেসির এই দলে মেসি খেলে যাচ্ছেন একাই, দলের রক্ষণ থেকে শুরু করে মাঝমাঠ, আক্রমণভাগ সবখানেই মেসির আধিপত্য। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে কোচ সাবেলা মেসিকে তুলে নেয়ার পরই মাঠে মেসিহীন আর্জেন্টিনার স্বরূপটা বড় প্রকটভাবেই ধরা দিয়েছে দর্শকদের চোখে।

মেসি সম্পর্কে নাইজেরীয় কোচের মন্তব্য কিন্তু এখানে প্রণিধানযোগ্য। তিনি বলেছেন, ‘অবশ্যই আর্জেন্টিনা দলে অসাধারণ সব খেলোয়াড় আছে। কিন্তু তারা আর দশজনের মতো সাধারণ মানুষ। লিওনেল মেসি তো অন্যগ্রহের ফুটবলার।’

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: