শিরোনাম
◈ শুভ জন্মদিন এডভোকেট ফাহমিদা জেবিন ◈ দুঃস্থ ও অসহায়দের সাথে লায়ন-লিওদের ইফতার ◈ গুইমারা ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসার প্রাক্তন ছাত্রপরিষদের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত ◈ কুয়েত প্রবাসী মুলকুতের রহমান রচিত–“প্রসূতি প্রিয়া” ◈ তেরখাদার কৃতিসন্তান মারুফ হাসান অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি ◈ মসজিদে ৭ শিশুকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলো কমিটির লোকজন ◈ আবারো কুমিল্লায় ছুরিকাঘাতে মডার্ন স্কুলের এক ছাত্র নিহত ◈ খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম দীঘিনালা থানা পরিদর্শন করেছেন ◈ মাটিরাঙ্গা জোন কর্তৃক কম্পিউটার ও সেলাই প্রশিক্ষণ ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ ◈ পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভবেশ্বর রোয়াজা নিকি

সাম্প্রতিক কিছু জনপ্রিয় আন্দোলন ও ফলাফল প্রসঙ্গ….

২০ মার্চ ২০১৯, ৭:০৭:২৪

সাম্প্রতিক কিছু জনপ্রিয় আন্দোলন ও ফলাফল প্রসঙ্গ….

কাহহার মুন্না

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যানে আমরা সবাই এখন নিজের মতাদর্শ খুব সহজেই চড়িয়ে দিতে পারছি। অন্যায়, অনিয়ম ও বিভিন্ন অসংগতি নিয়ে বর্তমান প্রজন্ম অসাধারণভাবে প্রতিবাদও জানাচ্ছি। টাইমলাইন জুড়ে প্রতিবাদের টর্নেডো বয়ে যায় হরহামেশাই। হ্যাশট্যাগ দিয়ে একাত্মতা প্রকাশ করতে কার্পণ্য করি না কেউ। কিন্তু হুজুগ শেষে আদৌ কিছু সুফল এসেছে কিনা সেটা দেখিনা আমরা কেউ !!!

মনে আছে কাটাতারে ঝুলে থাকা #ফেলানির কথা ???
ফেলানি ঝুলছে না, ঝুলছে বাংলাদেশ এই স্লোগান দাবানলের চড়িয়ে পড়েছিলো সারাদেশে। দেশ পরিচালনা করা হোমরা চোমরাদের আশ্বাস সেদিন প্রথম বিশ্বাস করেছিলাম। সময়ের স্রোতে হারিয়ে গেছে আজ ফেলানি, বিচার কি পেয়েছি আমরা ???

সোহাগী জাহান তনু কুমিল্লার মেয়েটির কথা মনে আছে ???
যে খুন হয়েছিলো দেশের সবচেয়ে নিরাপদ বলে বিশ্বাস করা ক্যান্টনমেন্টের ভেতর !!! আমরা সবাই তনুর ভাই. তনু হত্যার বিচার চাই? স্লোগান রক্তে আগুন ধরিয়ে দিয়েছিলো। বড্ড বেশী স্বপ্ন দেখেছিলাম তনু হত্যার সুষ্ঠু বিচার পাবো বলে। সারাদেশ একসাথে গর্জে উঠেছিল তনু হত্যার বিচারের দাবীতে। তারপর কি হয়েছিলো ??? তনু হত্যার বিচার হয়েছিলো ??? কেউ খোজ নেয়ার দরকারও মনে করিনি !!!

এরপর দেখেছি কোটা সংস্কার চাই (বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ) আন্দোলন। সারা বাংলাদেশ একসাথে, এক কাতারে সামিল হয়েছিলো। তারপর নানান ঘটন, অঘটন ও বিভীষিকা !!! সে আন্দোলনে হাতুড়ি পেটা করা হয়েছিলো জাতীর মেরুদন্ডে, #রাশেদের মায়ের আহাজারি এখনো আমার কানে বাজে !!! রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ কর্তাব্যক্তিরা আশ্বাস ও প্রশ্বাস দিয়ে নিদারুণ ভাবে প্রতারিত করেছে সত্যিকারের মেধাবীদের। প্রতারনা করেছে দেশের সচেতন ও শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর সাথে !!! আমার ছোট্ট জীবনে এর থেকে যৌক্তিক আন্দোলন আমি আর দেখিনি। এই আন্দোলনের ফলাফলের খাতায় কিছু আশ্বাস ছাড়া আর কিছু যুক্ত হয়েছিল ???

শুধু বাংলাদেশ নয়, গোটা পৃথিবীকে নাড়া দেয়া অসাধারণ একটি আন্দোলনের নাম নিরাপদ সড়ক চাই। স্বাধীনতার পরে দেশের সবচেয়ে সুন্দর ও সাহসী একটি আন্দোলন। কোমলমতী একঝাঁক ছাত্রছাত্রী রাস্তায় নেমে সেদিন দেখিয়ে দিয়েছিলো আমাদের সড়কের অসংগতি গুলো, আমাদের শাসকশ্রেণির ব্যার্থতাগুলো। we went justice স্লোগানের মাঝে সেদিন নতুন করে স্বপ্ন দেখেছিলাম। স্বপ্ন দেখেছিলাম সুন্দর একটি দেশের। কিন্তু যেদিন এদের উপর হেলমেট বাহিনীর তান্ডব চলে ছিলো সেদিনি সব স্বপ্নের মৃত্যু হয়েছিলো। দেশটাকে সাজাতে রাস্তায় নেমে আসা কোমলমতী বাচ্ছাগুলো বাকী জীবন রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের ভয় নিয়েই বেচে থাকবে। ফলাফল শুন্য আরেকটি আন্দোলন….

আজকে আবার নিরাপদ সড়কের দাবী নিয়ে রাস্তায় আমার ভাই, বোন, বন্ধু কিংবা সহপাঠী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আজকেও প্রতিবাদী, হ্যাশট্যাগের বন্যায় প্লাবিত গোটা নিউজফিড। ফলাফল কি ???

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: