সেবকের অমানবিকতা! | Amader Nangalkot
শিরোনাম...
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ জমকালো আয়োজনে বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র ওমান শাখার কমিটি গঠন ◈ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কুমিল্লা দক্ষিণ জেলার কমিটিতে ভোলাকোটের দুই রতন ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

For Advertisement

সেবকের অমানবিকতা!

25 October 2016, 9:38:32

যিশুখ্রিস্টের জন্মেরও ৪০০ বছর আগে গ্রিক চিকিৎসক হিপোক্রেটিস চিকিৎসা পেশায় নৈতিকতা ও দায়িত্ববোধের শপথ লিখে গিয়েছিলেন। সেটার আধুনিক সংস্করণ আজও চালু আছে। সেখানে বলা আছে : হৃদ্যতা, সহমর্মিতা দিয়ে রোগীদের কথা শুনে তাদের সমস্যা উপলব্ধি করা শল্য চিকিৎসকের ছুরি বা রসায়নবিদের ওষুধের চেয়ে বেশি কার্যকর। চিকিৎসা শিক্ষায় সেই শপথ পাঠ করানোর রেওয়াজ বাংলাদেশেও রয়েছে। তবে পেশায় ঢুকে তা মনে রাখেন- এমন ডাক্তারের দেখা এ দেশে খুব কম রোগীই পায়। ডাক্তারের মমত্ববোধে মুগ্ধ হওয়ার বদলে দুর্ব্যবহারে ভীত হওয়ার অভিজ্ঞতাই রোগীদের বেশি। এ দেশে চিকিৎসা নিতে গিয়ে ডাক্তারদের দুর্ব্যবহারের মুখে রোগীদের অসহায় হয়ে পড়ার ঘটনা ঘটছে অহরহ।

 

এমনি একটা ঘটনা উল্লেখ করছি…. ষাটোর্ধ্ব গরীব মহিলা রোগী ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়ায় রোগীকে দেখার পর ডাক্তার ব্যবস্থাপত্র লিখে দিয়ে বলল ভিজিট দিন। গরীব অসহায় রোগী অনেক কষ্ট করে মানুষের দারস্থ হয়ে আনা তিনশত টাকা ডাক্তারের হাতে দিলেন। ডাক্তার ঐ টাকাটা ছুঁড়ে ফেলে দিলেন এবং ব্যবস্থাপত্রটা নিয়ে ছিড়ে দিয়ে রোগীকে বের করে দিলেন। অসহায় গরীব মহিলা ডাক্তারের হাতে পায়ে ধরে ও কোন বিহিত করতে না পেরে কান্না করতে করতে বেরিয়ে গেলেন। এই যদি চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত সেবকগণের অবস্থা হয় তাহলে অসহায় মানবতা ধুকে ধুকে মরবে। এঘটনাটি পড়ে হয়তো পাষাণ হৃদয়ের অধিকারী ব্যক্তিটিও আঁতকে উঠবেন কিন্তু তাদের কিছু যায় আসে না। পড়াশোনা করতে অনেক টাকা গুনতে হয়েছে আজ সুদে আসলে নেওয়ার পালা।

 

অসহায় রোগীদের এই আক্ষেপ ও আহাজারি চিকিৎসক সমাজের কানে পৌঁছায় কিনা বা পৌঁছলেও তাদের ভিতরে এতটুকু নাড়া দিতে পারে কিনা আমার জানা নেই। তবে,অসহায় এসব মানুষের আক্ষেপ আমাদের মনের ভিতর গভীর এক নাড়া দিয়ে যায়। হয়ত মানুষ বলে…!

 

আমরা জানি,ডাক্তারি পেশাটি মানুষের সেবা করার মতো অসাধারণ এক মহান পেশা। যে পেশার মানুষরাই পারে আল্লাহর রহমতে একজন মুমূর্ষু মানুষকে নতুন জীবন দিতে। পারে অসংখ্য অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে। কিন্তু সময় গড়ার সাথে সাথে এ পেশার মানুষের সংখ্যা বাড়লেও তাদের মানবিক বোধ যেন দিন দিন কমছে।

 

(অবশ্য,স্বীকার করছি এর ব্যতিক্রমও রয়েছে। যথেষ্ট আন্তরিক,মানবিক ও বিবেকবোধ সম্পন্ন চিকিৎসকও এ সমাজে রয়েছেন। যারা সেবার মানসিকতা নিয়েই পেশাটিকে বেছে নিয়েছেন এবংএখনো নীরবে সাধারণ ও অসহায় মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন। যাদের কাছে চিকিৎসা পেশাটি কেবলই অর্থ বানানোর হাতিয়ার নয়। তবে,এ সংখ্যা আনুপাতিক হারে অতি নগণ্য)।

 

কেউ অসুস্থ হলে রোগীর স্বজনরা দিশেহারা হয়ে যান। কিন্তু এ অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে ডাক্তার রোগীর স্বজনদের অভয়ের পরিবর্তে এমন ভাব দেখান রোগীর সাথে সাথে স্বজনদেরও প্রাণ ওষ্ঠাগত হয়ে ওঠে।উঁচু তলার মানুষ ছাড়া এমন মানুষ পাওয়া যাবে না যারা এ ধরনের বিড়ম্বনার শিকার হয়নি..!!

 

সরকারি হাসপাতালে রোগী দেখার আর সময় আছে? সবার তো আছে প্রাইভেট ক্লিনিক। হাসপাতালে সেবা নিতে আসা গরিব ও অসহায় মানুষদের সেবা দিতে কুণ্ঠিতবোধ করলেও নিজের নামের শেষে ঐ প্রতিষ্ঠানের পদবী ব্যবহার করতে সংশ্লিষ্ট ডাক্তাররা এতটুকু কুণ্ঠিত নন। কারণ,এই পদবীই তাঁর সাইনবোর্ড। এই পদবীর জোরেই তাঁর প্রচার। পদবী যত বড়,ডাক্তার হিসেবে তিনি ততটাই বড়(বিশেষজ্ঞ)। সেবকের অমানবিকতা দেখে বলতে হয় ধিক্ তারে শত ধিক্ নির্লজ্জ যে জন!

 

নচিকেতার গান দিয়ে শেষ করছি…. ডাক্তার মানে সে তো মানুষ নয় আমাদের চোখে সে তো ভগবান কসাই আর ডাক্তার একইতো নয়, কিন্তু দুটোই আজ প্রফেশান। কসাই জবাই করে প্রকাশ্য দিবালোকে, তোমার আছে ক্লিনিক আর চেম্বার। ও ডাক্তার, ও ডাক্তার…

 

অসহায় মানুষের তুমিই তো সবকিছু, করজোড়ে নিবেদন করছি তাই তোমার গৃহিনী যে গয়না পড়েন দেখেছ কী তাতে কত রক্ত তোমার ছেলের চোখে দেখেছ কী কত ঘৃণা জমা অব্যক্ত তোমারও অসুখ হবে, তোমারই দেখানো পথে যদি তোমাকেই দেখে কোন ডাক্তার। ও ডাক্তার, ও ডাক্তার..

আফজাল হোসাইন মিয়াজী
কলামিষ্ট
দৈনিক আমাদের নাঙ্গলকোট

For Advertisement

Unauthorized use of news, image, information, etc published by Amader Nangalkot is punishable by copyright law. Appropriate legal steps will be taken by the management against any person or body that infringes those laws.

Comments: