স্বপ্নের হাতেখড়িতে অভিভাবকের ভূমিকা | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ ◈ অনুকূল পরিবেশ হলে এইচএসসি পরীক্ষা

স্বপ্নের হাতেখড়িতে অভিভাবকের ভূমিকা

1 May 2017, 4:25:27

অাফজাল হোসাইন মিয়াজী

আজকে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে লিখছি…
আমি যেহেতু শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ করি সেহেতু আমার প্রথম ক্লাসে পরিচয়ের পর যে প্রশ্নটি উত্থাপন করি তা হল তোমাদের স্বপ্ন কি? অনেকেই বলে এখনো ঠিক করিনি।
কেউ আবার শেখানো বুলি আওড়ান আমি ডাক্তার হব, আমি ইঞ্জিনিয়ার হব।
আমরা দেখি একটি শ্রেণী কক্ষের পঞ্চাশজন শিক্ষার্থীই ডাক্তার অথবা ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার কথা বলে ….

তাদের স্বপ্নের অসঙ্গতি দেখে একটা মোটিভেশন ক্লাস নিয়ে বাড়ির কাজ দিলাম। আজকে বাড়ি গিয়ে যে প্রশ্নটি তুমি করবে তা হলো …..
তোমার কাছে তোমার বাবা মায়ের প্রত্যাশা কি?
এ বিষয়টি সবাইকে বলতে হবে। পরদিন ক্লাস শুরু একে একে সবাইকে জিজ্ঞেস করি তোমাকে নিয়ে তোমার পরিবারের স্বপ্ন বল?
একে একে বলতে থাকে অসঙ্গতিপূর্ণ স্বপ্নের বিবরণ। যাইহোক, বিস্মিত হয়েছি তখন, যখন বলছে এসএসসি পরীক্ষার পর ঠিক করবে। মা বলেছে ডাক্তার আর বাবা বলছে ইন্ঞ্জিনিয়ার। দাদা দাদুর প্রত্যাশা একরকম, নানা -নানুর প্রত্যাশা ভিন্নরকম।

একজনকে নিয়ে যখন এত স্বপ্ন!!
তখন সুদূর প্রসারী ফলাফল কি হবে?

বলা হয় শিশুরা কাদা মাটির মত। আপনি যে আকৃতিতে তাদের তৈরি করবেন, তারা সেরকম-ই হবে। তাই, আপনার শিশুর স্বপ্ন বুননে তথা জীবনের লক্ষ্য নির্ধারণে আপনার ভূমিকা কিন্তু অনেক। শাসন এবং আদরের মধ্যে সামঞ্জস্য রেখে সঠিক পথ দেখানোই প্রত্যেকটি মা বাবার দায়িত্ব।স্বপ্নের হাতেখড়ি কিন্তু মা বাবাকে দিতে হবে। সামগ্রিকভাবে সন্তানকে প্রস্তুত করে তুলতে হবে।
কারণ, শিশু হল এমন এক ধরনের নরম মাটি, তাকে যে ছাঁচে ইচ্ছা ঢালুন। সেভাবেই সে গঠন হবে।

–>সন্তানের স্বপ্নের হাতেখড়িতে
অভিভাবকের করণীয় নিম্নরূপঃ

*বাচ্চাদের স্বপ্ন পূরণে পথ দেখান

বাচ্চাদের স্বাধীনতায় সর্বাত্মক সহযোগিতা করুন। বড় হয়ে সে কী হবে তার আভাস যদি ছোট বেলাতেই পাওয়া যায়, তাহলে লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। আপনার উৎসাহ তাকে আরও সামনের দিকে অগ্রসর করবে। তবে তাদের জীবনের লক্ষ্য যদি ভুল হয় তবে তাতে বাধা দেওয়াও আপনার কর্তব্য।

*প্রশংসা করুন

আপনার সন্তান খারাপ কিছু করলে যেমন তাকে শাসন করেন, ঠিক তেমনি ভাল কিছু করলে তার প্রশংসাও করুন; সবার সামনে। সন্তানের দুর্বলতার কথা পরিবারের মধ্যেই রাখতে চেষ্টা করুন। সবাইকে বলে বেড়ালে তারা মানসিকভাবে আঘাত পেতে পারে। এর ফলে আপনার সন্তান জীবনের লক্ষ্য নির্ধারণে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়ে।

*অন্যদের সাথে তুলনা করবেন না

মনে রাখবেন প্রত্যেকেরই নিজস্বতা আছে। আল্লাহ মানুষকে উত্তম আকৃতিতে সৃষ্টি করেছেন। প্রত্যেক মানুষেরই স্বকীয়তা রয়েছে। চাঁদের মাঝে যেমনি সূর্যের প্রখরতা নেই তেমনিভাবে সূর্যের মাঝেও চাঁদের স্নিগ্ধতা নেই। একের মাঝে অন্যকে খুঁজে সন্তানকে চাপ সৃষ্টি করবেন না।
আপনার সন্তান ভাল না খারাপ তা কখনই অন্যের সন্তানকে দেখে বিচার করবেন না। আপনার সন্তানের ভাল মন্দের মানদণ্ড সে নিজেই; তাই তার ভাল বা খারাপ দিক তার কাজের মধ্য দিয়ে বিচার করুন। পাশের বাসার একজন বা আত্মীয়ের মধ্যে অন্য কেউ প্রথম হয়েছে বলে আপনার সন্তানকে সেই উদাহরণ দিয়ে চাপ প্রয়োগ করবেন না। সন্তানকে তার নিজের গতি ও পথে সফল হওয়া শিখান; সবাই যেভাবে জীবনের লক্ষ্য অর্জন করে আপনার সন্তান সেভাবে নাও চলতে পারে। সফলতার শিখরে উঠার পরামর্শ দিন; অন্যের সাথে পাল্লা দিয়ে উপরে ওঠার না।
চলবে ….

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: