হাসানপুর স্টেশনে মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেন স্টপিজের দাবি জানিয়েছে আলোকিত সমাজ হাসানপুর | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ

হাসানপুর স্টেশনে মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেন স্টপিজের দাবি জানিয়েছে আলোকিত সমাজ হাসানপুর

8 August 2020, 5:26:25

মোঃ নাঈম উদ্দিন (প্রিন্স নয়ন),স্টাফ রিপোর্টারঃ-

আলোকিত সমাজ হাসানপুর ও এলাকাবাসির উদ্যোগে হাসানপুর মানবতার সহযোগিতায় ও চট্রগ্রাম-চাঁদপুরগামী মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেন স্টপিজ এর দাবিতে বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার সময় কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার হাসানপুর রেলওয়ে ষ্টেশন চত্বরে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, আলোকিত সমাজের প্রথম উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বাংলাদেশ প্রজন্মলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর এর সভাপতি ও বাংলাদেশ কৃষকলীগ গুলশান থানার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল মমিন মজুমদার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলোকিত সমাজ হাসানপুর এর উপদেষ্টা ও চট্রগ্রামস্থ নাঙ্গলকোট সমিতির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ্ব ওয়াজিউল্লাহ্ ভূঁইয়া (রবিন) ।

আলোকিত সমাজের লক্ষ ও উদ্দেশ্য নিয়ে প্রধান অতিথি বলেন, আলোকিত সমাজ হাসানপুর এই নামটি, আমাদের হাসানপুর এর রেমিটেন্স যুদ্ধা সম্মানিত ছোট ভাইয়েরা প্রবাসে বসবাস করতেছে। নিজেদের জন্য এবং এলাকার মানুষের জন্য পরিশ্রম করে প্রবাসে আছেন। এই রেমিটেন্স যুদ্ধাদের উদ্যোগে আমরা আলোকিত সমাজ হাসানপুর প্রতিষ্ঠিত করেছি।আমাদের গ্রামের প্রায় ৭০ জনের উপরে প্রবাসে আছেন। তার মধ্যেই প্রায় ৬০ জন আলোকিত সমাজের সদস্য হয়ে ওনারা একটি সমিতি আকারে ধারণ করেছেন। এই প্রবাসীদের আদর্শ ও উদ্দেশ্য ছিল প্রতি মাসে ওনাদের ইনকাম থেকে ৫০০ বা ১০০০ টাকা দিয়ে আমাদের সমাজকে সেবা করার জন্য একটি উদ্যোগ নেওয়া। এই সংগঠনে আমার বড় ভাই আবদুল মমিন কে প্রধান উপদেষ্টা ও আমাকে উপদেষ্টা করে এই সমিতি ঘোষণা করেছেন। আমাদের গ্রাম প্রতিনিধি যারা আছেন এবং আমাদের গ্রাম যারা পরিচালনা করেন ওনাদেরকে গ্রাম প্রতিনিধি নির্বাচিত করে ওনারা একটি কার্যকরী পরিষদ কমিটি করে আলোকিত সমাজ গঠন করেন।

এই সমিতিতে প্রতি মাসে প্রতি সদস্য ফি ৫০০ টাকা কিন্তু কেউ ১০০০ টাকা ও দিচ্ছেন। এই তহবিল থেকে ২৫% গ্রামের নিরিহ যারা আছেন তাদেরকে সেবা দেওয়ার জন্য এটি বরাদ্দ করা হয়েছে। বাকি ৭৫% যেটা থাকবে সেটা ব্যাংক সঞ্চয় থাকবে। এই সমিতি ১লা জানুয়ারি ২০২০ ইং চালু হয়েছে। এই পর্যন্ত প্রায় ২ লক্ষ টাকার উপরে ব্যাংকে সঞ্চয় হয়েছে। ২৫%প্লাস নিজেদের কিছু অবদানে আমাদের গ্রামে যারা নিরিহ আছেন তাদের পিছনে প্রায় ২ লক্ষ টাকা খরচ করেছে।

প্রথমে নিরিহ একজন কে ৫ হাজার টাকা দিয়েছে। দ্বিতীয় বার আমাদের গ্রামের এক ছোট ভাইয়ের পায়ের চিকিৎসার জন্য ৪০ হাজার টাকা দিয়েছে। মহামারি করোনা ভাইরাস এর জন্য যারা গ্রামে অসহায় অবস্থায় ছিলেন, তখন আমরা প্রায় ১৩০ টি পরিবারের মাঝে প্রায় ১,৩৪,০০০ টাকা ব্যায়ে অবদান রেখেছে। এই আলোকিত সমাজ হাসানপুর এর বাকি যে সঞ্জয় থাকবে,ঐ টাকা দিয়ে যারা প্রবাসে আছেন, তাদের যেই কোন কষ্ট বা বিপদে আমারা সহযোগিতা করবো। যেই প্রবাসীরা ভিসা হারাই দেশে চলে আসছে যাইতে পারছেনা তাদেরকে ঋীণ দেওয়া হবে। তারা যেন প্রবাসে যাইতে পারে। আমাদের গ্রামে যারা অসুস্থ তাদেরকে সহযোগিতা করা এবং যাদের ঘর নাই করুন অবস্থা তাদের পাশে দাঁড়ানো। এই আলোকিত সমাজের লক্ষ ও উদ্দেশ্যে এই গুলো।

আমাদের আলোকিত সমাজ হাসানপুর এর উদ্যোগে আজকে মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেন স্টপিজ এর জন্য দাবি করে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত করছি আমরা।এইখান থেকে হয়তো শুরু।আপনারা জানেন আগে উন্নত মানের যেই সব ট্রেন গুলো ছিল ঢাকা, চট্রগ্রাম, চাঁদপুর, সিলেটের সব ট্রেন এই ষ্টেশনে স্টপিজ ছিল। ঐ গুলো উঠে গিয়ে ষ্টেশন শূন্য হয়ে গেছে। দুই-একটা ট্রেন ছাড়া অন্য কোন ট্রেন ছিলনা। এই এলাকার দৌলখাড়, বক্সগঞ্চ,বাঙ্গড্ডা পর্যন্ত প্রায় দুই লক্ষ লোকের বসবাস। এই লোক গুলো আমরা অনেকে ঢাকা-চট্রগ্রাম অবস্থান করি। একমাত্র যাতায়াতের পথ ট্রেন। বাসে যাতায়াত করতে গেলে প্রায় তিন গুন বেশি বাড়া দিয়ে যাইতে হয়। হাসানপুর থেকে ঢাকা চট্রগ্রাম যাইতে হলে ট্রেনের বিকল্প কিছুই নাই।

আমরা যারা চট্রগ্রাম আছি আমাদের একটি সমিতি আছে। চট্রগ্রামস্থ নাঙ্গলকোট সমিতি। এই সমিতির উদ্যোগে আমরা রেলমন্ত্রী ও যোগাযোগ মন্ত্রী এবং আমাদের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল (লোটাস) কামালের সহযোগিতায় আমাদের হাসানপুরে যেই ট্রেন গুলো স্টপিজ হয়েছে তা হচ্ছে নগন্য। মেঘনা ট্রেনটি স্টপিজ হলে এলাকাবাসী সকালে চট্রগ্রাম গিয়ে অফিস করে এবং কর্মশেরে বিকালে ফিরে আসতে পারবে। যা এলাকাবাসীর যাতায়াতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে। তাই মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও বাংলাদেশ রেলওয়ের মন্ত্রী মহোদয় এবং রেলওয়ের ডিজি মহোদয়ের নিকট বিনীত আবেদন হাসানপুর ট্রেনটি স্টপিজ দেওয়ার জন্য সবিনয় অনুরোধ করছি।

আজকে আলোকিত সমাজের উদ্যোগে আমরা সামনে যেন আরো দুই-একটি ট্রেন হাসানপুর স্টপিজ করে আমাদের গ্রামের ও এলাকাবাসীর উদ্দেশে যাতায়াতের আমরা উন্নত করতে পারি। আমাদের চট্রগ্রামস্থ নাঙ্গলকোট সমিতি হাসানপুর এর জন্য আগে ও ভূমিকা রেখেছেন সামনে ও রাখবেন ইনশাআল্লাহ্।

আলোকিত সমাজ হাসানপুর এর আজকের অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন, আলোকিত সমাজের গ্রাম প্রতিনিধি এবং গুণবতী ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার আরবি প্রবাসক মাওলানা জয়নাল আবেদিন।

অনুষ্ঠানে গ্রাম প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,আফজালুর রহমান (রতন),মাওলানা অহিদুর রহমান (অদু),মোঃ মোরশেদ আলম,মোঃ খোকন মিয়া,মোঃ আব্দুল হক, সাইদুল হক (সায়েদ),আক্কাস,চুট্টু মিয়া,আবুল হাসেম, নুরুন্নবী, আব্দুল সাত্তার,কামাল হোসেন, ইসহাক, মাস্টার আহসান উল্লাহ্,মজিবুল হক ভূঁইয়া, ইউসুফ ভূঁইয়া।

পরে অনুষ্ঠানে আলোকিত সমাজ হাসানপুর এর মূল কার্যকরী কমিটি ঘোষণা করা হয়।
সভাপতিঃ গিয়াস উদ্দিন(নান্নু),সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ ইদ্রিস ভূঁইয়া,সহ সভাপতি মোঃ ইউসুফ মিয়া,মোঃ জাকের আহম্মেদ, কামাল হোসেন।

সাধারণ সম্পাদকঃ মোঃ কামাল উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাফর আহম্মদ,আনোয়ার হোসেন (মুন্না),এয়াছিন চৌধুরী, মোঃ জসিম উদ্দিন।
সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (তোফায়েল),সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মহিন উদ্দিন।
প্রচার সম্পাদক মোঃ মহিন আহম্মদ,সহ প্রচার সম্পাদক মোঃ ফারুক আহম্মদ।
দপ্তর সম্পাদক মোঃ জিয়াউল হক,সহ দপ্তর সম্পাদক মোঃ ইমাম হোসেন।

অর্থ সম্পাদক মাওলানা মোঃ আমজাদ হোসেন, সহ অর্থ সম্পাদক মোঃ সোহাগ চৌধুরী।আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ফারুক হোসেন, সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আইয়ুব।

যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আলাউদ্দিন।ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ বিল্লাল হোসেন, উপ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ খুরশিদ আলম।সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ পারভেজ হোসেন,সহকারী সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক চাঁনমিয়া।ক্রীয়া বিষয়ক সম্পাদক মোঃ গোলাম হোসেন, সহকারী ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক সমির হোসেন। দূর্যোগ ও ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আজগর হোসেন।
সদস্য বৃন্দঃ মোঃ আনোয়ার উল্লাহ্ ভূঁইয়া, কাজী নাজমুল হক,মোঃ আবু বক্কর ভূঁইয়া, ইউসুফ ভূঁইয়া, জামাল হোসেন, রিপন আহম্মদ, রাসেল হোসেন, মোঃ সুমন, কামাল হোসেন ও বেলাল হোসেন।এই মূল কার্যকরী কমিটির পক্ষ থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক গ্রামের সকলের প্রতি শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চট্রগ্রামস্থ নাঙ্গলকোট সমিতির সভাপতি মোঃ আবু তাহের। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চট্রগ্রামস্থ নাঙ্গলকোট সমিতির প্রচার সম্পাদক মোঃ ইমাম হোসেন,চট্রগ্রামস্থ নাঙ্গলকোট সমিতির সদস্য মোঃ শাহ আলম,৪নং মৌকরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জহিরুল আলম (শিপন),বাংলাদেশ পুলিশ সিআইডি উন্নতম সদস্য অবসর প্রাপ্ত মোঃ রুহুল আমিন,হাসানপুর রেলওয়ে ষ্টেশন মাষ্টার পরিতোষ বড়ুয়া,চট্রগ্রামস্ত নাঙ্গলকোট সমিতির সদস্য মোঃ মনির হোসেন, মিয়াজী ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস এর সত্ত্বাধীকারী মোঃ আবুল খায়ের মিয়াজী।

অনুষ্ঠানে সংগঠনের সফলতা কামনা চেয়ে দোয়া মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: