হোমনায় ঈদের কেনা- বেচার ধুম | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বিশ্ব পর্যটন দিবস ও আমাদের সম্ভাবনা ◈ মোল্লা নিয়ে আলোচনা -সমালোচনা- এ,কে,এম মনিরুল হক ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

হোমনায় ঈদের কেনা- বেচার ধুম

11 June 2017, 9:59:16

আল্ আমি শাহেদ
হোমনার বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে এসে

কুমিল্লার হোমনায় প্রতিটি মার্কেট, শপিংমল ও গ্রামের হাট বাজার ঈদের পন্য কেনা- বেচার ধুম পড়ছে। ক্রেতারা প্রথম রোজ হতেই তাদের প্রয়োজনীয় নতুন জামা কাপড় কিনতে শুরু করেছে। তবে বর্তমানে কেনা বেচা বেড়েছে কয়েক গুন। বিশেষ করে বাচ্চাদের কাপড়,বড়দের থ্রী- পিচ ও জুতার চাহিদা অনেক বেশি তবে পুরুষের পান্জাবী ও লঙ্গীর চাহিদা এবছর তুলনা মুলকভাবে কম। অনেক দোকানদারের সাথে কথা বলে জানা যায় পুরুষের কাপড় বিশেষ করে পান্জাবি, প্যান্টও লুঙ্গী ঈদের কয়েক দিন আগে বেশি বেচা কেনা হয়।
কয়েকজন ক্রেতার সাথে কথা বলে জানা যায় বর্তমানে জিনিস পত্রেের দাম অনেক বেশি। আজগর নামের এক ক্রেতা রাগান্তিত ভাবে বলেন বর্তমান মার্কেট গুলিস্হানকেও হার মানায়। সে বলেন একটি জামার দাম কয়েকগুন বেশি চাওয়া হয় তাতে দাম বলা ধুস্কর হয়ে যায়।
বর্তমান মার্কেট গুলিতে পুরুষদের তুলনায় মেয়েদদের বেশি দেখা যায়।
কয়েকজন দোকান মালিকের সাথে কথা বলে জানা যায় আমাদের বিক্রয় এখনও সে রকম ভাবে হচ্ছে না কারন ক্রেতারা মার্কেট ঘুরে দেখে কিন্তু ক্রয় করে কম। আশা করা যায় কয়েক দিনের মধ্যে ব্যবস্যা ভাল যাবে।
সচেতন ক্রেতা আবু মুসা বলেন কোন দোকানদারই আমাদের বিক্রয় রশিদ দেন না কিন্তু প্রতিটি দোকানদার রশিদ প্রধান করা দরকার।
হোমনা সদরের মোল্লা ওয়াচ কোং সত্বাধিকার জনাব রাশেদুল ইসলাম মোল্লা বলেন হোমনার শপিং মলে নেই কোন লিফটের ব্যবস্হা তাই সিড়ি দিয়ে যাতায়ত করতে হয় এবং উঠা নামা করতে সমস্যা হয় ক্রেতাদের।তাই মার্কেট মালিকদের সচেতন হওয়া দরকার ও ব্যবস্হা গ্রহন করার জন্য প্রশাসনের সাহায্য নিতে হবে।
সব মিলিয়ে হোমনায় ছোট বড় হোমনা সদর সহ ২০-২৫ টি বাজারে ঈদের মার্কেট জমে।সেগুলো হল- হোমনা সদর, রামকৃষ্ণপুর, ঘারমুড়া,দুলালপুর,শ্রীপুর,দৌলতপুর, গোয়ারিভাঙ্গা, মাথা ভাগ্ঙা,কাশি পুর, মনি পুর, চান্দের চর, ভাগেরহাট ও আরো অনেক স্হানে।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: