৭ই জুন মাওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ’র ১৪৮তম জন্মবার্ষিকী | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ বাইয়ারা প্রবাসী কল্যাণ ইউনিট’র বাহারাইন শাখা কমিটি গঠন ◈ পাই যে কৃপার ভাগ – মোঃ জহিরুল ইসলাম। ◈ কুমিল্লায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে জুতা পেটা খাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার ◈ সামাজিক সংগঠন ”খাজুরিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার” ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন ◈ দৌলখাঁড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন প্রধান শিক্ষক শাহ আলম মজুমদার ◈ শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম ◈ শুধু ভুলে যাই- গাজী ফরহাদ ◈ অনুকূল পরিবেশ হলে এইচএসসি পরীক্ষা ◈ কুমিল্লায় বিপুল ইয়াবাসহ দম্পতি আটক!
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

৭ই জুন মাওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ’র ১৪৮তম জন্মবার্ষিকী

8 June 2017, 7:18:46

আগামী  ৭ই জুন বুধবার উপমহাদেশের মুসলিম বাংলা সাংবাদিকতার অগ্রনায়ক, দৈনিক আজাদ ও মাসিক মোহাম্মাদী পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদক মাওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ’র ১৪৮তম জন্মবার্ষিকী। তাঁর জন্ম ১৮৬৯ সালের ৭ই জুন পশ্চিমবঙ্গের বশিরহাট মহকুমার হাকিমপুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। ১৯৬৮ সালের ১৮ই আগস্ট তিনি ৯৯ বছর ২ মাস ১১ দিন বয়সে ঢাকায় ইন্তেকাল করেন। বংশালের আহলে হাদীস গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
উল্লেখ্য, উপমহাদেশে মুসলিম বাংলা সাংবাদিকতার অগ্রনায়ক, দৈনিক আজাদ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ কোলকাতা আলীয়া মাদ্রাসা থেকে শিক্ষা জীবন শেষ  করে ১৯০৩ সালে মাসিক মোহাম্মদী  পত্রিকা সম্পাদনার মাধ্যমে সাংবাদিকতা পেশায় ব্যাপৃত হন। ১৯০৬ সালে ঢাকায় মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠায় তাঁর অবদান ছিল অবিস্মরণীয়। ১৯০৮ সালে তাঁর সম্পাদনায় দ্বিতীয় বার প্রকাশিত হয় মাসিক মোহাম্মদী। ১৯১৩ সালে তিনি আঞ্জুমানে উলামায়ে বাংলা নামে আলেম সমাজের একটি সংগঠন কায়েম করেন। ১৯১৫ সালে তার সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় মাসিক আল-ইসলাম। ১৯১৬ সালে লক্ষ্মৌতে অনুষ্ঠিত মুসলিম লীগ ও কংগ্রেসের যৌথ সম্মেলনে তিনি যোগদান করেন। ১৯১৮ সালে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত বঙ্গীয় মুসলিম সাহিত্য সম্মেলনে তিনি সভাপতিত্ব করেন। ১৯২০ সালের ২৪শে মে তার সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় উর্দু ভাষার দৈনিক জামানা। এ সময় তিনি খেলাফত আন্দোলনে যোগ দেন। ১৯২১ সালে তিনি প্রকাশ করেন দৈনিক সেবক। ১৯২৬ সালে তিনি বাংলা কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯২৭ সালে কংগ্রেস ত্যাগ করে নিখিল বঙ্গ প্রজা সমিতির সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৩৫ সালে তিনি বেঙ্গল এক্সিকিউটিভ  কাউন্সিলের সদস্য নির্বাচিত হন এবং ১৯৩৬ সালে মুসলিম লীগে যোগদান করেন। ১৯৩৬ সালের ৩১ অক্টোবর তিনি দৈনিক আজাদ পত্রিকা প্রকাশ করেন। ১৯৪১ সালে তিনি মুসলিম লীগের বাংলা শাখার সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৪৫ সালে লীগ পার্লামেন্টারী বোর্ডের সদস্য মনোনীত হন। ১৯৪৮ সালে তিনি কোলকাতা থেকে ঢাকা আগমন করেন। ১৯৫৪ সালে মাওলানা আকরম খাঁ মুসলিম লীগ ত্যাগ করেন এবং ১৯৬২ সালে রাজনীতি থেকে অবসর গ্রহণ করেন। ১৯৫৭ সালে বাংলা একাডেমি প্রতিষ্ঠিত হলে তিনি এর প্রথম সভাপতি মনোনীত হন। ১৯৬৩ সালের ৯ই সেপ্টেম্বর তিনি প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খান কর্তৃক জারীকৃত প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স অর্ডিন্যান্সের বিরুদ্ধে ঢাকায় সাংবাদিকদের বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দেন। ১৯৬৮ সালের ১৮ই আগষ্ট তিনি  ঢাকায় ইন্তেকাল করেন। বংশালের আহলে হাদীস গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। ১৯৮১ সালে তাকে দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ঠ্রীয় সম্মাননা স্বাধীনতা দিবস পদকে (মরনোত্তর)  ভ’ষিত করা হয়।
জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার সভাপতি মুহম্মদ আলতাফ হোসেন ও মহাসচিব সাজ্জাদুল কবীর  মুসলিম বাংলা সাংবাদিকতার জনক দৈনিক আজাদ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ’র ১৪৮তম জন্মবার্ষিকী  যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য দেশের সকল প্রেস ক্লাব ও সাংবাদিক সংগঠনকে আহবান জানিয়েছেন। এ উপলক্ষে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা দেশব্যাপী স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল আয়োজনের কর্মসূচী  নিয়েছে। এই দিন ঢাকায় বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এক স্মরণসভার আয়োজন করা হয়েছে। এই স্মরণসভায় বরেণ্য সাহিত্যিক, সাংবাদিক বুদ্ধিজীবীগণ আলোচনায় অংশ নেবেন। তাছাড়া  বিশিষ্ট সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ আলোচক হিসেবে অংশ নেবেন। জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার সভাপতি মুহম্মদ আলতাফ হোসেন সভায় সভাপতিত্ব করবেন।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য: