‘করোনা প্রতিরোধে ছাত্রলীগ নয়, সাংগঠনিক কার্যক্রমে ছাত্রদল এগিয়ে’ | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ নাঙ্গলকোট উপজেলা আনসার ভিডিপি সদস্যদের সার্টিফিকেট প্রধান করা হয় । ◈ বাইয়ারা ফ্রেন্ডস ক্লাব কতৃক ২০০ মানুষের ফ্রী ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় অনুষ্ঠান করা হয়েছে ◈ নাঙ্গলকোট রাইটার্স এসোসিয়েশনের সাবেক সফল সেক্রেটারির পিতার কবর জেয়ারত ◈ নাঙ্গলকোট রাইটার্স এসোসিয়েশন এর সাবেক সেক্রেটারির পিতার কবর জেয়ারত ◈ বিশ্ব নবী (সঃ)অপমানের বিরুদ্ধে বেকামলিয়া ত্বলাবুল ফালাহ্ এর উদ্যোগে রায়কোট ইউপির বৃহত্তর মিছিল অনুষ্ঠিত ◈ মহানবী (স:)এর ব্যঙ্গচিত্রের প্রতিবাদে নাঙ্গলকোটে আহলে সুন্নাহ ওয়াল জামাতের বিক্ষোভ সমাবেশ ◈ ফ্রান্সে নবী (সা.) অবমাননার বিরুদ্ধে জোড্ডা পশ্চিম ইউনিয়ন মান্দ্রা বাজার সর্বস্তরের জনগণের মানব বন্ধন । ◈ দৌড়খাঁড় বাজার খাজা ফার্ণিচার এন্ড নাহিমা শো-রুম শুভ উদ্বোধন। ◈ ফ্রান্সে মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে নাঙ্গলকোটে বিক্ষোভ মিছিল ◈ ফ্রান্সে নবী (সা.) অবমাননার বিরুদ্ধে দৌলখাঁড় বাজার সর্বস্তরের জনগণের বিক্ষোভ মিছিল।

‘করোনা প্রতিরোধে ছাত্রলীগ নয়, সাংগঠনিক কার্যক্রমে ছাত্রদল এগিয়ে’

12 July 2020, 9:44:34

 

ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সহ সভাপতি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি মোক্তাধির হোসেন তরু করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ছাত্রদলের ভূমিকা নিয়ে বলেন ‘ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাংগঠনিক অভিভাবক দেশনায়ক তারেক রহমানের নির্দেশে দেশের এই মানবিক সংকট মুহুর্তে আমরা ইতিমধ্যে প্রায় ৫লক্ষ পরিবারের মাঝে ত্রাণ কার্যক্রম করেছি, ছাত্রসমাজের মধ্যে অব্যাহত ভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছি । তিনি দাবি করেন করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ও করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট মানবিক সংকটে ছাত্রলীগের চেয়ে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কার্যক্রমে অনেক এগিয়ে।

তিনি আরও বলেন, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের নির্দেশে ও প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের অধিন্যস্ত বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ, মহানগর, জেলা,উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড লেভেল পর্যন্ত করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসাধারণের মধ্যে গণসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য লিফলেট বিতরণ, জীবাণুনাশক স্প্রে, সাবান, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক, পিপি, হ্যান্ডগ্লাস বিতরণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে । ছাত্রদলের প্রতিটি শাখা নেতৃবৃন্দ অবিন্যস্ত এলাকায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির পরিবারের মাঝে ঔষধ ও ফলমূল, খাদ্য সামগ্রী প্রদান করে যাচ্ছে । এছাড়াও রক্তদান কর্মসূচি, বিভিন্ন জায়গায় সহউদ্যোগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যাক্তিকে বিনাপয়সায় অক্সিজেন, অ্যাম্বুলেন্স সাপোর্ট দেওয়া হচ্ছে । ছাত্রদলের প্রায় প্রতিটি ইউনিটে করোনায় মৃত্যুবরণ করা ব্যক্তিকে দাফন ও সৎকার করার জন্য টিম গঠন করা হয়েছে, ইতিমধ্যে টিম গুলো জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ‘দাফন ও সৎকার ‘ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।
অথচ ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগ দেশের এই মানবিক সংকট মুহুর্তেও থেমে নেই তাদের প্রতিহিংসার রাজনীতি থেকে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হাতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ইতিমধ্যে ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে কিংবা তাদের দূর্নীতির প্রতিবাদ, জনগণের জন্য বরাদ্দকৃত সরকারি সহযোগিতা আত্মসাৎ এর বিরুদ্ধে কথা বলায় ছাত্রদলের প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে। কয়েকজন কে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে। ‘করোনা পরিস্থিতিতে ছাত্রদলের ভূমিকা ও বর্তমান ছাত্ররাজনীতির হালচাল’ শীর্ষক এক ভার্চ্যুয়াল টকশোতে অংশগ্রহণ করে তিনি এইসব কথা বলেন।

উক্ত ভার্চ্যুয়াল টকশোতে অংশগ্রহণ করে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের যুগ্ন সম্পাদক মিজানুর রহমান শরীফ বলেন, ছাত্রদলের প্রতিটি নেতাকর্মী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকে সাধারণ জনগণ ও ছাত্রসমাজের পাশে রয়েছে। আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছি দেশের এই মানবিক সংকট মুহুর্তে ছাত্রসমাজের পাশে থাকতে। সরকার ও ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের বাঁধার মুখোমুখি হয়েও আমরা আমাদের কার্যক্রম থামিয়ে না দিয়ে বরং দ্বিগুন গুনে বাড়িয়ে দিয়েছি।
তিনি আরোও বলেন, সরকারের ভ্রান্ত নীতি ও প্রতিনিয়ত ভুল সিদ্ধান্তের কারণে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমেই বেড়ে যাচ্ছে। যা ইতিমধ্যে দেশব্যাপী মারাত্মক রুপ ধারণ করেছে। করোনা ভাইরাসের কীট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন দেশের এই সংকট মুহুর্তেও সরকার ব্যক্তিগত প্রতিহিংসা এবং দূর্নীতির লক্ষ্যে ডঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী স্যারের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কীট সহজলভ্য হওয়ার পরও তা ব্যবহার না করে ভারত থেকে বেশি দামে কিনে বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল গুলোতে সরবরাহ করছে, এতে বিপুল পরিমাণে দূর্নীতি হচ্ছে ।

ইতিমধ্যে করোনা টেস্ট বিনামূল্যের পরিবর্তে সরকারি ভাবে করোনা টেষ্টের ফি নির্ধারণ করে দেশের নিম্ম ও নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য করোনা টেস্ট করানো কঠিন করে তোলা হয়েছে । সরকার তাদের মদদপুষ্টদের দূর্নীতির জন্যই ফি নির্ধারণ করেছে এবং কিছু চিহ্নিত বেসরকারি হাসপাতাল কে করোনা টেস্টের সুযোগ দিয়েছে। যার উৎকৃষ্ট উদাহরণ আওয়ামী লীগ নেতা সাহেদের রিজেন্ট হাসপাতাল , প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ ও স্বাস্থ্যখাতে দূর্নীতির অন্যতম হোতা ডঃ সাবরিনার মালিকানা জেকেজি হাসপাতালের ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট ব্যবসা।ইতিমধ্যে রিজেন্ট হাসপাতালের ৬হাজার ও জেকেজির ১৫হাজারের বেশি ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট দেশ ও বিদেশে ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছে। এতে দেশের ভাবমূর্তি ব্যাপকভাবে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশের রেমিট্যান্স যোদ্ধারা। বিভিন্ন দেশ থেকে তাদের ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। গতকাল ইতালির প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ‘ এক একজন বাংলাদেশী এক একটা ভাইরাস বোমা’। যা জাতি হিসাবে আমাদের জন্য বড় লজ্জার। আমরা আশা করবো বিএনপির জাতীয় ঐক্যের আহ্বানে সাড়া দিয়ে সরকার দেশের সকল বিরোধীদল ও শীর্ষ বুদ্ধিজীবী, বিশেষজ্ঞদের সাথে নিয়ে করোনা ভাইরাসের মতো মহামারী দমন করবে।

চিকিৎসা ক্ষেত্রে ছাত্রদলের ভূমিকা নিয়ে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ডাক্তার তৌহিদ আউয়াল বলেন ‘ আমরা জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল, ড্যাব, জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন ঐক্যবদ্ধ ভাবে টেলিমেডিসিন কর্মসূচি চালু করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সেবা দিয়ে যাচ্ছি অনবরত। এতে দেশের অনেক মানুষ উপকৃত হয়েছে, উপকৃত হচ্ছে ছাত্রসমাজ। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন জায়গায় বেসিন স্থাপন, লিফলেট বিতরণ, অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ, হাসপাতাল গুলোতে ডাক্তারদের পিপিএ সহ বিভিন্ন নিরাপত্তা সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে।এছাড়াও প্লাজমা ব্যাংক তৈরির প্রক্রিয়া চলছে।।

‘করোনা পরিস্থিতিতে ছাত্রদলের ভূমিকা ও বর্তমান ছাত্ররাজনীতির হালচাল’ শীর্ষক এক ভার্চ্যুয়াল টকশোতে এইসব কথা বলেন ছাত্রদল নেতৃবৃন্দ।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য:

x