শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম | আমাদের নাঙ্গলকোট
সর্বশেষ সংবাদ
◈ বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুনাবলী ও ধর্মীয় চেনতা-মোহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ ◈ সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন সব ছুটি বাতিল! ◈ সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দেয়া সেই লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহার ◈ নাঙ্গলকোট উপজেলা আনসার ভিডিপি সদস্যদের সার্টিফিকেট প্রধান করা হয় । ◈ বাইয়ারা ফ্রেন্ডস ক্লাব কতৃক ২০০ মানুষের ফ্রী ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় অনুষ্ঠান করা হয়েছে ◈ নাঙ্গলকোট রাইটার্স এসোসিয়েশনের সাবেক সফল সেক্রেটারির পিতার কবর জেয়ারত ◈ নাঙ্গলকোট রাইটার্স এসোসিয়েশন এর সাবেক সেক্রেটারির পিতার কবর জেয়ারত ◈ বিশ্ব নবী (সঃ)অপমানের বিরুদ্ধে বেকামলিয়া ত্বলাবুল ফালাহ্ এর উদ্যোগে রায়কোট ইউপির বৃহত্তর মিছিল অনুষ্ঠিত ◈ মহানবী (স:)এর ব্যঙ্গচিত্রের প্রতিবাদে নাঙ্গলকোটে আহলে সুন্নাহ ওয়াল জামাতের বিক্ষোভ সমাবেশ ◈ ফ্রান্সে নবী (সা.) অবমাননার বিরুদ্ধে জোড্ডা পশ্চিম ইউনিয়ন মান্দ্রা বাজার সর্বস্তরের জনগণের মানব বন্ধন । ◈ দৌড়খাঁড় বাজার খাজা ফার্ণিচার এন্ড নাহিমা শো-রুম শুভ উদ্বোধন। ◈ ফ্রান্সে মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে নাঙ্গলকোটে বিক্ষোভ মিছিল ◈ ফ্রান্সে নবী (সা.) অবমাননার বিরুদ্ধে দৌলখাঁড় বাজার সর্বস্তরের জনগণের বিক্ষোভ মিছিল।

শিক্ষকদের মূল্যায়ন কতক্ষণ করবে- জহিরুল ইসলাম

21 August 2020, 8:22:03

কেউ কেউ মনে করেন শিক্ষকদের চোখ বন্ধ করে সম্মান করতে হবে। অর্থাৎ এই মানুষদের মতে শিক্ষক যেমনি হোক তাকে শ্রদ্ধা করতে হবে। এসব মানুষদের মতে শিক্ষক যত বড় অন্যায়ই করুক, যত বড় দুর্নীতিবাজ হোক না কেন, যত অযোগ্যই হোক তার বিরুদ্ধে কথা বলা যাবেনা। তাদের মতে এটা চরম বেয়াদবী।

আবার কিছু মানুষ মনে করে, শিক্ষক যদি দুর্নীতিবাজ হয়, অযোগ্য হয়, শিক্ষক যদি অন্যায় করে তার প্রতিবাদ করা যাবে এবং করতে হবে।

আমি দ্বিতীয় মতের মানুষ। আমার কাছে শিক্ষকতা একটি মহান পেশা।একজন আদর্শ শিক্ষক দক্ষ ও সুনাগরিক গঠনে খুবই গুরত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে।অন্যদিকে একজন অসৎ এবং দুর্নীতিবাজ শিক্ষক জাতির ধ্বংসের পথে অবদান রাখে । তাই শিক্ষকদের হতে হবে আদর্শ, সৎ ও নিষ্ঠাবান এবং সবার আগে তাদের হতে হবে নিজ বিষয়ে দক্ষ এবং যোগ্য।

স্কুল জীবন থেকেই সব জায়গায় বহু তেলবাজ শিক্ষার্থী দেখে আসছি যারা অযোগ্য ও দুর্নীতিবাজ শিক্ষকদের পা চাটতে ব্যস্ত। এতে ভাল নাম্বার পাওয়া যায়। তারা এইসব অযোগ্য শিক্ষকদের মাঝে মাঝে বাপের আসনে বসিয়ে দেয়!এবং তারা চায় অন্যরাও যেন তাদের মত পা চাটে!

বহু আগ থেকেই আমাদের দেশে স্কুল,কলেজ এমন কি ভার্সিটি পর্যায়ে পর্যন্ত শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে নানা অভিযোগ শুনা যায়। শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার সমস্যার কারণে অনেক অযোগ্য-কুযোগ্য শিক্ষক আমাদের শিক্ষক হয়ে যান। অনেক যোগ্য শিক্ষক এই পেশায় চাইলেও আসতে পারেনা। যারা দুর্নীতি করে শিক্ষক পেশায় আসে তাদের একটাই লক্ষ থাকে যে কোন উপায়ে টাকা কামাবে।
এর পরেও কেউ যদি বলে এসব অযোগ্য শিক্ষকদের আমাকে সম্মান করতে হবে, আমার মনে চায় তারে দুইটা লাগাই।

কোন মানুষ কখনোই একেবারে পারফেক্ট বা নির্ভুল নয়, আমিও নই। একজন শিক্ষক শতভাগ নির্ভুল হবে আমি সেই আশাও করিনা। কিন্তু কোন ইংরেজি শিক্ষক যদি নিজেকে ইংরেজির বস টিচার দাবী করে, মাসে মাসে বহু ছাত্রছাত্রী প্রাইভেট পড়িয়ে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করে, অন্যদিকে এক লাইন ইংরেজি লিখতে ২-৩ টা ভুল করে। তাও আবার যেনতেন ভুল না। সহজ সহজ গ্র্যামাটিকাল ভুল করে। সহজ সহজ বানান ভুল করে। এর পরেও কেউ যদি বলে এসব অযোগ্য শিক্ষকদের আমাকে সম্মান করতে হবে, আমার মনে চায় তারে দুইটা লাগাই।

ছাত্রদের প্রয়োজন হলে শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়বে। এটা খুবই সাধারণ একটি বিষয়। এতে আমার কোন আপত্তি নেই।ছাত্রদের যাকে যে বিষয়ে ভাল মনে হবে, তারা সেই শিক্ষকের কাছে সেই বিষয়ে প্রাইভেট পড়বে, এটা তাদের ব্যক্তিগত বিষয়। কিন্তু কোন কোন শিক্ষক যদি তার কাছেই যাতে সবাই পড়তে আসে সেইজন্য তার কাছে প্রাইভেট পড়লে নাম্বার বেশি দেয়। কেউ যদি পরিক্ষার আগেই প্রশ্ন বলে দেয়। কোন কোন স্যার যদি পরিক্ষার খাতা মূল্যায়ন করার জন্য যখন তার বাসায় নিয়ে যান খাতাগুলো, তখন প্রাইভেট পড়া শিক্ষার্থীদের বাসায় ডেকে নিয়ে উত্তরগুলো আবার লেখান।
তখন কেউ যদি আমাকে বলে এমন শিক্ষকদের সম্মান করতে হবে, আমার মনে চায় তারে দুইটা লাগাই।

আদর্শ শিক্ষকদের মাঝে আমি একধরনের কমন গুণ দেখতে পাই। তা হলো একজন আদর্শ শিক্ষক তার ছাত্রদের মাঝে সম্ভাবনা খুজে বেড়ান। যে ছাত্রকে তার কাছে সম্ভাবনাময়ী মনে হবে তাকে তিনি সবসময় সঠিক গাইডলাইন দিয়ে থাকেন।তার পিছনে তিনি নিঃস্বার্থভাবে পরিশ্রম করে যান। সবসময় শিক্ষক নিজেই সেইসব ছাত্রদের সাথে সুসম্পর্ক রাখেন।

আমার স্কুল জীবনেও আমি বেশ কয়েকজন স্যারের কাছে ঋণী, কলেজ জীবনেও বেশ কয়েকজনের অবদানে আমি ভাল করেছি। তাদের কাছে আমি আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব।আমার সেইসব শিক্ষরাও আমাকে এখনও ভালবাসেন। তাদের সাথে আমি এখনও যোগাযোগ বজায় রেখেছি।কোনদিন তাদের সাথে উচ্চস্বরে কথা বলিনি।আমি জানি একজন আদর্শ শিক্ষককে কিভাবে সম্মান করতে হয়। কিন্তু দয়া করে আমাকে কেউ বলবেননা অযোগ্য, অনৈতিক ও দুর্নীতিবাজ শিক্ষকদের সম্মান করতে।

জহিরুল ইসলাম, শিক্ষার্থী-ঢাকা ইউনিভার্সিটি।

Amader Nangalkot'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।  আমাদের নাঙ্গলকোট পত্রিকা তথ্য মন্ত্রনালয়ের তালিকাভক্তি নং- ১০৫।

পাঠকের মন্তব্য:

x